ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ৩০ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

বরিশাল বুলস ৭৮ রানে পরাজিত

চিটাগাং ভাইকিংসের টানা তিন জয়

প্রকাশিত: ০৫:৫৪, ২৩ নভেম্বর ২০১৬

চিটাগাং ভাইকিংসের টানা তিন জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নিজেদের মাঠ বেশ পয়মন্তই প্রমাণ হলো চিটাগাং ভাইকিংসের। মঙ্গলবার চট্টগ্রাম পর্বের শেষ দিনে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ৭৮ রানে তামিম ইকবালের দল হারিয়েছে মুশফিকুর রহীমের বরিশাল বুলসকে। এটি চিটাগাংয়ের টানা তৃতীয় জয়। চলমান বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল টি২০) চট্টগ্রাম পর্বেরও ইতি ঘটল। আগে ব্যাট করে ডোয়াইন স্মিথ ও শোয়েব মালিকের জোড়া অর্ধশতকে ৫ উইকেটে ১৮৫ রানের বড় সংগ্রহ পায় চিটাগাং। জবাবে মোহাম্মদ নবির ঘূর্ণিতে বেসামাল বরিশাল ১৮.৪ ওভারে ১০৭ রানে গুটিয়ে যায়। প্রথম সাক্ষাতে বরিশালের কাছে ৭ উইকেটে হেরে গিয়েছিল চিটাগাং, এবার চরম প্রতিশোধ নিয়ে নিল তারা। ৮ ম্যাচে ৪ জয়ে পয়েন্ট তালিকায় চার নম্বরে চিটাগাং ৮ পয়েন্ট নিয়ে। আর ৭ ম্যাচে চতুর্থ পরাজয় দেখা বরিশালের অবস্থান ৬ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে। টস জিতে ব্যাট হাতে নেমেই চিাগাংয়ের হয়ে ঝড় তোলেন স্মিথ। তাকে ধীরেসুস্থে সঙ্গ দেয়া তামিম অবশ্য ১৯ বলে ২ চার ও ১ ছক্কায় ১৯ রান করেই ফিরে যান। এনামুল হক বিজয়ও দ্রুত (১১) ফিরে গেছেন। তবে ততক্ষণে ১০ ওভারেই ৮১ রান তুলে ফেলে বড় সংগ্রহের ভিত পেয়ে গেছে চিটাগাং। চলতি আসরে প্রথম অর্ধশতক পেয়ে যান স্মিথ। তিনি ৬ চার ও ৩ ছক্কায় ৪৯ বলে ৬৯ রান করার পর থিসারা পেরেরার বলে সাজঘরে ফেরেন। এরপর চিটাগাংয়ের সংগ্রহটা বড় হয় মূলত মালিকের তা-বে। তিনি মাত্র ৩০ বলে ৯ চার ও ২ ছক্কায় ৬৩ রান করে ফিরে গেলেও ৫ উইকেটে ১৮৫ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ পায় চিটাগাং। কামরুল ইসলাম রাব্বি ও পেরেরা দুটি করে উইকেট নেন। জবাব দিতে নেমে শুরুতেই নবির অফস্পিনের ছোবলে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে বরিশাল বুলস। ইনিংসের ১৯তম বলে যখন তারা চতুর্থ উইকেট হারায় তখন দলের রান মাত্র ১২! ওই বিপর্যয় কাটাতে একাই লড়ছিলেন মুশফিক। কিন্তু ১৪ বলে ২ চার ও ১ ছক্কায় ১৯ রান করে তিনিও তাসকিন আহমেদের শিকার হন। এরপর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি বরিশাল। তবে শেষদিকে বিপিএলে অভিষেক হওয়া সাতক্ষীরার ৩০ বছর বয়সী এনামুল হক দুর্দান্ত ব্যাটিং করে ব্যবধান কিছুটা কমিয়েছেন। তিনি ৩৭ বলে বলে ১ চার ও ৪ ছয়ে ৪২ রান করে অপরাজিত থাকেন। বরিশাল ৮ বল বাকি থাকতেই গুটিয়ে যায় ১০৭ রানে। নবি ৩টি এবং তাসকিন ও শুভাশীষ রায় ২টি উইকেট নেন। স্কোর ॥ চিটাগাং ভাইকিংস ইনিংস- ১৮৫/৫; ২০ ওভার (স্মিথ ৬৯, মালিক ৬৩, তামিম ১৯; কামরুল ২/২৯, পেরেরা ২/৩৭)। বরিশাল বুলস ইনিংস- ১০৭/১০; ১৮.৪ ওভার (এনামুল ৪২*, মুশফিক ১৯, তাইজুল ১২; নবি ৩/১৬, শুভাশীষ ২/১৬, তাসকিন ২/২০)। ফল ॥ চিটাগাং ভাইকিংস ৭৮ রানে জয়ী। ম্যাচসেরা ॥ শোয়েব মালিক (চিটাগাং ভাইকিংস)।
monarchmart
monarchmart