বুধবার ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

অস্ট্রেলিয়ার বল টেম্পারিং

অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় ক্রিকেট দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের টেস্ট সিরিজে বল টেম্পারিংয়ের ঘটনায় হতবাক ক্রিকেট বিশ্ব। এ নিয়ে বিশ্বের অগণিত ক্রিকেটামোদী একদিকে যেমন বিস্ময়ে বিমূঢ়, অন্যদিকে ক্রিকেট খেলোয়াড়দের মধ্যে চলছে তোলপাড়, কানাঘুষা সর্বোপরি ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ। অন্তত সবার মধ্যেই ব্যাপকভাবে একটা প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে, অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় ক্রিকেট দলের বাঘা বাঘা খেলোয়াড় এহেন একটা ন্যক্কারজনক কাজ করতে গেলেন কেন? মাঠে উপস্থিত আম্পায়ার, দু’দলের খেলোয়াড় ও দর্শকবৃন্দসহ শত শত শ্যেনদৃষ্টি সংবলিত ক্যামেরার লেন্সের সামনে যে দৃশ্য ধারণ হয়ে সম্প্রচারিত হয়েছে বিশ্বব্যাপী, তাতে দেখা যায়, সে দেশের একজন বোলার ম্যাচ চলাকালে রিভার্স সুইং পাওয়ার জন্য বলের একপাশে হলুদ রঙের স্কচটেপ লাগিয়ে তা তড়িঘড়ি লুকিয়ে ফেলছেন পরিহিত অন্তর্বাসের ভেতরে। এতদিন পর্যন্ত ক্রিকেট বলের গায়ে হাতের নখ অথবা দাঁত দিয়ে আঁচড় দেয়ার কথা শোনা গেছে। এবার কিন্তু বলের গায়ে একেবারে হলুদ টেপ। এ তো ধরা না পড়ে উপায় নেই। ক্রিকেট বিশ্বে এতদিন এক নম্বর পরাশক্তি বলে দাবিদার অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা এরকম একটি অতি কাঁচা কাজ করতে গেলেন কেন? প্রশ্ন সেখানেই। যে কোন খেলায়ই জয়-পরাজয় থাকবেই। তৃতীয় ওই টেস্ট ম্যাচটিতে অস্ট্রেলিয়ার পরাজয় ছিল অবধারিত। সে অবস্থায় যে কোন মূল্যে, ছলে বলে, কলা-কৌশলে জয় ছিনিয়ে নিতে হবেই, তাও আবার বিদেশের মাটিতে খেলতে গিয়ে! এই যদি হয় অবস্থা তাহলে আর নীতিনৈতিকতা থাকে কোথায়। বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারির স্বীকারোক্তির পর তাৎক্ষণিকভাবে অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ, সহঅধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে নেতৃত্ব থেকে। স্পিথকে এক টেস্ট সিরিজ নিষিদ্ধ করেছে আইসিসি। জরিমানা করা হয়েছে বোলার ক্যামেরন ব্যানক্রফটকে। তবে এতেই সব শেষ হয়েছে বলে মনে করার কোন কারণ নেই। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতে এতটা গুরুপাপে নিতান্তই লঘুদ-। অতএব সংশ্লিষ্টদের ভাগ্য জানতে আমাদের আরও অপেক্ষা করতে হবে। সর্বোপরি কেলেঙ্কারির এই ঘটনায় সর্বাধিক চাপের মুখে পড়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া অর্থাৎ সেদেশের জাতীয় ক্রিকেট বোর্ড। কেননা, অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের পৃষ্ঠপোষক ও সম্প্রচার কর্তৃপক্ষ তাদের ওপর থেকে যাবতীয় সমর্থন ও চুক্তি প্রত্যাহার করে নিতে চাইছে। এর ফলে বোর্ডসহ খেলোয়াড়রা লক্ষ-কোটি ডলারের ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারে।

অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট বোর্ড ও খেলোয়াড়দের নাক অবশ্য বরাবরই উঁচু। তারা নাকি অন্যান্য দেশের তুলনায় ভাল খেলে থাকে ক্রিকেটটা। অবশ্য এই অস্ট্রেলিয়াই নিছক নিরাপত্তার অজুহাত তুলে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ বার বার পিছিয়েছে। তদুপরি তারা যে কোন দেশ সফরের আগে নানা শর্তারোপ করে থাকে। এমনকি বর্ণবাদের অভিযোগও তাদের বিরুদ্ধে উড়িয়ে দেয়া যায় না। তবে অতীতের এসব ঘটনা ও বিতর্ককেই ছাপিয়ে গেছে এবারের অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটারদের বল টেম্পারিংয়ের ঘটনা। এখন দেখার বিষয়, সেদেশের সরকার ও ক্রিকেট বোর্ড কিভাবে উদ্ভূত পরিস্থিতি সামলাতে সক্ষম হয় এবং বাদবাকি ক্রিকেট বিশ্বই বা ঘটনাটিকে কিভাবে আমলে নেয়? খেলার সৌন্দর্য ও সৌকর্যের স্বার্থে ক্রিকেটের কলঙ্ক মোচনই প্রত্যাশিত বৈকি।

শীর্ষ সংবাদ:
নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে শৃঙ্খলার মধ্যে আনতে হবে : শিল্পমন্ত্রী         সিলেটে বন্যায় পানিবন্দি ১৫ লাখ মানুষ         কক্সবাজারকে পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তোলা অপরিহার্য ॥ প্রধানমন্ত্রী         হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় বাড়লো         আগামী ৫ জুন বাজেট অধিবেশন শুরু         বিদ্যুতের দাম ৫৮ শতাংশ বাড়ানোর সুপারিশ         ‘নিত্যপণ্যের দাম বাড়ার জন্য দায়ী আন্তর্জাতিক বাজার’         বঙ্গবন্ধু টানেলের টোল আদায় করবে চায়না কমিউনিকেশনস         খোলা বাজারে ডলারের দাম আজ ৯৯ টাকা         দেশে আরও ২২ জনের করোনা শনাক্ত         করোনা নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী         দেশে খাদ্যের কোনো ঘাটতি নেই ॥ খাদ্যমন্ত্রী         ১৯৮২ সালের পর যুক্তরাজ্যে সর্বোচ্চ মুদ্রাস্ফীতি         রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ॥ চিকিৎসাধীন তিন জনের মৃত্যু         রায়পুরে মাদ্রাসা ছাত্রী হত্যায় ৪ জনের যাবজ্জীবন         বাতাসে জলীয়বাষ্প বেশি থাকায় ভ্যাপসা গরম         বিদেশী মনোপলি ব্যবসা বন্ধ করে দেশীয় মালিকানাধীন তামাক শিল্প রক্ষা করুন         ১ জুন ফের শুরু বাংলাদেশ-ভারত ট্রেন চলাচল         হাইকোর্টে সম্রাটের জামিন বাতিল         পরীমনির মামলায় নাসিরসহ ৩ জনের বিচার শুরু