ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

রাজধানীতে তীব্র যানজট

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২৩:৪২, ১ এপ্রিল ২০২৩

রাজধানীতে তীব্র যানজট

ছুটির দিনেও তীব্র যানজট ছিল রাজধানীর অধিকাংশ সড়কে। শনিবার পরীবাগ থেকে তোলা

বিএনপির অবস্থান কর্মসূচি ও শাহবাগে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধের কারণে শনিবার ছুটির দিনেও রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। যানজটের কারণে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে বিভিন্ন বেসরকারি অফিস ফেরত যাত্রীদের। সবচেয়ে খারাপ অবস্থা তৈরি হয়েছে সাপ্তাহিক ছুটির দিনে যারা ঈদের কেনাকাটা করতে বের হয়েছে। যানজটের কারণে মার্কেটে না গিয়ে রাস্তা থেকে ফেরত আসতে হয়েছে বলে যাত্রীরা জানান।
বিশেষ করে শাহবাগ মোড়ে প্রথম আলো পত্রিকার সম্পাদক মতিউর রহমানের গ্রেপ্তারের দাবিতে এক ঘণ্টা সড়ক অবরোধের কারণে শাহবাগের চৌরাস্তা মোড়সহ আশপাশের সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে দীর্ঘ সময় সড়কে আটকে থেকে চরম ভোগান্তি হয় বলে যাত্রীরা জানান।
সরেজমিনে রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক ঘুরে দেখা গেছে, শনিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)। এই কর্মসূচিতে অংশ নিতে বিএনপির নেতাকর্মীরা শনিবার দুপুর ১২টার পর থেকে মৎস্য ভবন-শাহবাগ সড়ক বন্ধ করে অবস্থান নেয়। এতে গুলিস্তান থেকে শুরু করে পুরানা পল্টন, প্রেসক্লাব, কাকরাইল, শাহবাগ, সাইন্সল্যাব, বাংলামোটর, কাওরানবাজার ও ফার্মগেটসহ পুরো এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

এর প্রভাবে মগবাজার, মালিবাগ, রামপুরা, বাড্ডা, গুলশান ও উত্তরা পর্যন্ত সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয় বলে যাত্রীরা জানান। ইফতারের আগে আগে এই যানজট আরও তীব্র আকার ধারণ করে। যানজটের কারণে রাস্তায় ইফতার করতে হয়েছে বলে ভুক্তভোগী যাত্রীরা জানান।

রাজধানীর বাংলামোটর এলাকায় স্বপন নামের এক যাত্রী জনকণ্ঠকে বলেন, ‘দুপুর দেড়টায় মিরপুরের উদ্দেশ্যে গুলিস্তান থেকে বাসে উঠি। বাংলামোটর পর্যন্ত আসতেই আড়াইটা বেজে গেছে। যানজটের কারণে মাঝখানে বাস থেকে নেমে অনেক পথ হেঁটে আবার বাসে উঠেছি। কিন্তু সব রাস্তায় একই অবস্থা। যানজট থেকে মুক্তি নাই।’ তাই বাসে বসে অপেক্ষা করছি। কখন বাস চালু হয়।
মগবাজার এলাকায় ফুটপাত দিয়ে হাঁটতে থাকা এক মহিলা যাত্রী বলেন, ‘ফার্মগেট যাওয়ার জন্য আয়াত পরিবহনে উঠেছিলাম। কিন্তু মালিবাগ আসার পর বাস আর চলে না। তাই হেঁটে সামনের দিকে যাচ্ছি। মগবাজারের এই যানজট পার হয়ে আবার বাসে উঠব।’
কাওরানবাজার এলাকায় মামুন নামে এক যাত্রী জনকণ্ঠকে বলেন, ‘পুরানা পল্টন থেকে বাসে উঠেছি মিরপুরের উদ্দেশে। কিন্তু প্রেসক্লাব পর্যন্ত আসার পর বাস আর চলে না। পরে বাস থেকে নেমে হেঁটে এ পর্যন্ত আসলাম। মৎস্য ভবন এলাকায় রাস্তা বন্ধ করে বিএনপির সমাবেশ ও শাহবাগে ছাত্রদের রাস্তা অবরোধের কারণে এই অবস্থা তৈরি হয়েছে।’
কাওরান বাজার এলাকায় আনোয়ার নামের এক ট্রাফিক পুলিশ জনকণ্ঠকে বলেন, ‘শনিবার সাধারণত এত যানজট থাকে না। কিন্তু আজ বিএনপির কর্মসূচি ও শাহবাগের ছাত্রদের রাস্তা অবরোধের কারণে এই যানজট হচ্ছে। রোজায় এমনেই সড়কে যানবাহনের চাপ বেশি থাকে। তারপর রাজনৈতিক কর্মসূচির কারণে ট্রাফিক সামলাতে সমস্যা হয়।

এক রাস্তা ২-৩ মিনিট বন্ধ রাখলে অপর রাস্তায় তীব্র যানজট দেখা দেয়। তবে অফিসের সময় যানজট বেশি হয়। তখন সবাই একসঙ্গে বাসায় ফিরতে চেষ্টা করে।’ এতেই সড়কে যানজট বেড়ে যায় বলে জানান তিনি।

×