বৃহস্পতিবার ১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৬ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সমাজ॥ভাবনা এবারের বিষয় ॥ আনন্দ ভাগাভাগির ঈদ

  • সর্বজনীন ঈদ আনন্দ

ঈদ মুসলমানের প্রধান উৎসব। ঈদের আনন্দ সর্বজনীন। বিশ্বের সব দেশের ও সব পেশার মুসলমানের সমান অধিকার আছে ঈদের আনন্দ উপভোগের। নির্দিষ্ট কোন গোষ্ঠী বা সম্প্রদায়ের জন্য ঈদের আনন্দ সীমাবদ্ধ নয়। কিছু লোকের একক আধিপত্যও নেই ঈদের আনন্দ-উৎসবে। জেলে-কুমার, তাঁতী-কৃষক, ধোপা-মুচি, চাকরিজীবী-ব্যবসায়ী কোন ভেদাভেদ নেই এ মহানন্দে। তাই ধনী-গরিব, রাজা-প্রজা সব মুসলমান ঈদের আনন্দ উপভোগ করে থাকেন নিজস্বভাবে। ধনীর অট্টালিকায় ও দরিদ্রের জীর্ণ কুটিরে ঈদের আনন্দ প্রবাহিত হয় সমভাবে। পারস্পরিক সহমর্মিতা-সহানুভূতি জাগ্রত করা ঈদের বিশেষ শিক্ষা। ভ্রাতৃত্ববোধ ও জাতীয় ঐক্য সুসংহত করা ঈদের প্রধান দীক্ষা।

ঈদের উৎসব শুধু ভোগের নয়, ত্যাগেরও। তাই ঈদের উৎসবে আনন্দের সঙ্গে মুসলমানদের ত্যাগের সাধনাও করতে হয়। এ জন্য বিত্তশালী মুসলমানদের অর্জিত সম্পদের অংশ দিয়ে অভাবী মুসলমানদের ঈদ আনন্দে সম্পৃক্ত করতে হয়। এ কারণে অনেকে আত্মীয়স্বজন, প্রতিবেশীসহ সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে ঈদের আনন্দে সম্পৃক্ত করার চেষ্টা চালায়। রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়ের মাধ্যমে দলীয় নেতাকর্মী, শুভানুধ্যায়ী ও জনগণকে ঈদের আনন্দে সম্পৃক্ত করার চেষ্টা করেন। সমাজসেবীরা সমাজের সবাইকে ঈদের আনন্দে সম্পৃক্ত করার জন্য বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করেন। সাহিত্য-সাংস্কৃতিক কর্মীরা সবাইকে ঈদের আনন্দ দেয়ার জন্য বিশেষ সাহিত্য রচনা ও বিনোদন কর্মসূচী নির্মাণ করেন। দর্জি- দোকানিরা অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে গ্রাহককে ঈদের আনন্দ দেয়ার চেষ্টা করেন। পরিবহন শ্রমিকরা প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদ করার জন্য যাত্রীদের সম্ভব সব রকম সহযোগিতা করে থাকেন। ঈদের সুস্বাদু ও উপাদেয় খাবার সরবরাহের জন্য বহুজন আপ্রাণ পরিশ্রম করেন। ঈদের আনন্দ বাড়াতে ব্যবসায়ীরা নতুন নতুন পণ্য-সেবা বাজারজাত করেন। আইনশৃঙ্খলায় নিয়োজিত কর্মীরা জনগণের ঈদের আনন্দ নিশ্চিত করতে নিজেদের ঈদ আনন্দ বিকিয়ে দেন। ঈদ মুসলমানদের আনন্দ উৎসব হলেও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বাংলাদেশে এ উৎসবে অন্য ধর্মাবলম্বীরাও অংশ নিয়ে থাকেন। হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টানসহ সব ধর্মের লোকেরা ঈদ উৎসবে শুভেচ্ছা বিনিময়ে অংশগ্রহণ করেন। এভাবে সমাজের সর্বস্তরের মানুষ পরস্পরের মধ্যে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগির জন্য সাধ্যমতো চেষ্টা করেন। এসব সত্ত্বেও অনেক গরিব-দুঃখী ঈদের আনন্দ-উৎসবে বঞ্চিত থাকেন। এতে সমাজের ভাতৃত্ববোধ ও সহমর্মিতা প্রশ্নবিদ্ধ হয় এবং ঈদের আনন্দ অপূর্ণ থাকে। আর এর দায় সমাজের বিত্তশালী-ধনিকশ্রেণী লোকদের ওপর পড়ে। কারণ আল্লাহ তায়ালা ‘ধনীদের সম্পদে দরিদ্র-বঞ্চিতের অধিকার’ তথা ‘যাকাত’ নির্ধারণ করে দিয়েছেন। এছাড়া গরিব-অসহায়দের দান করার জন্য তিনি ধনীদের প্রতি উৎসাহ-উপদেশ-নির্দেশ করেছেন। অধিকন্তু ঈদের আনন্দ সর্বজনীন করতে ইসলামী বিধানে ঈদগাহে যাওয়ার আগেই দরিদ্র-অসহায়দের ‘সাদকাতুল ফিতর’ প্রদান ওয়াজিব করা হয়েছে। যাতে ধনী-দরিদ্র, অসহায়-বঞ্চিত সবাই ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে পারে। তাই সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে সমাজের সবাইকে বিশেষত বিত্তশালীদের আন্তরিক ও সচেষ্ট হতে হবে।

এম এ সবুর

কড্ডার মোড়, সিরাজগঞ্জ থেকে

শীর্ষ সংবাদ:
শিক্ষালয়ে গভর্নিং বডির সভাপতি হতে পারবেন না সাংসদেরা         বাংলাদেশকে ক্ষুধা, দারিদ্র্যমুক্ত দেশ হিসেবে গড়ে তুলবো : প্রধানমন্ত্রী         করোনা ভাইরাসে মৃতের তালিকায় আরও ৩৯ জন, শনাক্ত ২৭৩৩         পোশাক কর্মীদের কর্মস্থল ত্যাগ না করার আহ্বান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর         ঈদে গণপরিবহন চলবে ॥ ওবায়দুল কাদের         এনবিআরের ই-পেমেন্ট সেবার উদ্বোধন         চলতি অর্থবছর রফতানির লক্ষ্যমাত্রা ৪৮ বিলিয়ন ডলার         ভুয়া সার্টিফিকেট নেওয়া ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা         আজীবন মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন নাসিম ॥ আমু         করোনা ভাইরাস ॥ ভারতে এক দিনে ৩২ হাজারের বেশি আক্রান্ত         লতিফ সিদ্দিকীর মামলা স্থগিতই থাকবে         ঈদে ৪ জেলা থেকে যাতায়াত বন্ধে চিঠি         সেপ্টেম্বরে ভ্যাকসিন আনার ব্যাপারে ১০০% নিশ্চিত অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়         গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি         বিল গেটস, ওবামাসহ প্রভাবশালীদের টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক         করোনায় ফের কাতালোনিয়ায় লকডাউন         নিউইয়র্কে সহিংসতায় বাংলাদেশিরা আতঙ্কে         করোনায় আক্রান্ত বড় ভাই, কোয়ারেন্টাইনে গাঙ্গুলি         করোনা রোগীর চিকিৎসায় রেমডেসিভির ওষুধ তৈরি করল ইরান        
//--BID Records