ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯

সাফ অনুর্ধ-১৫ ফুটবলের অপর সেমিতে ভারতের মুখোমুখি ভুটান

সেমিতে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ স্বাগতিক নেপাল

প্রকাশিত: ০৪:৪৬, ২৪ আগস্ট ২০১৭

সেমিতে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ স্বাগতিক নেপাল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নেপালের কাঠমান্ডুতে চলছে সাফ অনুর্ধ-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপ। বাংলাদেশ পড়েছে ‘এ’ গ্রুপে। এক ম্যাচ খেলেই (শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ৪-০ গোলে জয়) জুনিয়র টাইগাররা সেমিফাইনাল খেলা নিশ্চিত করেছিল। দ্বিতীয় ও শেষ গ্রুপ ম্যাচে ভুটানকে হারিয়ে (৩-০ গোলে) নিশ্চিত করে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন (অপরাজিত) হওয়া। শুধু বাকি ছিল শেষ চারÑ অর্থাৎ সেমিফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ কে হবে সেটা জানা। সেই প্রশ্নের জবাবও ইতোমধ্যেই পেয়ে গেছে ফাহিম-নাজমুলরা। বুধবার টুর্নামেন্টের ‘বি’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে স্বাগতিক নেপাল মুখোমুখি হয় ভারতের। আর তাতে ভারতই হেসেছে বিজয়ীর হাসি। তারা নেপালকে হারিয়েছে ২-১ গোলে। এর ফলে ‘বি’ গ্রুপের অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হলো তারা। আগামী শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে টুর্নামেন্টের দুটি সেমিফাইনাল ম্যাচ। প্রথম ম্যাচেই মাঠে নামবে বাংলাদেশের কিশোররা। তারা মুখোমুখি হবে ‘বি’ গ্রুপের রানার্সআপ স্বাগতিক নেপালের। খেলাটি অনুষ্ঠিত হবে সাতদোবাতোর আনফা কমপ্লেক্সে বাংলাদেশ সময় বেলা ৩টায়। একই সময়ে কাঠমান্ডুর হালচক স্টেডিয়ামে ভারত মোকাবেলা করবে ‘এ’ গ্রুপের রানার্সআপ ভুটানের। ভারত তাদের প্রথম ম্যাচে মালদ্বীপকে ৯-০ এবং নেপাল তাদের প্রথম ম্যাচে মালদ্বীপকে ৬-০ গোলে হারিয়েছিল। ‘এ’ গ্রুপ থেকে শ্রীলঙ্কা এবং ‘বি’ গ্রুপ থেকে মালদ্বীপ কোন পয়েন্ট না পেয়েই বিদায় নিয়েছে। এই আসরে এখন পর্যন্ত দলগত সবচেয়ে বেশি গোল করেছে ভারত ১১টি। আর একমাত্র দল হিসেবে বাংলাদেশ এখনও কোন গোল হজম করেনি (৭ গোলের বিপরীতে)। বাংলাদেশের ফয়সাল আহমেদ ফাহিম ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ গোলদাতার শীর্ষে আছে। তার গোল সংখ্যা ৪। টুর্নামেন্টের একমাত্র হ্যাটট্রিকটিও তারই (শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে)। এই আসরের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৭ আগস্ট আনফা কমপ্লক্সে। উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে সিলেটে অনুষ্ঠিত সাফ অনুর্ধ-১৬ টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ। ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারা। ফলে শিরোপা অক্ষুণœ রাখার চাপ আছে তাদের ওপর। বাংলাদেশ কি এবার পারবে স্বাগতিক নেপালকে হারিয়ে এই আসরে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠতে?