ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯

সফরের বিষয়টি এখনও কোন পক্ষ নিশ্চিত করেনি

উনের গোপন চীন সফর ॥ দৃষ্টি রাখছে দক্ষিণ কোরিয়া

প্রকাশিত: ০৬:৩১, ২৮ মার্চ ২০১৮

উনের গোপন চীন সফর ॥ দৃষ্টি রাখছে দক্ষিণ কোরিয়া

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন গোপনে চীন সফর করেছেন বলে বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম দাবি করেছে। সোমবার তিনটি অজ্ঞাত সূত্রের বরাত দিয়ে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ প্রথম বিদেশ সফরে কিম বেজিংয়ে অবস্থান করছেন বলে জানায়। উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ পর্যায়ের বৈঠকের সম্ভাবনার মধ্যেই খবরটি প্রকাশিত হয়। খবর সত্যি হলে ২০১১ সালে দায়িত্ব নেয়ার পর এটাই হবে উনের প্রথম বিদেশ সফর। সিনহুয়া। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের আগে কিমের এ সফরের সংবাদকে গুরুত্ব দিয়ে দেখছে আন্তর্জাতিক মহল। দক্ষিণ কোরিয়াও এ বিষয়ে ‘গভীর নজর’ রাখার কথা জানিয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দক্ষিণ কোরিয়ার এক উর্ধতন কর্মকর্তা বলেছেন, সব সম্ভাবনার পথ খোলা রেখেই বেজিংয়ে কী ঘটছে সেদিকে গভীর নজর রাখা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে সম্ভাব্য বৈঠকের আগে চীনের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নতিকে তিনি ‘ইতিবাচক’ হিসেবে দেখছেন। এপ্রিলের শেষে ও মে মাসে দুই কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে ওই বৈঠক আয়োজনের চেষ্টা চলছে বলে এর আগে খবর বেরিয়েছিল। মঙ্গলবার সকালে একজন বিদেশী সাংবাদিক বেজিংয়ের রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন দিয়াওয়ুতাই হাউস থেকে একটি গাড়িবহরকে বেরিয়ে উত্তরের পথে যেতে দেখেছেন। চীন সফরে আসা বিভিন্ন দেশের শীর্ষ কর্মকর্তারাই সাধারণত এ অতিথি ভবনে থাকেন। মঙ্গলবার সকালে বের হওয়া গাড়িটিতে কারা ছিলেন তা নিশ্চিত হওয়া না গেলে। কয়েকটি কূটনৈতিক সূত্র ‘সম্ভবত কিম চীনে অবস্থান করছেন’ বলে মন্তব্য করেছে। চীনের কয়েকটি সরকারী সূত্র জানিয়েছে, তাদের ধারণা কিমের বোন কিম ইয়ো জং এখন বেজিংয়ে অবস্থান করছেন। গত মাসে শীতকালীন অলিম্পিকে দক্ষিণ কোরিয়ার পিয়ংচ্যাং গিয়েছিলেন জং, তার সফরের সূত্র ধরেই পরে দুই কোরিয়ার শীর্ষ কর্মকর্তাদের আলোচনার পথ খোলে। বেজিংয়ের উত্তর কোরিয়ার সূত্রের বরাত দিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ার বার্তা সংস্থা নিউসিস কিমের বোন জং এবং উত্তরের আলঙ্কারিক রাষ্ট্রপ্রধান কিম ইয়ং ন্যামের চীন সফরের কথা জানিয়েছে। ফেব্রুয়ারিতে শীতকালীন অলিম্পিক চলার সময় এ দুই দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইনের সঙ্গে বৈঠক করেন। সোমবার জাপানী সংবাদ মাধ্যমগুলোর খবরে পিয়ংইয়ংয়ের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের ট্রেনে করে বেজিংয়ে আসার কথা বলা হয়েছে। তবে তারা ওই কর্মকর্তাদের নামের বিষয়ে কিছু জানাতে পারেনি। ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনেও কিমের সফরের উদ্দেশ, কোথায় কোথায় যাবেন তা বলা হয়নি। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের বাসভবন ব্লু হাউসের এক কর্মকর্তা বলেছেন, পিয়ংইয়ং থেকে বেজিংয়ে ট্রেন যাওয়াসহ উত্তর কোরিয়ার এ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পদক্ষেপের বিষয়ে সিউলের নজর আছে। কিম কিংবা উত্তরের অন্য কোন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা চীন সফর করছেন কিনা তিনি সে বিষয়ে নিশ্চিত করতে পারেননি। আন্তর্জাতিক মহল থেকে বিচ্ছিন্ন উত্তর কোরিয়ার প্রধান মিত্র চীন, সবচেয়ে বড় বাণিজ্য অংশীদারও।