বুধবার ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কর্মীরা পলাতক নেতার হুকুম মানে না ॥ তারেককে কাদের

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে আসার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, ‘পলাতক নেতার হুকুম-আদেশ কর্মীরা পালন করে না। সাহস থাকলে দেশে আসুন। আর বিএনপি তাদের গঠনতন্ত্র সংশোধন করে রায় দিয়েছে বেগম খালেদা জিয়া দুর্নীতিপরায়ণ। বিএনপির গঠনতন্ত্রের ৭ ধারা পরিবর্তন করে আদালতের রায়ের আগেই তারা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার এই রায় দিয়েছে।

শনিবার রাজধানীর শ্যামলী মাঠে আদাবর থানা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শীতার্তদের মধ্যে কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার রায়কে সামনে রেখে শনিবার রাজধানীতে বিএনপির নির্বাহী কমিটির বৈঠক হয়েছে। সেখানে যুক্তরাজ্য থেকে ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য দেন তারেক।

তারেক রহমানকে উদ্দেশ্য করে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘বিদেশে থেকে আন্দোলনের ডাক দিচ্ছেন। আপনার সৎ সাহস থাকে বাংলাদেশে এসে মোকাবেলা করুন। তারেক বলছেন জেল-জুলুম উপেক্ষা করে আন্দোলন করতে হবে। বিএনপির কর্মীরা যদি পাল্টা প্রশ্ন করে, আমরা জেল-জুলুমকে বরণ করে আন্দোলন করব, আর আপনি জেলের ভয়ে সৎ সাহস নেই বলে জেলকে ভয় পাচ্ছেন- তাহলে তারেক রহমান কী জবাব দেবেন?’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘আপনার সৎ সাহস থাকলে দেশে এসে মোকাবেলা করুন। দেশে এসে আন্দোলন করুন জেল-জুলুমের বিরুদ্ধে। তখনই ভাবব আপনি একজন সাহসী নেতা। তার আগে আপনি পলাতক নেতা। পলাতকের ডাকে বাংলাদেশের মানুষ সাড়া দেবে না।’ তিনি বলেন, বিএনপি নেতা তারেক রহমান মানিলন্ডারিংয়ের মামলায় দ-প্রাপ্ত একজন ফেরারি আসামি। তিনি একজন পালাতক আসামি হিসেবে এভাবে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য দিতে পারেন না। তিনি বলেন, তারেক রহমান তার বক্তব্যে আদালতকে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এবং বিচারপতিদের ঠিকাদার হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তিনি এ ধরনের মন্তব্য করে দেশের বিচার ব্যবস্থাকে জঘন্যভাবে অপমান করেছেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি তড়িঘড়ি করে গঠনতন্ত্রের যে ধারা বাতিল করেছে, সেই ধারা অনুযায়ী কোন দুর্নীতিগ্রস্ত ও কুখ্যাত সন্ত্রাসী দলটির সদস্য হতে পারে না। খালেদা জিয়া আদালতে দ-িত হলে তিনিও বিএনপির সদস্য থাকতে পারবেন না। পাঁচ তারকা হোটেল ‘লা মেরিডিয়ানে’ বিএনপির নির্বাহী কমিটির সভা আহ্বানেরও সমালোচনা করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, তারা দুর্নীতির টাকায় সভা করে দামী হোটেলে।

বিএনপির নেতা-কর্মীদের গণগ্রেফতার করা হচ্ছে না দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতেই গ্রেফতার করা হচ্ছে। যেন গণগ্রেফতার করা না হয় সেই জন্য বলা হয়েছে। বিএনপি ক্ষমতায় থাকার সময় হাজার হাজার লোককে গ্রেফতার করেছিল। সে ধরনের ঘটনার যাতে পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেজন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। কিন্তু প্রকাশ্য দিবালোকে যারা পুলিশের প্রিজনভ্যানে হামলা চালিয়ে আসামি ছিনতাই করেছে এবং পুলিশের অস্ত্র কেড়ে নিয়ে তা ভাংচুর করেছে তারা আইনের আওতার বাইরে থাকতে পারে না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, যারা পুলিশ ভ্যানে হামলা চালিয়েছে তারা অনুপ্রবেশকারী নয়। তাদের ভিডিও ফুটেজ রয়েছে। তারা চিহ্নিত সন্ত্রাসী। তাদের গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনতেই হবে। আওয়ামী লীগ বিচারহীনতার সংস্কৃতিতে বিশ্বাস করে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকারের বেশ কয়েকজন মন্ত্রী রয়েছেন যারা আদালতে নিয়মিত হাজিরা দিচ্ছেন। সরকার দলীয় সংসদ সদস্য হয়েও কারাগারে রয়েছেন। বিএনপির সময় এমন কোন নজির কেউ দেখাতে পারবে না।

আদাবর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যদের মধ্যে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। সভা শেষে শীতার্ত মানুষের মধ্যে দু’হাজার শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।

তৃণমূলে ওবায়দুল

কাদেরের চিঠি

দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের সব সময় সতর্ক থাকতে জেলা-উপজেলায় চিঠি পাঠিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার দুর্নীতি মামলার রায় কেন্দ্র করে যাতে কেউ কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে সেজন্যই শনিবার এই নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে। দলীয় সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

জানা গেছে, এছাড়া ওবায়দুল কাদের স্বাক্ষরিত চিঠিতে নির্বাচনী কেন্দ্রভিত্তিক কমিটি গঠন, নির্বাচনী পোলিং এজেন্টদের ট্রনিংয়ের জন্য কেন্দ্রীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সঙ্গে যোগাযোগ করা, বিএনপি ও জামায়াত জোটের সন্ত্রাস, নৈরাজ্য ও গণবিরোধী রাজনীতির বিরুদ্ধে জনগণকে সজাগ, সতর্ক করা এবং সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম আরও জোরদার করারও নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে। ওবায়দুল কাদেরের পাঠানো চিঠিতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে সাংগঠনিক কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার জন্যও তাগিদ দেয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, একাদশ সংসদ নির্বাচন নিকটে চলে এসেছে। তাই এই মুহূর্তে এক মিনিটের জন্যও সময় নষ্ট করা চলবে না।

বিএনপি নির্বাচনে না এলে নিবন্ধন বাতিল হবে

নিজস্ব সংবাদদাতা কুমিল্লা থেকে জানান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি বলেছেন, বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করলে তাদের নিবন্ধন বাতিল হবে। তাই এখন তারা নানা অজুহাতে মিথ্যাচারের ভাঙ্গা রেকর্ড বাজাচ্ছে। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কুমিল্লা শহরের শাসনগাছা রেলওয়ে ওভারপাসের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলার রায় হবে। এ নিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের কোনরূপ হয়রানি করা হচ্ছে না। হয়রানির অভিযোগ থাকলে তারা বলুক। তারা (বিএনপি) লা মেরিডিয়ানে দলের নির্বাহী কমিটির সভা করছে। কেউ তো তাদের বাধা দিচ্ছে না।

শীর্ষ সংবাদ:
নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুন, কেউ ভোটের অধিকার কেড়ে নেবে না : প্রধানমন্ত্রী         সিলেটে বন্যায় পানিবন্দি ১৫ লাখ মানুষ         বন্যায় সিলেটবাসীকে সহযোগিতা দেয়া হবে         আগামী ৩১ মে হজ ফ্লাইট শুরু নিয়ে ফের অনিশ্চয়তা         নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে শৃঙ্খলার মধ্যে আনতে হবে : শিল্পমন্ত্রী         হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় বাড়লো         আগামী ৫ জুন বাজেট অধিবেশন শুরু         বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ বাতিল         বন্যার্তদের পাশে রয়েছে সরকার ॥ ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী         নতুন সচিব ৮ মন্ত্রণালয়ে         বিদ্যুতের দাম ৫৮ শতাংশ বাড়ানোর সুপারিশ         ‘নিত্যপণ্যের দাম বাড়ার জন্য দায়ী আন্তর্জাতিক বাজার’         বঙ্গবন্ধু টানেলের টোল আদায় করবে চায়না কমিউনিকেশনস         খোলা বাজারে ডলারের দাম আজ ৯৯ টাকা         ঢাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী রোজেন বাহিনীর সেকেন্ড-ইন কমান্ড গ্রেফতার         দেশে আরও ২২ জনের করোনা শনাক্ত         করোনা নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী         দেশে খাদ্যের কোনো ঘাটতি নেই ॥ খাদ্যমন্ত্রী         ১৯৮২ সালের পর যুক্তরাজ্যে সর্বোচ্চ মুদ্রাস্ফীতি