ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ১৯ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

পটিয়ার বাকখাইনবাসীর সেতু নির্মাণের দাবি

নিজস্ব সংবাদদাতা, পটিয়া, চট্টগ্রাম

প্রকাশিত: ২২:৪৬, ৩ আগস্ট ২০২২

পটিয়ার বাকখাইনবাসীর সেতু নির্মাণের দাবি

দক্ষিণ বাকখাইন এলাকায় নৌকা ছাড়া কোন বিকল্প নেই

বিচ্ছিন্ন আরেকটি দ্বীপ পটিয়া উপজেলার দক্ষিণ বাকখাইনএখানে মানুষের চলাচলের একমাত্র বাহন নৌকাএ দ্বীপের অসহায় মানুষগুলো ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন খাল পারাপার করে থাকেনএকটি সেতু ও সøুইস গেটের অভাবে উপজেলার কাশিয়াইশ ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডটি যেন দ্বীপে পরিণত হয়েছেওই ওয়ার্ডটি পটিয়া ও পাশর্^বর্তী আনোয়ারা সীমান্তে হওয়ার কারণে নানাভাবে অবহেলিত

বর্তমানে হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রায় দুইশ পরিবারের ঘনবসতিওই এলাকায় নেই কোন চিকিসালয়, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও এমনকি নিত্যদিনের বাজার ব্যবস্থাযার কারণে এলাকার মানুষগুলো বিভিন্নভাবে ভোগান্তির শিকারখালের উত্তর পাড়ে সরকারী অর্থে একটি বেড়িবাঁধ নির্মাণ করলেও দক্ষিণ পাড়ের বাকখাইন এলাকায় নেই কোন বেড়িবাঁধতবুও থেমে নেই এ দ্বীপের অসহায় মানুষের জীবনযুদ্ধনিজেদের অর্থে মাটি দিয়ে সৃষ্টি করেছে বেড়িবাঁধপটিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী বিচ্ছিন্ন এ দ্বীপ এলাকাটি গত রবিবার পরিদর্শন করে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেনতবে দক্ষিণ বাকখাইন এলাকায় সেতু নির্মাণ করতে হলে আনোয়ারা আসনের সংসদ সদস্য ও ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এবং পটিয়ার সংসদ সদস্য হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর সমন্বয় দরকার

স্থানীয় বাসিন্দা ও কাশিয়াইশ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি সুকুমার মল্লিক ক্ষোভ প্রকাশ করে জানিয়েছেন, দক্ষিণ বাকখাইন পটিয়া উপজেলায়অথচ স্বাধীনতার দীর্ঘদিন পরও কোন উন্নয়ন হয়নিতবে নিজ অর্থে বেড়িবাঁধ নির্মাণ করা হয়েছেপটিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী জানিয়েছেন, দক্ষিণ বাকখাইন এলাকাটি খুবই অবহেলিতকি কারণে উন্নয়ন হয়নি তা আমি জানি না। সুইস গেট ভাঙ্গা ও সেতুর সঙ্গে রাস্তার সংযোগ না থাকায় লোকজন দ্বীপের মধ্যে বসবাস করছে

শীর্ষ সংবাদ:

নিত্যপণ্য ক্রয়ক্ষমতায় রাখতে পদক্ষেপ নেবে সরকার
শাস্তিমূলক ব্যবস্থায় আপত্তি থাকবে না: চীনা রাষ্ট্রদূত
বঙ্গোপসাগরে ফের লঘুচাপ : সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর সতকর্তা
চীনে আকস্মিক বন্যায় ১৬ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ ৩৬
পাকিস্তান থেকেও হত্যার হুমকি পেলেন তসলিমা নাসরিন
দাবি আদায়ে মাধবপুরে চা শ্রমিকদের মহাসড়ক অবরোধ
ডলারের দাম কমেছে ১০ টাকা, স্বস্তিতে ডলার
ডিমের দাম হালিতে কমলো ১০ টাকা
আশঙ্কাজনক হারে বেড়েছে ভুয়া সাংবাদিকদের দৌরাত্ম্য
রেলওয়ে জমির অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদে শহরজুড়ে মাইকিং
আন্দোলন অব্যাহত, চা শ্রমিকরা দাবিতে অনড়
ভক্তদের পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ার পরামর্শ দিলেন ওমর সানী