বৃহস্পতিবার ৭ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

অর্থ আত্মসাত মামলায় ইউএনও বাদ

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ চিরিরবন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার একক ও উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের যৌথ স্বাক্ষরে টাকা উত্তোলন করে ২ কোটি ১৭ লাখ ২২ হাজার ৩শ’ ৭৬ টাকা ৭০ পয়সা আত্মসাত করা হয়েছে। কিন্তু ওই টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে আসামি করা হয়নি। উপজেলা চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দীন মোল্লা টাকা আত্মসাতের মামলা করলেও, কৌশলে ইউএনও ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে আসামি করেননি। ওই মামলায় ইউএনও কার্যায়ের সাট মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর দিলীপ কুমার রায়, অফিস সহায়ক সুফিয়া আকতার, নিরাপত্তা প্রহরী জগবন্ধু দত্ত ও দিনাজপুর সদরের শেখপুর ইউনিয়নের বলতৈড় গ্রামের সুফিয়ার বন্ধু স্বপন কুমার দাসকে আসামি করা হয়েছে। ওই টাকা আত্মসাতের ঘটনায় দিনাজপুর স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক ইমতিয়াজ হোসেনের তদন্ত প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম গত ৩ মার্চ দিলীপ, সুফিয়া ও জগবন্ধুকে সাময়িক বরখাস্ত করেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ আহসানুল হক মুকুল, চিরিরবন্দর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মমিনুল হক ও ফতেজংপুর ইউপি চেয়ারম্যান আখতার হোসেন জানান, উপজেলা পরিষদ ও তদন্ত কর্মকর্তা কৌশলে প্রকৃত অপরাধী সাবেক ইউএনও মিজানুর রহমান ও ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান আবু হান্নান মোঃ সাদেক ছোটনকে বাদ দিয়ে নিরীহ কর্মচারীদের ফাসানোর ষড়যন্ত্র করছেন। উপ-পরিচালক ইমতিয়াজ হোসেন প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন, সাবেক ইউএনও মিজানুর রহমান ২০১২ সালের ৩০ আগস্ট থেকে ২০১৫ সালের ১৬ আগস্ট পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন।

এ সময় জনতা ব্যাংক চিরিরবন্দর শাখার ১০১১০১১০৪০ নং হিসাব থেকে ১৪টি চেকের মাধ্যমে ইজারা তহবিলের ৩৫ লাখ ৪২ হাজার ৭১২ টাকা ইউএনও মিজানুরের স্বাক্ষরে উত্তোলন করা হলেও, ক্যাশ বইতে তা এন্ট্রি নেই। ভূমি রাজস্ব খাতে জমা করতে সরকারকে দেয়া ৫ শতাংশ অর্থ ১৪ লাখ ৪৭ হাজার ২০৭ টাকা ও ইউপি সচিব, দফাদার ও মহল্লাদারদের বেতন বাবদ ৫৭ লাখ ৮৮ হাজার ৮৩১ টাকা সংশ্লিষ্ট কোডের মাধ্যমে জমা দেয়ার কথা থাকলেও, তা না দিয়ে কম্পিউটার অপারেটর দিলীপ কুমারের নামে জমা দেয়া হয়। ওই টাকা দিলীপ ও সুফিয়া চারটি চেকের মাধ্যমে ইউএনওর স্বাক্ষর জাল করে উত্তোলন করেন। উপজেলা পরিষদের ১ শতাংশ সম্পত্তি হস্তান্তর তহবিল সংক্রান্ত সোনালী ব্যাংক চিরিরবন্দর শাখার চলতি হিসাব নং ০০১০২০০১৭ থেকে ৩৩টি চেকের মাধ্যমে দিলীপ, সুফিয়া, জগবন্ধু ও স্বপন কুমার ৭৯ লাখ ৬৫ হাজার ৫শ’ টাকা উত্তোলন করে আত্মসাত করেন। নিয়ম অনুযায়ী ইউএনও ও উপজেলা চেয়ারম্যানের যৌথ স্বাক্ষরে এ হিসাব পরিচালিত হওয়ার কথা থাকলেও চেয়ারম্যানের পরিবর্তে সেখানে ভাইস চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর রয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
সস্ত্রীক করোনা আক্রান্ত প্রধান বিচারপতি, হাসপাতালে ভর্তি         ২০২৪ সালেও নির্বাচনী জুটি হবেন কমলা-বাইডেন         ৩৩ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠাল জার্মানি         ‘সামরিক-বেসামরিক প্রশাসনের একসঙ্গে কাজ করার বিকল্প নেই’         এক সপ্তাহে করোনা রোগী বেড়েছে ২২৮ শতাংশ         ‘স্বাধীনতা আন্দোলনের ইতিহাসে শহীদ আসাদ একটি অমর নাম’         ‘শহীদ আসাদের আত্মত্যাগ সবসময় প্রেরণা জোগাবে’         বিধিনিষেধে তোয়াক্কা নেই ॥ করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলেছে         অগ্রযাত্রা কেউ থামিয়ে দিতে পারবে না         চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসা         ঢাকা, রাঙ্গামাটির পর ঝুঁকিপূর্ণ আরও ১০ জেলা         বিএনপি-জামায়াতের লবিস্ট নিয়োগ তদন্তে গোয়েন্দারা         লাভজনক থেকে রুগ্ন ॥ গাজী ওয়্যারসের আধুনিকায়ন প্রকল্পে ২০ কোটি টাকা লোপাট         বিএনপি জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির পাঁয়তারা চালাচ্ছে ॥ কাদের         ওমক্রিন প্রতেিরাধে ডসিদিরে র্সবােচ্চ সর্তক থাকার নর্দিশে         শিমুকে সরিয়ে দেয়ার সুযোগ খুঁজতে থাকে ঘাতক স্বামী         দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত অনশন চলবে         কেটে গেছে শৈত্যপ্রবাহ তিনদিনের মধ্যে বৃষ্টি হতে পারে         অস্ট্রেলিয়ায় চাকরির নামে বিপুল অর্থ আত্মসাত