ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

রূপকথার নায়ক র‌্যানিয়েরি বরখাস্ত

প্রকাশিত: ০৫:০১, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

রূপকথার নায়ক র‌্যানিয়েরি বরখাস্ত

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গত মৌসুমে রূপকথার জন্ম দিয়ে লিচেস্টার সিটি ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের শিরোপা জয় করে। রঙিন এ সাফল্যের গর্বিত নায়ক ছিলেন কোচ ক্লাউডিও র‌্যানিয়েরি। কিন্তু এক বছরের মধ্যেই মুদ্রার উল্টো পিঠটা দেখতে হলো তাকে। ইপিএলের চলমান মৌসুমে সেই লিচেস্টার অবনমনের শঙ্কায়। কোন টুর্নামেন্টেই নেই শিরোপা জয়ের সম্ভাবনা। যে কারণে অনেকদিন ধরেই গুঞ্জন চলছিল, লিচেস্টার অধ্যায় শেষ হয়ে যেতে পারে তারকা এই কোচের। অবশেষে শঙ্কাটাই সত্যি হয়েছে। শুক্রবার ৬৫ বছর বয়সী এই কোচকে বরখাস্ত করেছে লিচেস্টার কর্তৃপক্ষ। এই দুঃসময়ে র‌্যানিয়েরির পাশে দাঁড়িয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পর্তুগীজ কোচ জোশে মরিনহো। কোচদের জীবন এমনই, সফলতা পেলে তাকে মাথায় তুলে নাচানো হয় আর ব্যর্থ হলে ছুড়ে ফেলে দেয়া হয়। র‌্যানিয়েরির সঙ্গেও এমনই হলো। ইপিএলে চলমান মৌসুমে ২৫ ম্যাচে মাত্র ২১ পয়েন্ট সংগ্রহ করা লিচেস্টার এখন অবনমনের দোরগোড়ায়। ব্যর্থতার প্রথম কোপটা পড়ল কোচের ওপরই। লিচেস্টার রূপকথার নেপথ্যের নায়ককে হটিয়ে দিল ক্লাব কর্তৃপক্ষ। এক বিবৃতিতে লিচেস্টার সিটি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই মৌসুমে ক্লাব হুমকির মুখে দাঁড়িয়ে আছে। তাই নেতৃত্বে পরিবর্তন আনার কথা চিন্তা করেছি আমরা র‌্যানিয়েরিকে সরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্তটা কঠিন ছিল। তবে ধারাবাহিকতা রক্ষার জন্য এটা জরুরী ছিল। প্রিমিয়ার লীগে টিকে থাকাটাই আমাদের প্রধান লক্ষ্য। তবে র‌্যানিয়েরি লিচেস্টারের জন্য যা করেছেন, সেজন্য ক্লাব সবসময়ই তার প্রতি কৃতজ্ঞ থাকবে। অথচ সপ্তাহ দুই আগেও র‌্যানিয়েরির প্রতি পূর্ণ সমর্থন ছিল ক্লাবের। বরখাস্ত হতে পারেন এমন গুঞ্জনকে তাই উড়িয়েও দিয়েছিলেন র‌্যানিয়েরি। বলেছিলেন, ‘এসব গুজবে আমি কিছু মনে করি না, কারণ প্রতি সপ্তাহেই আমি মালিকের সঙ্গে কথা বলি। আমাদের দু’জনের মাঝে ভাল সম্পর্ক।’ কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না তার। বর্তমানে ইপিএলে পয়েন্ট টেবিলের ১৭তম অবস্থানে লিচেস্টার সিটি। অবনমন অঞ্চলে থাকা তিন দলের সঙ্গে পয়েন্ট দূরত্ব খুবই সামান্য। এভাবে চলতে থাকলে শেষ পর্যন্ত অবনমন হয়েই যাবে দলটির। তাই নতুন কারেও হাতে দায়িত্ব দিয়ে অবনমনটা ঠেকাতে চাইছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। লিচেস্টার সিটির দায়িত্ব নেয়ার আগে ১৫টি দলের কোচ ছিলেন র‌্যানিয়েরি। ৩০ বছরের ক্যারিয়ারে পাঁচবার বহিষ্কার হয়েছেন তিনি। চেলসির কোচ থাকাকালে দল ও ফরমেশনে বারবার পরিবর্তন আনায় ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম তার নাম দিয়েছিল ‘টিংকারম্যান’। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপ বর্থতার পর গ্রীস জাতীয় দলের কোচ হিসেবে যোগ দেন র‌্যানিয়েরি। ওই বছরের ১৫ নবেম্বর ইউরো বাছাইপর্বে গ্রীস হেরে যায় ফারো আইল্যান্ডের কাছে। সেখানেও তাকে পড়তে হয় বহিষ্কারের খাঁড়ায়। এরপর ২০১৫ সালে লিচেস্টারের কোচ হিসেবে যোগ দেন র‌্যানিয়েনি। এখানে উষ্ণ অভ্যর্থনা পাননি তিনি। লিচেস্টারের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় তারকা গ্যারি লিনেকার কোচ হিসেবে র‌্যানিয়েরিকে পছন্দ করেননি। তবে ক্লাবের ১৩২ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো প্রিমিয়ার লীগের শিরোপা জেতা র‌্যানিয়েরি কিংবদন্তিতে পরিণত হন। ২০১৬ সালের ফিফা বর্ষসেরা কোচের স্বীকৃতিও এনে দেয় র‌্যানিয়েরিকে। বর্ষসেরা ঘোষিত হওয়ার দুই মাসের মাথায় ছাঁটাইও হতে হলো। একেই বলে বোধহয় নিয়তির নির্মম পরিহাস। দুঃসময়ে র‌্যানিয়েরির পাশে দাঁড়িয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কোচ মরিনহো। ইন্সটাগ্রামে দু’জনের একটি হাস্যোজ্জ্বল ছবি পোস্ট করে স্পেশাল ওয়ান লিখেছেনÑ কেউই তার অর্জন মুছে ফেলতে পারবে না, ‘ইংল্যান্ডের চ্যাম্পিয়ন ও ফিফা বর্ষসেরা কোচ বরখাস্ত। এটাই নতুন ফুটবল র‌্যানিয়েরি। নিজেকে ধরে রেখ বন্ধু। তুমি যে ইতিহাস রচনা করেছ কেউই তা মুছে দিতে পারবে না।
monarchmart
monarchmart