ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২, ২১ আশ্বিন ১৪২৯

নাড়ির টানে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি বরিশালে

প্রকাশিত: ০৫:৫৭, ২৫ মে ২০১৭

নাড়ির টানে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি বরিশালে

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল ॥ মাটির টানে এই প্রথম পৈত্রিক ভিটায় এসেছেন ভারতের কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি সুব্রত তালুকদার। বুধবার দুপুরে গৌরনদী উপজেলার বার্থী ইউনিয়নের প্রত্যন্ত ধুরিয়াইল গ্রামে নিজের মা-বাবা ও সন্তানকে নিয়ে তিনি পৈত্রিক ভিটায় এসে আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন। তিনি বলেন, ঠাকুর মায়ের মুখে গ্রামের বাড়ির ইতিহাস ও ঐতিহ্যের অনেক গল্প শুনেছি, যা আজ স্ব চোখে দেখে অনুভব করলাম। আমার বাবা ছোটবেলায় এ বাড়িতেই ছিলেন। বিচারপতি আরও বলেন, বরিশালের মাটিতে আমার ঠাকুর দাদা ও ঠাকুর মায়ের গন্ধ পাচ্ছি। পৈত্রিক ভিটায় তিন পুরুষ একসঙ্গে আসতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, কলকাতায় বসবাস করলেও সব সময় আমার মনে হয় ধুরিয়াইল গ্রামে আমার বাসা। সূত্র মতে, প্রধান বিচারপতি সুব্রত তালুকদার জন্মের পর এই প্রথম তার পৈত্রিক ভিটায় এসেছেন। সকাল দশটা থেকে তিনি দিনভর বাড়ির পুরাতন বিল্ডিংয়ের প্রতিটি তলার বিভিন্ন কক্ষসহ বাড়ির আশপাশ ঘুরে দেখেন। এলাকাবাসীর সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। বিচারপতি সুব্রত তালুকদারের সঙ্গে ছিলেন তার বাবা অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সার্ভিসের অফিসার সতেন্দ্র প্রসাদ তালুকদার, মা অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষিকা কল্পনা তালুকদার ও কলেজ পড়ুয়া ছেলে সচীত তালুকদার। সতেন্দ্র প্রসাদ তালুকদার বলেন, দীর্ঘদিন পরে হলেও ছোটবেলার স্মৃতি জড়িত বাড়িতে আসতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। সূত্রে আরও জানা গেছে, ধুরিয়াইল গ্রামের স্বর্গীয় হারান চন্দ্র তালুকদার তৎকালীন ওই এলাকার জমিদার ছিলেন। তার মৃত্যুর পর তারই ছেলে সত্যেন্দ্র প্রসাদ তালুকদার ১৯৫০ সালে চাঁদশী ঈশ্বর চন্দ্র মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ইংরেজীতে প্রথমস্থান অধিকার করে পরিবার নিয়ে ভারতের কলকাতায় পাড়ি জমান। সিদ্ধিরগঞ্জে তিন সন্তানের জননীর মৃত্যু ॥ ক্লিনিক ম্যানেজার আটক স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ ॥ সিদ্ধিরগঞ্জের কদমতলী এলাকায় একটি ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় তিন সন্তানের জননী ময়না বেগমের (৪০) মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার রাতে অপারেশনের পর রোগীর মৃত্যু হয় বলে রোগীর স্বজনরা অভিযোগ করেন। পরে ক্লিনিকের মালিকপক্ষ রোগীর স্বজনদের হাসপাতাল থেকে বের করে দিয়ে সটকে পড়ে। এ ঘটনায় নিহতের স্বজনরা ক্লিনিকটির ম্যানেজারকে অবরুদ্ধ করে রাখে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ম্যানেজার সুজনকে আটক করে। নিহত ময়না বেগম সিদ্ধিরগঞ্জের চৌধুরীবাড়ি এলাকার আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী। তাদের এক ছেলে ও ২ মেয়ে রয়েছে। নিহত ময়না বেগমের ভাই মাসুদ জানান, সিদ্ধিরগঞ্জের কদমতলী পুল এলাকায় অবস্থিত এম হোসেন জেনারেল হাসপাতাল নামক ওই ক্লিনিকে ময়নার জরায়ুতে টিউমার অপারেশন হয়। এ জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ৩০ হাজার টাকার চুক্তি হয়েছিল। মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে অপারেশন শুরু হয়। রাতে ময়নার মৃত্যু হয়। ঘটনার পর হাসপাতালটির মালিকপক্ষ সটকে পড়ে। এ ঘটনায় রোগীর আত্মীয়-স্বজনরা ম্যানেজার সুজনকে অবরুদ্ধ করে রাখে। সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ ম্যানেজার সুজনকে আটক করে।