ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

কল্যাণপুরের ঘটনায় গয়েশ্বরের বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত: ০৭:৫৬, ১ আগস্ট ২০১৬

কল্যাণপুরের ঘটনায় গয়েশ্বরের বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ কল্যাণপুরের ঘটনায় বিএনপি নেতা গয়েশ্বর রায়ের বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বিএনপির এই নেতা বলেছেন জঙ্গীদের পেছন দিয়ে গুলি করা হয়েছে কেন? পুলিশ কী জঙ্গীদের ডেকে বলবে, এই জঙ্গী আমরা কি আপনাদের পেছনে না সামনে দিয়ে গুলি করব? আর ততক্ষণে পুলিশই মারা যাবে। বাংলাদেশের পুলিশ বাহিনী অত্যন্ত ধৈর্য ও দক্ষতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে। রবিবার মহানগর নাট্যমঞ্চে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণে জঙ্গী-সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে তিনি আরও বলেন, জঙ্গীরা যেভাবে নেমেছে তাদের ধ্বংস করার জন্য আমরা আন্দোলনে নেমেছি। এই জঙ্গীদের চিহ্নিত করা হচ্ছে। যারা জঙ্গীদের অর্থের যোগান দিচ্ছে, আশ্রয়-প্রশ্রয় দিচ্ছে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে। কামাল বলেন, গুলশানে জঙ্গীরা হামলা শুরু করা মাত্র তিন মিনিটের মাথায় পুলিশের এক এসআই গুলিবিদ্ধ হয়েছিলেন। এ খবর শুনে ওসি সালাহউদ্দিনসহ অন্যরা দ্রুত ওখানে টিম নিয়ে গেলে তিনিও শহীদ হন। আর বিএনপি এটা নিয়েও অনেক কথা বলছে। ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও বিমানমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেন, আসলে জঙ্গীবাদের কারণে রাজনৈতিক সুবিধা নিচ্ছে বিএনপি। জঙ্গীরা যখন আক্রমণ করে তখন সামনে থাকে জঙ্গীরা আর পেছনে থাকে বিএনপি-জামায়াত। খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, জঙ্গীবাদ দমন নয়, তাদের নির্মূল করতে হবে। মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন সাম্যবাদী দলের দিলীপ বড়–য়া, আওয়ামী লীগের আবদুর রাজ্জাক, ওয়ার্কার্স পার্টির আবুল হোসেন, তরিকত ফেডারেশনের ড. সৈয়দ মোতাওয়াক্কিল বিল্লাহ রাব্বানী ও মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ প্রমুখ।
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২