২৯ মার্চ ২০২০, ১৫ চৈত্র ১৪২৬, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

তায়কোয়নদোতে ৬৫ বছরের তরুণ ফজলুলের রৌপ্যপদক!

প্রকাশিত : ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৭:৩৭ পি. এম.
তায়কোয়নদোতে ৬৫ বছরের তরুণ ফজলুলের রৌপ্যপদক!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মানুষের বয়স যতই বাড়তে থাকে, ততই তার শারীরিক সক্ষমতা ও কর্মদক্ষতা কমতে থাকে। কমতে থাকতে স্মৃতিশক্তি এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। কিন্তু ৬৫ বছর বয়সী ফজলুল করিম চৌধুরী (জাহাঙ্গীর) যেন আশ্চর্য এক ব্যতিক্রম। যে বয়সে মানুষ হার্টে রিং পরে, সে বয়সে তিনি খেলে যাচ্ছেন মারামারির খেলা, তায়কোয়নদো যার নাম! শুধু তাই নয়, বছর দুয়েক আগে তিনি বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশী বয়সী ব্যক্তি হিসেবে ব্ল্যাক বেল্ট অর্জন করে বাংলাদেশের মার্শাল আট অঙ্গনে রেকর্ড গড়েছিলেন! বেল্ট পেয়েই ক্ষান্ত হননি তিনি। বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় রীতিমতো অংশ নিয়ে একের পর এক সাফল্য কুড়িয়ে আলোড়ন সৃষ্টি করেন ক্রীড়াঙ্গনে।

গত চার বছরে এ পর্যন্ত তিনি জিতেছেন মোট চারটি পদক। এর তিনটিই স্বর্ণপদক। শেষের পদকটি রৌপ্য, যা জিতেছেন গত ২৩ ফেব্রুয়ারি।

নারায়ণগঞ্জের ক্যামব্রিয়ান স্কুল এ্যান্ড কলেজ ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হয় বঙ্গবন্ধু আইটিএফ তায়কোয়নদো প্রতিযোগিতা-এর দ্বিতীয় আসর। সেখানে ভ্যাটারান র্উর্ধ ৪০+ বিভাগে (এবং ৬০ কেজি ওজন শ্রেণীতে) রানারআপ হন ফজলুল। যার কাছে মাত্র আধা পয়েন্টের ব্যবধানে হারেন, সেই নূরে আলম স্বাধীনের বয়স ফজলুলের চেয়ে ২৩ বছর কম! তারা দুজনেই আবার একই একাডেমির খেলোয়াড় (সেন্ট্রাল তায়কোয়নদো একাডেমি)। তৃতীয় হয়েছেন যিনি, সেই সাত্তার চৌধুরীর বয়স আরও কম, মাত্র ৩৮! সাত্তার হচ্ছেন মিরপুরের ন্যাশনাল তায়কোয়নদো একাডেমির খেলোয়াড়। স্বাধীন-সাত্তারকে নিয়ে কোন মাতামাতি হয়নি, হয়েছে ফজলুলকে নিয়ে। তার কারণ অবশ্যই তার বয়স। এই বয়সেও তরুণের মতোই ক্ষিপ্রগতিসম্পন্ন তিনি।

বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক তায়কোয়নদো এ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব সোলায়মান শিকদার জনকণ্ঠকে বলেন, এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি নারায়ণগঞ্জ এলাকার সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। এই আসরে ১৩ জেলা ও ১৯ ক্লাবের মোট ৩০০ খেলোয়াড় চারটি ইভেন্টের মোট ২১টি ডিসিপ্লিনে অংশ নেয়। ইভেন্টগুলো ছিল শিশু, জুনিয়র, সিনিয়র ও ভ্যাটারান।

২০১৬ সালের ২৯ ডিসেম্বর বিজয় দিবস তায়কোয়নদো প্রতিযোগিতায় ঢাকা ক্লাবের হয়ে ৬০ কেজি ওজন শ্রেণীতে স্বর্ণপদক জয় করে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন ফজলুল। তারপর একই কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখেন ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত অগ্রণী ব্যাংক বাংলাদেশ কাপ তায়কোয়নদো প্রতিযোগিতায়। এই আসরে তিনি সেন্ট্রাল তায়কোয়নদো একাডেমির হয়ে স্বর্ণ জেতেন ৬০ কেজি ওজন শ্রেণীর উন্মুক্ত বিভাগে। তারপর জাতীয় ক্রীড়া পরিষদে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতায় ৬০ কেজি ওজন শ্রেণীতে স্বর্ণ জেতেন সেন্ট্রাল তায়কোয়নদোর হয়ে, তাও আবার নিজের চেয়ে অর্ধেক বয়সী প্রতিযোগী মঞ্জুরুল ইসলামকে (বয়স ৩২, ইসলামবাগ তায়কোয়নদো একাডেমি) হারিয়ে। এখন দেখার বিষয়, আগামীতে এমন আরও কোন বিরল কৃতিত্ব প্রদর্শন করতে পারেন কিনা ষাটোর্ধ্ব এই তরুণ ফজলুল।

প্রকাশিত : ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৭:৩৭ পি. এম.

২৬/০২/২০২০ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলা



শীর্ষ সংবাদ: