১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

পা হারালেন দুর্ঘটনার শিকার পুলিশ কনস্টেবল

প্রকাশিত : ২৯ মে ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ সড়ক দুর্ঘটনায় খাদে পড়ে যাওয়া বাস থেকে যিনি সাহসিকতার সঙ্গে ২০ যাত্রীকে উদ্ধার করেছেন, সেই পুলিশ কনস্টেবল পারভেজ হোসেনের পা কেটে ফেলা হয়েছে। তিনি সোমবার কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় গুরুতর আহত হন।

পুলিশের সর্বোচ্চ সম্মাননা পদকপ্রাপ্ত পারভেজ হোসেন (৩০) এখন ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। মঙ্গলবার চিকিৎসকরা তাকে বাঁচিয়ে রাখতে অপারেশনের মাধ্যমে তার একটি পা কেটে ফেলেছেন। গজারিয়া ভবেরচর হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ কবির হোসেন খান এ খবর নিশ্চিত করেছেন। সোমবার দুপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মুন্সীগঞ্জ জেলার গজারিয়া উপজেলার জামালদি বাসস্ট্যান্ডের সামনে ডিউটি পালনরত অবস্থায় কাভার্ডভ্যান পারভেজকে ধাক্কা দিলে সেখানেই তিনি গুরুতর আহত হন। এ সময় সে ডান পায়ের গোড়ালি ও হাতে মারাত্মক আঘাত পান। সেখান থেকে প্রথমে ‘ট্রমালিংক’-এর স্বেচ্ছাসেবক টিম তাকে উদ্ধার করে গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। তার পা খারাপভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হওয়ায় সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকার রাজারবাগের কেন্দ্রীয় পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠায়। চাচাত ভাই মাসুদ মোল্লা আরও জানান, ঢামেক হাসপাতাল থেকে জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে (পঙ্গু হাসপাতাল) পাঠানো হয়।

২০১৭ সালের ৭ জুলাই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কুমিল্লার দাউদকান্দির গৌরীপুরে চাঁদপুরগামী এক যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডোবায় পড়ে গেলে পারভেজ মিয়া ইউনিফর্ম পরেই পানিতে নেমে ২০ জনকে উদ্ধার করেন। তার ওই সাহসিকতার জন্য তাকে দেয়া হয় পুলিশের সর্বোচ্চ পুরস্কার বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল (বিপিএম)। এছাড়া নগদ টাকা ও মোটরসাইকেল দেন আইজিপি।

প্রকাশিত : ২৯ মে ২০১৯

২৯/০৫/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: