২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১২ ফাল্গুন ১৪২৬, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

হট্টগোলে স্থগিত ভাষণ

প্রকাশিত : ১৭ অক্টোবর ২০১৯
  • পার্লামেন্টে বাধার মুখে লাম, মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে ৩ বিল পাস

হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লাম বুধবার নীতি নির্ধারণীমূলক বার্ষিক ভাষণ দিতে গিয়ে গণতন্ত্রপন্থী এমপিদের তোপের মুখে পড়েন। শেষ পর্যন্ত তিনি ভাষণ মুলতবি করতে বাধ্য হন। বিক্ষোভ শুরুর পর এটি ছিল লামের পার্লামেন্টে প্রথম উপস্থিতি। জুলাইয়ে গণতন্ত্রপন্থী বিক্ষোভকারীরা ভাংচুর করার পর ৫০ লাখ ডলার ব্যয়ে এর সংস্কার করা হয়েছে। মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে মঙ্গলবার হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থী বিক্ষোভকারীদের সমর্থনে তিনটি বিল পাস হয়েছে। আধা-স্বায়ত্তশাসিত দ্বীপটি নিয়ন্তণ করতে বেজিং সরকারের আক্রমাণত্মক প্রচেষ্টার বিরুদ্ধে কয়েক মাস বিক্ষোভ চলার পর যুক্তরাষ্ট্র এ পদক্ষেপ নিল। টাইম।

পার্লামেন্টের প্রধান এ্যান্ড্রু লিয়াং মাত্র কয়েক মিনিট পরেই বিরোধী এমপিদের হট্রগোল শুরুর পরই আলোচনা মুলতবি করেন। আলোচনা বন্ধে তারা স্লোগান ও গালাগাল দেয়া শুরু করেন এবং একটি প্রজেক্টর ব্যবহার করে কক্ষের দেয়ালে স্লোগান প্রতিফলিত করেন। কয়েকজন এমপি কক্ষ থেকে বের করে দেয়া হয় এবং তারা চিৎকার করে বলছিল, ‘ক্যারি লাম, পদত্যাগ কর’। লাম তার বক্তৃতায় সাশ্রয়ী মূল্যে আবাসনের বিষয়টিতে অধিক গুরুত্ব দেবেন বলে ধারণা করা হচ্ছিল। এর অভাব পাঁচ মাস ধরে চলা বিক্ষোভের পেছনে অসন্তুষ্টি উস্কে দিতে কাজ করেছে। ভাষণ দিতে তার ব্যর্থতা ইতোমধ্যে দ্বীপটির ঝঞ্ঝাটময় রাজনীতির স্পষ্ট অধঃপতন হিসেবে চিহ্নিত হচ্ছে।

পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় ডেমোক্র্যাটিক আইনপ্রণেতা তানি চান বলেন, ‘আমি লামকে সত্যিই আহ্বান জানিয়েছি, যদি সে হংকংকে শাসন করতে না পারে এবং হংকংকে শাসন করতে সঙ্কল্প না থাকে এবং সামর্থ্য অথবা এমনকি হংকংকে পরিচালনার যোগ্যতা না থাকে, অনুগ্রহ করে পদত্যাগ করতে। এটাই একমাত্র পথ যার মাধ্যমে আমরা একটি ভাল ভবিষ্যত পেতে পারি, একমাত্র পথ যার মাধ্যমে হংকং সামনে এগিয়ে যেতে পারে। অনুগ্রহ করে ক্যারি লাম, অনুগ্রহ করে আমাদের আর ভুগতে দিয়েন না। অনুগ্রহ করে যান।’ আইনপ্রণেতা ক্লাউদিয়া মো বলেন, ‘প্রথমত তার হংকং শাসন করার আর অধিকার নেই, আর কর্তৃত্ব নেই এবং দ্বিতীয় বিষয় হচ্ছে যে, সে হংকংকে বোঝে না। সে দড়িতে বাঁধা একটি পুতুল, বেজিং তাকে নিয়ে খেলছে।’ আইণপ্রণেতা এডি চু বলেছেন, ‘হংকংয়ের মানুষ তার মতো একজন আইনপ্রণেতা, তার মতো একজন প্রধান নির্বাহীকে আর সহ্য করতে পারছে না। আমি খুব খুশি যে, ডেমোক্র্যাটদের সঙ্গে একত্রে আমরা লামকে কক্ষের বাইরে বের করে দিতে সক্ষম হয়েছি।’ গোলযোগের আশঙ্কায় আইন পরিষদ আলোচনা শুরুর পূর্বে একটি সতর্কতা ইস্যু করে। জনগণের প্রবেশ নিষ্দ্ধি করা হয় এবং ভবনের ভেতরে আইনপ্রণেতাদের বিক্ষোভে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়। এর আগে সোস্যাল ডেমোক্র্যাট দলের একটি ছোট বিক্ষোভকারীর দল আইন পরিষদের বাইরে জড়ো হয়। হংকংয়ে আকাশসম রাজনৈতিক উদ্বেগ বিরাজ করার সময়ই আইন পরিষদে এই ব্যর্থতার ঘটনা ঘটল। গত জুনে একটি বিতর্কিত বিল প্রত্যাহারের দাবিতে শুরু হওয়া বিক্ষোভ থেকে এ পর্যন্ত ২৫০০’রও বেশি লোককে আটক করা হয়েছে, শত শত লোক আহত হয়েছে। তবে পরবর্তীতে এই আন্দোলন গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার দাবিতে পরিণত হয়েছে। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোয় বিক্ষোভকারীরা আরও সহিংস হয়ে উঠেছে। তারা সরকারী অফিস, চীনা মালিকানাধীন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, সাবওয়ে সিস্টেমসহ বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা ও ভাঙচুর চালাতে শুরু করেছে। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের পাসকৃত বিলের একটিতে হংকংয়ের বিষয়ে চীনের অনধিকার প্রবেশের নিন্দা জানানো হয়েছে এবং জনগণের বিক্ষোভের অধিকারকে সমর্থন করা হয়েছে। আরেকটিতে দ্বীপটির ওপর চীনের প্রভাবে বাধা প্রদানে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী কর্তৃক হংকংয়ের বিশেষ অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক মর্যাদার বার্ষিক পর্যালোচনার প্রয়োজনের কথা বলা হয়েছে। তৃতীয় বিলে বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে যেন মার্কিন অস্ত্রশস্ত্র ব্যবহৃত না হয় সে বিষয়টি নিশ্চিত করার কথা বলা হয়েছে।

প্রকাশিত : ১৭ অক্টোবর ২০১৯

১৭/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

বিদেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: