বুধবার ৫ মাঘ ১৪২৮, ১৯ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সরকারী কলেজ শিক্ষকদের দাবি ১৬ নবেম্বরের মধ্যে মানতে হবে

  • দেশজুড়ে সংবাদ সম্মেলন

জনকণ্ঠ রিপোর্ট ॥ বেসরকারী থেকে সরকারী হওয়া কলেজ শিক্ষকদের ‘বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারে’ অন্তর্ভুক্ত করার ঘটনা নিয়ে অস্থিরতার দিকে যাচ্ছে শিক্ষাঙ্গন। ওই শিক্ষকদের নন-ক্যাডার করা ও তাদের চাকরি স্ব স্ব কলেজে সীমাবদ্ধ রাখার দাবিতে রবিবার দেশজুড়ে একযোগে ডাকা সংবাদ সম্মেলন ও মতবিনিময় থেকে বৃহত্তর কর্মসূচীর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সরকারী কলেজ শিক্ষকরা। সারাদেশের সরকারী কলেজ শিক্ষকরা আগামী ১৬ নবেম্বরের মধ্যে দাবি পূরণে আল্টিমেটাম দিয়ে বলেছেন, বেসরকারী থেকে সরকারী হওয়া শিক্ষকদের নন-ক্যাডার করে নতুন বিধি জারি না করলে ১৭ নবেম্বর ঢাকায় মহাসমাবেশ করে বৃহত্তর কর্মসূচী দেয়া হবে।

পূর্ব ঘোষণা অনুসারে রবিবার দেশের ৬৪ জেলায় একযোগে বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির ডাকে ব্যতিক্রমী এ কর্মসূচী পালিত হয়েছে। কর্মসূচী সফল করায় বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির সভাপতি অধ্যাপক আইকে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার ও মহাসচিব শাহেদুল খবীর চৌধুরী বিসিএস ক্যাডারভুক্ত সারাদেশের সরকারী কলেজ শিক্ষকদের অভিনন্দন জানিয়েছেন। তারা বলেছেন, আমরা কলেজ জাতীয়করণের বিপক্ষে নই। কিন্তু জাতীয়করণ করা কলেজ শিক্ষকদের বিসিএস পরীক্ষায় উর্ত্তীণ না হলে তাদের ক্যাডারভুক্ত করা যাবে না। শিক্ষানীতি ২০১০ অনুযায়ী কলেজ জাতীয়করণের পর নিয়োগ করা শিক্ষকদের জন্য নতুন বিধিমালা করতে হবে। জাতীয়করণের এই সমস্যার ফলে কলেজ কর্তৃপক্ষ এবং শিক্ষকদের মধ্যে দ্বন্দ সৃষ্টি হচ্ছে, শিক্ষা কার্যক্রম ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। আমরা চাই নতুন নিয়োগকৃত শিক্ষকদের জন্য নতুন নীতিমালা প্রণয়ন করা হোক। জাতীয়করণ করা কলেজের নন-ক্যাডার শিক্ষকদের নিজ নিজ কলেজ থেকে অন্যত্র বদলি না করার আহ্বানও জানান নেতারা।।

শিক্ষক নেতারা বলেন, বেসরকারী থেকে জাতীয়করণ হওয়া কলেজগুলোতে কর্মরত শিক্ষকদের জন্য পৃথক নিয়োগ, পদায়ন, জ্যেষ্ঠতা, পদোন্নতি ও পরিচালনাসহ চাকরির শর্ত নির্ধারণ করে নীতিমালা প্রণয়ন করা দরকার, যাতে বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে মেধার ভিত্তিতে যোগদান করা কর্মকর্তাদের স্বার্থ ও মর্যাদা কোনভাবেই ক্ষুন্ন না হয়। কিন্তু বেসরকারী কলেজের শিক্ষকদের ক্যাডারভুক্ত করার পাঁয়তারা চলছে। এখন জাতীয়করণ হওয়া শিক্ষকরা যদি সরাসরি ক্যাডারে অন্তর্ভুক্ত হন, তাহলে বিদ্যমান বিসিএস শিক্ষক ক্যাডারের কর্মকর্তারা জ্যেষ্ঠতা হারাবেন। এর ফলে বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারের মেধাবী শিক্ষকরাও মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।

এদিকে সারাদেশের কর্মসূচীতেই বিসিএস শিক্ষক নেতারা বলেছেন, আমরা কলেজ জাতীয়করণের বিপক্ষে নই। কিন্তু জাতীয়করণ করা কলেজ শিক্ষকদের বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ না হলে তাদের ক্যাডারভুক্ত করা যাবে না। শিক্ষানীতি অনুযায়ী কলেজ জাতীয়করণের পর ওই কলেজের শিক্ষকদের জন্য নতুন বিধিমালা করতে হবে।

শীর্ষ সংবাদ:
কেউ যেন হয়রানি না হয় ॥ সেবামুখী জনপ্রশাসন গড়তে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ         দাম্পত্য কলহেই চিত্রনায়িকা শিমু খুন         ইসি সার্চ কমিটিতেই         করোনা শনাক্তের হার আশঙ্কাজনক বাড়ছে         ব্যাপক তুষারপাত ॥ শীতে নাকাল আমেরিকা ইউরোপ         ভিসি প্রত্যাহার দাবিতে শাবিতে আন্দোলন অব্যাহত         সীমান্ত অপরাধ দমনে সরকার কঠোর         দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর হোন-ডিসি সম্মেলনে রাষ্ট্রপতি         ভারতের অনুকূল বাণিজ্য বাংলাদেশের জন্য উদ্বেগের কারণ         শিমু হত্যায় চলচ্চিত্র অঙ্গন তোলপাড়, বিচার দাবি         হাফ ভাড়া ॥ তিতুমীরের দুই শিক্ষার্থীকে মারধর         উন্নয়ন প্রকল্প তদারকিতে কমিটি গঠনের প্রস্তাব ডিসিদের         বিএসসির নিট আয় ৭২ কোটি টাকা, নগদ লভ্যাংশের সুপারিশ         ডায়ালাইসিসের রোগী বেড়ে যাওয়ায় চিকিৎসকরা হিমশিম         জনগণের টাকায় বেতন হয় : ডিসিদের রাষ্ট্রপতি         একদিনে করোনায় মৃত্যু ১০, শনাক্ত ৮৪০৭         শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হচ্ছে না : শিক্ষামন্ত্রী         বুধবার থেকে ভার্চুয়ালি চলবে সুপ্রিম কোর্ট         নায়িকা শিমু হত্যা মামলা স্বামী ও গাড়িচালক তিনদিনের রিমান্ডে         তৃণমূলের প্রকল্প বাস্তবায়নে আরও মনোযোগী হোন ॥ ডিসিদের প্রধানমন্ত্রী