২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৯ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

যাত্রীদের নিরাপত্তায় রেলপুলিশের সতর্কতা


স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ ঈদ ঘিরে পশ্চিমাঞ্চলের রেল পুলিশ (জিআরপি) সতর্ক অবস্থান নিয়েছে। এজন্য জিআরপি পুলিশের ঈদ ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

রেল পুলিশ সূত্র জানায়, বড় বড় স্টেশনে মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে সন্দেহভাজন যাত্রীদের তল্লাশি করা হচ্ছে। ট্রেনে ঈদে ঘরমুখী যাত্রীদের সার্বিক নিরাপত্তার কথা বিবেচনায় রেখে সৈয়দপুর রেলওয়ে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে একটি কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে। এতে স্থাপিত হটলাইনে ভুক্তভোগী যাত্রীদের যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। ট্রেনে বিলি করা হচ্ছে লিফলেট ও পোস্টার। যাতে লেখা রয়েছে ওই হটলাইন নম্বর। সূত্র মতে ট্রেনে যাত্রীর নিরাপত্তা, টিকেট কালোবাজারি রোধ ও নাশকতা ঠেকাতে পশ্চিমাঞ্চল রেলের ১২টি থানা ও ১৬টি ফাঁড়ির প্রধান কার্যালয় নীলফামারীর সৈয়দপুর রেলওয়ে জেলা পুলিশের জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সংশ্লিষ্ট সূত্র এ সব তথ্য জানিয়ে উল্লেখ করে নীলফামারীর সৈয়দপুর রেলওয়ে জেলার অধীন রয়েছে সৈয়দপুর সদর, দিনাজপুর, পার্বতীপুর, লালমনিরহাট, বোনারপাড়া, সান্তাহার, ঈশ্বরদী, সিরাজগঞ্জ, রাজশাহী, রাজবাড়ী, পোড়াদহ ও খুলনাসহ ১২টি থানা। এ ছাড়া ১৬টি রেলওয়ে ফাঁড়ি রয়েছে বিভিন্ন রেলস্টেশনে।

ওই প্রজ্ঞাপনের তথ্য মতে ঈদে রেলস্টেশনগুলোতে টিকেট কালোবাজারি, ট্রেনে যাত্রীর চাপ, ট্রেনে যাত্রীদের লাগেজ চুরি ও ছিনতাইয়ের মতো ঘটনাও ঘটে থাকে। এসব মাথায় রেখে পশ্চিমাঞ্চল রেলের ২৬টি রেলওয়ে স্টেশনে স্থাপন করা হয়েছে তথ্যকেন্দ্র। ওই কেন্দ্র থেকে যাত্রীসচেতনতা বাড়াতে লিফলেট বিতরণ শুরু করেছে রেলপুলিশ।

বসতবাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা, ভাঙচুর লুটপাট

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ গজারিয়া উপজেলার মধ্য বাউশিয়া গ্রামে সোমবার রাতে ফজর আলী সরকারের বাড়িতে ১৫-২০ জনের একদল সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে বসতঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আক্রান্ত পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব বিরোধের জের ধরে সন্ত্রাসী বাহিনী ফজর আলী সরকারের দুটি বসতঘরে হামলা চালিয়ে আসবাবপত্র ভাঙচুর করে।

এ সময় নগদ টাকা, সোনার গহনা লুটে নেয়। ফজর আলী সরকারের পরিবার সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় সন্ত্রাসী রানা, ফারুক ও আলমগীরের নেতৃত্বে তাদের বাড়িতে ধারালো অস্ত্র, লাঠি বাঁশ নিয়ে হামলা চালায়। এ বিষয়ে গজারিয়া থানার ওসি তদন্ত হেলাল উদ্দিন হামলার কথা নিশ্চিত করে বলেন, এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি আরও বলেন, উভয় পক্ষের মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধ আছে এবং এ বিষয়ে থানায় উভয় পক্ষের লিখিত অভিযোগ দেয়া আছে।