১৭ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 

আজ বাংলাদেশ আফগানিস্তান আবার লড়াই

প্রকাশিত : ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
  • ফাইনালের আগে

মিথুন আশরাফ ॥ জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে ঠিকই জেতে বাংলাদেশ। কিন্তু আফগানিস্তান সামনে পড়লেই যত বিপত্তি। বাংলাদেশের সামনে আজ আবার সেই আফগানিস্তান। দুই দলের মধ্যকার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় ম্যাচটি শুরু হবে। দুই দলই ফাইনালে উঠেও গেছে। ফাইনালের আগে আজ ত্রিদেশীয় টি২০ সিরিজের লীগপর্বে শেষ লড়াইয়ে নামবে সাকিব আল হাসান ও রশীদ খানের দল।

আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের পরিসংখ্যান খুবই খারাপ। সব ফরমেট মিলিয়ে দুই দল পরস্পরের বিরুদ্ধে ১৪ ম্যাচ খেলেছে। সর্বশেষ ১০ ম্যাচের সাতটিতেই হেরেছে বাংলাদেশ। একটি টেস্ট, পাঁচটি টি২০, আটটি ওয়ানডে খেলেছে। আটটি ম্যাচই জিতে নিয়েছে আফগানরা। ছয়টি ম্যাচ জিতেছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে একমাত্র টেস্টটিতে এ মাসেই হেরেছে বাংলাদেশ। আট ওয়ানডের মধ্যে পাঁচটিতে জিতেছে বাংলাদেশ। তিনটিতে হেরেছে। পাঁচ টি২০ ম্যাচের মধ্যে চারটিতেই বাংলাদেশের হার হয়েছে। একটিতে শুধু জয় মিলেছে। সেটাও ’১৪ সালের টি২০ বিশ্বকাপে। টি২০তে বাংলাদেশ ১-৪ আফগানিস্তান। এতেই বোঝা যাচ্ছে এ স্বল্প ওভারের ক্রিকেটে আফগানিস্তান কতটা শক্তিশালী দল।

অবশ্য আফগানদের শক্তি এবার দুর্বল করে দিতে চায় বাংলাদেশ। ফাইনালের আগে যেহেতু আরেকবার লড়াই হচ্ছে ম্যাচটিতে জিতে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচের জন্য আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিতে চায় বাংলাদেশ। অধিনায়ক সাকিব আল হাসানই যেমন বলেছেন, ‘আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচটা জিততে পারলে ফাইনালে যাওয়ার আগে তা মানসিকভাবে আমাদের এগিয়ে দেবে। টি২০তে এটি গুরুত্বপূর্ণ।’

সিরিজে প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুইয়েকে হারাতে ঘাম ঝরাতে হয়েছে। ২ বল বাকি থাকতে ৩ উইকেটে জিতেছে বাংলাদেশ। এরপর আফগানিস্তানের কাছে ২৫ রানে হেরেছে। তৃতীয় ম্যাচে জিম্বাবুইয়েকে ৩৯ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। এই ম্যাচটির আগে দলে অনেক পরিবর্তন আনা হয়েছে। তার ফলও মিলেছে। যেভাবে প্রভাব খাটিয়ে জিম্বাবুইয়েকে হারিয়েছে বাংলাদেশ, তাতে আত্মবিশ্বাস বেড়েছে। ফাইনালে খেলাও নিশ্চিত হয়েছে। এই আত্মবিশ্বাস নিয়ে এখন আফগানিস্তানকে আজ হারিয়ে দেয়া গেলেই হলো। তাহলে ফাইনালের আগে আরও উৎফুল্ল থাকবেন ক্রিকেটাররা। যেটা ২৪ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের মধ্যকার শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচের আগে বিশেষ কাজে দেবে।

আফগানিস্তান বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কোন ম্যাচ হারেনি। জিম্বাবুইয়েকে প্রথম ম্যাচে ২৮ রানে হারানোর পর বাংলাদেশকে ২৫ রানে হারিয়েছে। ব্যাটিং-বোলিং শক্তি ভালভাবেই দেখিয়েছে তারা। ফাইনালে খেলাও নিশ্চিত করেছে। আজ তাদের ফাইনালের আগে আরেকটি ম্যাচ রয়েছে। সেটি স্বাগতিক বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। ম্যাচটিতে যদি আফগানরা জিতে তাহলে আরও আত্মবিশ্বাস বেড়ে যাবে। ফাইনালে বাংলাদেশকে হারানোর বিশ্বাস ভালভাবেই জন্মাবে। কিন্তু বাংলাদেশ সিরিজের লীগপর্বের প্রথম ম্যাচেই আফগানদের বিরুদ্ধে যাই করেছে, এই ম্যাচটিতে কী আফগানিস্তানকে ছাড় দেবে?

খেলাটি হবে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে। এ স্টেডিয়ামে এর আগে একমাত্র টেস্টটি হেরেছে বাংলাদেশ। এরপর থেকেই দলের বেহাল দশা সামনে এসেছে। এই স্টেডিয়ামেই এবার আফগানিস্তানকে হারিয়ে আবার ছন্দে ফিরুক বাংলাদেশ। সেই প্রত্যাশাই করা হচ্ছে। আফগানরা বারবার বাংলাদেশকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিচ্ছে। সেই চ্যালেঞ্জ নিতে পারছেন না বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা। তাতে করে হার হচ্ছে। একবার যদি চ্যালেঞ্জ নিয়ে জেতা যায়, তাহলেই আফগান বাধা দূর হতে পারে।

সেই আশায় আছেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদও। তিনি বলেছেন, ‘আমাদের পরবর্তী কাজ হচ্ছে, আফগানিস্তানের সঙ্গে আরও ভাল পারফর্মেন্স করে জয় পাওয়া। যেন আমরা ম্যাচটা জিততে পারি এবং ফাইনালের জন্য তৈরি হতে পারি। সামনের জয়টি আমাদের আরও আত্মবিশ্বাসী করবে।’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘আমার কাছে মনে হয় আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের ভাল ক্রিকেট খেলতে হবে। চাওয়া থাকবে, আমরা সেরা পারফর্মেন্স দিয়েই যেন ম্যাচটা খেলতে পারি। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, আমরা ম্যাচটা জিতে আত্মবিশ্বাস নিয়ে যেন ফাইনালে যেতে পারি।’ ফাইনালের আগে এ লড়াইটিতে বাংলাদেশ জিতে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিক সেই আশায় এখন আছেন সবাই।

প্রকাশিত : ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

২১/০৯/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: