২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 

নির্বাচনকে বিতর্কিত করতেই ভোটে অংশ নিচ্ছে বিএনপি ॥ কাদের

প্রকাশিত : ২০ জানুয়ারী ২০২০

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সিটি নির্বাচনে নিশ্চিত পরাজয় জেনেই বিএনপি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে। বিএনপি জয়ী হওয়ার জন্য নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না বরং নির্বাচনকে বিতর্কিত করার জন্য অংশ নিচ্ছে। তাই তারা নির্বাচনকে বিতর্কিত এবং প্রশ্নবিদ্ধ করতেই নির্বাচন কমিশন, ইভিএম ও সরকারের ভূমিকা নিয়ে নানা সমালোচনা করছে। রবিবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের নেতৃত্বে দেশটির প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত অরুনরাং ফতং হামফ্রেইসের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল।

‘সরকার নির্বাচন কমিশনকে ব্যবহার করছে’ বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, তাদের এই সকল আচরণে একটা বিষয় ক্রমেই পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে, তারা লোক দেখানোর অংশ হিসেবে নির্বাচন করছে। তাদের আসল লক্ষ্য নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা।

এ বছরের জুলাই-আগস্টের মধ্যে পদ্মা বহুমুখী সেতুর নির্মাণ কাজ সরকার অনেকদূর এগিয়ে নিতে চায় উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতুতে এখন প্রতিমাসেই তিনটি করে স্প্যান বসবে। এসব স্প্যান বসানোর কাজটা আমরা যথাসময়েই শেষ করতে পারব। আমাদের একটা টার্গেট আছে সেটা হচ্ছে, আগামী জুলাই-আগস্টের মধ্যে কাজ আমরা অনেকদূর এগিয়ে নিতে পারব। এখানে আর কোন বাধা নেই।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ফাস্ট ট্রাক প্রজেক্টের সভার বিষয়ে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ফাস্ট ট্রাকে পদ্মা সেতু এবং মেট্রোরেল আছে; আমাদের দুটি প্রজেক্ট নিয়ে প্রধানমন্ত্রী সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। অগ্রগতি ভাল। বঙ্গবন্ধু টানেল, মাতারবাড়ি, রূপপুর ও পায়রা বন্দর নিয়েও আলোচনা হয়েছে। বড় প্রকল্পে সময় এবং টাকা বাড়ে কিনা- এ বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের আর টাকা বাড়ছে না। আগে যে যে কারণে বেড়েছিল, সেগুলো আমরা আগেই বলেছি।

থাইলান্ডের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাতের বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে এবং এমআরটি লাইন-৬ এর ৩ ও ৪ নম্বর প্যাকেট বাস্তবায়ন করছে ইতাল-থাই। এর অগ্রগতি নিয়ে আলাপ-আলোচনা হয়েছে। তাদেরকে কাজ আরও দ্রুত করতে বলেছি। ইতাল-থাইয়ের ফান্ড নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তাদের নীতি গ্রহণের লেভেলের প্রতিনিধি আগামী মঙ্গলবার ঢাকা আসছেন। ফান্ডের বিষয়ে কোন সমস্যা থাকলে তারা সমাধান করবে।

প্রকাশিত : ২০ জানুয়ারী ২০২০

২০/০১/২০২০ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: