১৭ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

ক্যাসিনোকাণ্ডে আটক সম্রাট আরও দুদিন হাসপাতাল থাকছেন

প্রকাশিত : ১১ অক্টোবর ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে অভিযুক্ত ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট আরও দুদিন হাসপাতালে থাকছেন। তার বিষয়ে শনিবার সকালে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। বৃহস্পতিবার জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের কার্ডিওলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মহসিন আহমেদ এ কথা জানান। তিনি বলেন, তার শারীরিক অবস্থা পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। তাকে আরও দু’দিন অবজারভেশনে রেখে শনিবার সকালে সিদ্ধান্ত জানানো হবে। সূত্র জানায়, স¤্রাটের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। তবে মেডিক্যাল বোর্ডের চিকিৎসকরা তাকে আপাতত হাসপাতালে থেকে চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী শারীরিক বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র সেবন করছেন তিনি। জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ আফজাল হোসেন জানান, স¤্রাটের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। তার পরীক্ষা-নিরীক্ষার ভিত্তিতে চিকিৎসা চলছে। হাসপাতাল সূত্র জানায়, স¤্রাটের আইএনআর, টিপ্রিনিন-আই, ব্লাড সুগার, ইলেক্ট্রোলাইট, বিলোরবিন, ইসিজি ও ইকোকার্ডিওগ্রাফি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে আল্ট্রাসনোগ্রাফি হয়েছে। এসব রিপোর্টে স¤্রাটের পিত্তথলিতে পাথর আছে বলে জানা গেছে। এর আগে বুধবার সকাল সাড়ে সাতটার দিকে স¤্রাটের বুকে এক্স-রে করা হয়। জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডাঃ সমীর কুমার কুন্ডু জানান, স¤্রাটের যেসব রিপোর্ট হাতে পেয়েছি, সেগুলো ভাল। বৃহস্পতিবার সকালে আল্ট্রাসনোগ্রাফি করা হয়েছে। এই রিপোর্ট এখনও হাতে আসেনি। তবে আগে থেকেই তার হৃদরোগ ও পিত্তথলিতে পাথর আছে। শনিবার বোর্ড এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। জানা গেছে, বুকে ব্যথা অনুভব করলে বুধবার সকাল সাড়ে সাতটায় স¤্রাটকে কারাগার থেকে প্রথমে ঢাকা মেডিক্যালে নেয়া হয়। পরে ঢামেক চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে এনআইসিভিডি হাসপাতালে নেয়া হয়। হৃদরোগ হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, স¤্রাট হাসপাতালের সিসিইউ-১’র বি-১২ শয্যায় আছেন। সেখানে তার পাশে কারা কর্তৃপক্ষ, পুলিশ ও গোয়েন্দা বাহিনীর সদস্যরা রয়েছেন।

সূত্র মতে, ১৮ সেপ্টেম্বর ঢাকার মতিঝিলের ক্লাবপাড়ায় র‌্যাবের অভিযানে অবৈধ ক্যাসিনো চলার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর আত্মগোপন করেন স¤্রাট। শনিবার রাতে স¤্রাট ও তার সহযোগী আরমানকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরে স¤্রাটকে সঙ্গে নিয়ে কাকরাইলের ভূঁইয়া ট্রেড সেন্টারে তার কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়। প্রায় পাঁচ ঘণ্টা অভিযান শেষে গুলিসহ একটি বিদেশী পিস্তল, ১১৬০ ইয়াবা, ১৯ বোতল বিদেশী মদ, দুটি ক্যাঙ্গারুর চামড়া ও ‘নির্যাতন চালানোর’ বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম পাওয়ার কথা জানায় র‌্যাব। ক্যাঙ্গারুর চামড়া পাওয়ায় স¤্রাটকে বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ) আইনে তাৎক্ষণিক ছয় মাসের কারাদ- দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত। সেদিনই তাকে পাঠিয়ে দেয়া হয় কেরানীগঞ্জের কারাগারে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে রমনায় দায়ের করা মাদক নিয়ন্ত্রণ ও অস্ত্র আইনে দুটি মামলা করা হয়েছে। দুই মামলায় তাকে ২০ দিনের রিমান্ডে নেয়ার আবেদন শুনানির অপেক্ষায় আছে। হাসপাতালে থাকায় তাকে আদালতে হাজির করা যায়নি। স¤্রাটের সহযোগী আরমানকে আদালতে হাজির করে মাদক মামলায় ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক মাহফুজুল হক ভূঁইয়া। ঢাকা মহানগর হাকিম সরাফুজ্জামান আনছারী দুইজনের রিমান্ড আবেদনের শুনানির জন্য ১৫ অক্টোবর দিন ঠিক করে দেন।

প্রকাশিত : ১১ অক্টোবর ২০১৯

১১/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: