মঙ্গলবার ৩০ আষাঢ় ১৪২৭, ১৪ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

আষাঢ়েও পুড়ছে বরেন্দ্র ॥ তাপপ্রবাহে বিপর্যস্ত জনজীবন

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ বৃষ্টির অপেক্ষায় থেকে পেরিয়ে গেল আষাঢ়ের ১০ দিন। তার আগে থেকেই বৃষ্টিহীন রাজশাহী অঞ্চল। গাছে গাছে আগেই উঁকি দিয়ে ঝরে গেছে বর্ষার ফুল কদম, তবে ঝরেনি বৃষ্টি। এ অবস্থায় তীব্র খরা অনুভূত হচ্ছে রাজশাহীর বরেন্দ্রসহ উত্তরাঞ্চলজুড়েই। প্রায় তিন সপ্তাহ ধরে বৃষ্টিপাত না হওয়ায় তীব্র দাবদাহে তপ্ত হয়ে উঠেছে এ অঞ্চল। অব্যাহত তাপ প্রবাহে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। হাসফাঁস অবস্থা বিরাজ করছে প্রাণীকূলে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত একটানা সূর্য দহনে স্থবিরতা নেমে এসেছে কর্মজীবনেও। বাসা-বাড়ি, অফিস কিংবা ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান সবখানেই অস্থিরতা চলছে। শান্তি মিলছে না কোথাও। অন্তত দুই সপ্তাহ ধরেই রাজশাহীর আবহাওয়ার তেমন কোনো হেরফের হচ্ছে না। প্রতিদিনই ৪০ ডিগ্রীর কাছাকাছি অথবা ৪০ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রাও উঠছে কখনো কখনো। এই অবস্থায় প্রশান্তির একমাত্র উপায় বৃষ্টির জন্য হাহাকার পড়ে গেছে এ অঞ্চলে। এদিকে তীব্র তাবদাহের কারণে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে বেড়েছে ডায়রিয়াসহ নানা রোগ-বালাইয়ে আক্রান্ত রোগীদের সংখ্যা। বিশেষ করে হাসপাতালের তিনটি শিশু ওয়ার্ডে পা ফেলার জায়গা নেই। বেডে ফ্লোরে সবখানেই রোগী আর রোগী। এত রোগীর চিকিৎসা দিতেও হিমশিম খেতে হচ্ছে চিকিৎসকদের। হাসপাতালের শিশু বিভাগের প্রধান প্রফেসর আসগার হোসেন বলেন, ‘ডায়রিয়া, শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত গড়ে প্রতিদিন এক থেকে দেড়শ রোগী রামেক হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হচ্ছে। রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের সিনিয়র পর্যবেক্ষক নজরুল ইসলাম জানান, গত কয়েকদিন ধরেই রাজশাহীর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কখনোই ২৫ ডিগ্রীর নিচে নামেনি। রবিবার দুপুরে রাজশাহীতে সর্বোচ্চ তাপামাত্রা ছিল ৩৭ দশমিক ৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস। আগের দিন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ দশমিক ৪ ডিগ্রী সেলসিয়াস। এর আগে গত ১৫ জুন রাজশাহীতে বছরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৪০ ডিগ্রী সেলসিয়াস। গত কয়েক বছরের মধ্যে এটিই ছিল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

নজরুল ইসলাম বলেন, রাজশাহীতে মৃদ তাপপ্রবাহ বিরাজ করছে। এ কারণে গরমের পরিমাণ অনেকটা বেশি। অব্যাহত তাপমাত্রার পাশাপাশি ভ্যাপসা গরম ছড়িয়ে পড়েছে। আবহাওয়ার এমন পরিস্থিতিতে মানুষের স্বাভাবিক জীবন-যাপন একেবারেই কঠিন হয়ে পড়েছে। প্রতিদিন সকাল ১০টার মধ্যেই রাস্তা-ঘাট রোদে খাঁ খাঁ করছে। দুপুরের দিকে অবস্থা আরও বেগতিক আকার ধারণ করছে।

শীর্ষ সংবাদ:
বগুড়া-১ ও যশোর-৬ সংসদীয় আসনে ভোটগ্রহণ চলছে         করোনা ভাইরাসের উৎস খুঁজতে চীনে গেলেন ডব্লিউএইচও’র দুই বিশেষজ্ঞ         করোনা ভাইরাসে কমপক্ষে ৩ হাজার স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে ॥ অ্যামনেস্টি         করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে মানুষের প্রতিরোধ ক্ষমতা স্বল্পস্থায়ী ॥ গবেষণা         এবার ট্রাম্প প্রশাসনের 'টার্গেট' ফাউচি         যুক্তরাষ্ট্রে ফাস্ট ট্র্যাক মর্যাদা পেলো করোনা ভাইরাসের দুই ভ্যাকসিন         আফগান গোয়েন্দা কার্যালয়ে গাড়ি বোমা হামলায় নিহত ১১         কোয়ারেন্টাইনে বিরক্ত ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট         হায়া সোফিয়া ইস্যুতে এরদোয়ানের পক্ষে রাশিয়া         দক্ষিণ চীন সাগরে বেইজিংয়ের প্রকল্প অবৈধ ॥ যুক্তরাষ্ট্র         দোকানে মাস্ক না রাখলে জরিমানা         করোনা ॥ যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে শনাক্ত ৫৯,২২২         আশুলিয়ায় পত্রিকা এজেন্টকে মারধরের অভিযোগ         খুলনায় হচ্ছে শেখ হাসিনা মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়         পঙ্কিলতায় পূর্ণ সাবরিনার জীবন         অপরাধীর অপরাধকেই বিবেচনা করে সরকার ॥ কাদের         বর্জ্য ব্যবস্থাপনার সব কার্যক্রম সন্ধ্যা ৬টা থেকে ভোর ৬টার মধ্যে ॥ তাপস         করোনাপরবর্তী বিশ্বে টিকে থাকাই হবে বড় চ্যালেঞ্জ         অনলাইনে কোরবানির পশু কেনাবেচার পরামর্শ স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর         অনিয়ম ও প্রতারণার দায়ে আরেকটি হাসপাতাল সিলগালা        
//--BID Records