বুধবার ৫ কার্তিক ১৪২৮, ২০ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা না হলে কোন বিদেশী বিনিয়োগে আসবে না ॥ সিনহা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেছেন, দেশের যে অর্থনৈতিক অগ্রগতি হচ্ছে যদি আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত না হয়, তাহলে বিদেশের কোন বিনিয়োগ এখানে আসবে না। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতার জন্য আইনজীবীদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। সোমবার সন্ধ্যায় সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির ভবনে আইনজীবী শামছুল হক চৌধুরীর ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট বাসেত মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- বিশিষ্ট সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. কামাল হোসেন, সুপ্রীমকোর্ট বারের সভাপতি ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন প্রমুখ।

প্রধান বিচারপতি বলেন, বাংলাদেশে বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিভাগের পড়ালেখা ভাল হয় না বললেই চলে। তাদের আইন শিক্ষার মান অত্যন্ত নিম্নমানের। আর যদি প্রাতিষ্ঠানিকভাবে আইন শিক্ষা ভাল না হয় তাহলে দেশে ভাল আইনজীবী তৈরি হবে না। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করতে হলে প্রকৃতপক্ষে ভাল আইনজীবীর দরকার। ভাল আইনজীবী হতে হলে ভাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দরকার। এখন কিন্তু ভারতে বেস্ট স্টুন্ডেন্টরা ল’তে এ্যাডমিশন নেয়। আমেরিকাতে হচ্ছে জাপানে হচ্ছে। আমাদের এখানে প্রকৃতপক্ষে একেবারে যদিও রিসেন্টলি ডেভেলপ করেছে, ঢাকা ইউনিভার্সিটি ভাল ছেলেমেয়ে বের করছে। এই রাজশাহী ইউনিভার্সিটি, চিটাগাং ইউনিভার্সিটি। কিন্তু যেসব প্রাইভেট ইউনিভার্সিটিগুলো আছে সেগুলোর মান একেবারে নিম্নপর্যায়ে।

ভারতের ইউনিভার্সিটিরগুলোর ল’ সিলেবাস সব কিন্তু বার কাউন্সিল করে দিচ্ছে। আমাদের দেশে এ ল’ ইউনিভার্সিটিগুলো কোন ইচ্ছামতো সিলেবাস কোন স্ট্যান্ডার্ড মেন্টেন করা হয় না। আইনজীবীদের উদ্দেশে বলেন, ভাল আইনজীবী হতে হলে ভাল ল’ কলেজ দরকার। ভাল সিলেবাস দরকার। ভাল শিক্ষক দরকার। আপনারা এটা ইয়ো করেন। যত ল’ কলেজ ইউনিভার্সিটি আছে এটার সিলেবাসগুলো আপনার ইয়ো করেন। যেসব মামলা আছে এগুলোতে পড়ানো হয় না।

প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, আইনের শাসন রুল অব ল’ ইন্ডিপেন্ডেন্ট অব জুডিশিয়ারি কোনটাই বাস্তবায়ন হবে না যদি স্ট্রং বার (আইনজীবী সমিতি) না থাকে। স্ট্রং বার না থাকলে ভাল বিচারকও হবে না। কারণ হলো সুপ্রীমকোর্টের বেশির ভাগ বার থেকে বিচারক হয়। তাই আপনাদের সবচেয়ে চিন্তা ভাবনা করতে হবে দেশটাকে ভাল পর্যায়ে নিতে হলে, দেশের যে অর্থনৈতিক অগ্রগতি হচ্ছে দেশে যদি আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত না হয়, তাহলে বিদেশের কোন বিনিয়োগ এখানে আসবে না। যে বিদেশ থেকে এখানে আসবে বিনিয়োগ করতে প্রথমে দেখবেই এ দেশে আইনের শাসন কি রকম, এই দেশে আমি যে টাকা বিনিয়োগ করব এটা তুলে নিতে নিশ্চয়তা আছে কি না। এ দেশে যে মামলাগুলো আছে সেগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি হচ্ছে কি না কারণ আমি যদি মামলাতে পড়ে যাই আমার টাকাটা আটকে যাবে কি না। এইটা যদি আমরা চিন্তা ভাবনা করি তাহলে আমাদের চিন্তা করতে হবে এ বিচার ব্যবস্থা আমি যে উদ্যোগ নিচ্ছি আপনাদের সহযোগিতা ছাড়া কোনমতেই এ বিচার ব্যবস্থা কারও উন্নত করা যাবে না। আমি কিছু রিফর্মেও উদ্যোগ নিছি। আপনাদের কাছ থেকে যে সহযোগিতা পাচ্ছি। সেগুলো আরও বেশি না হলে সম্ভব হবে না।

শীর্ষ সংবাদ:
কঠোর ব্যবস্থা নিন ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ         ওমানকে হারিয়ে বিশ্বকাপে টিকে থাকল বাংলাদেশ         আজ পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী         ধর্ম নিয়ে কেউ বাড়াবাড়ি করবেন না         কেন এই সহিংসতা উত্তর এখনও মেলেনি         ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধের ডাক ॥ সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে মাঠে আওয়ামী লীগ         মাঝিপাড়ায় এখন সুনসান নীরবতা, আতঙ্ক কাটেনি         প্রধানমন্ত্রী নিজের হাতে সাজিয়েছেন ফরিদপুর         পিএসসির প্রশ্ন ফাঁসে সর্বোচ্চ ১০ বছরের কারাদণ্ড         মুছা কালু ভোলা-তিন জনের গ্রেফতারেই খুলতে পারে জট         স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বে আঘাত হানতেই সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস         একযুগে আরেকটি স্বপ্নপূরণ         রাজনৈতিক সুবিধা আদায়ে মরিয়া সরকার ॥ ফখরুল         বাংলাদেশের মানুষ তার ধর্ম পালন করবে স্বাধীনভাবে : প্রধানমন্ত্রী         করোনা : আরও এলো ২০ লাখ টিকা, বৃহস্পতিবার আসবে ৫৫ লাখ         প্রতিমাসে তিন কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৭         অপ্রীতিকর ঘটনা রোধে সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ         পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য একশ বান্ডিল টিন ও নগদ অর্থ বরাদ্দ         সয়াবিন তেলের দাম লিটারে বাড়লো ৭ টাকা