২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ব্রেক্সিট সমর্থক ছায়া পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি বেন বরখাস্ত


ব্রেক্সিট ভোটের পর শ্রমিক দলে বিভক্তি দেখা দিলে বিরোধীদলীয় নেতা জেরেমি করবিন রবিবার ভোরে তার মন্ত্রিপরিষদ থেকে একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্যকে বরখাস্ত করেছেন। শুক্রবার ব্রেক্সিট ফলের পর প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন পদত্যাগ করলে তার উত্তরসূরি হিসেবে পছন্দের তালিকায় রয়েছেন লন্ডনের সাবেক মেয়র বরিস জনসন। যদিও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থেরেসা মে ঐক্যবদ্ধ প্রার্থী হিসেবে সমর্থন অর্জন করতে পারেন। ডেভিড ক্যামেরনের উত্তরসূরি হিসেবে তার যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। খবর বিবিসি ও গার্ডিয়ান অনলাইনের।

করবিন ব্রিটেনের ইউরোপীয় ইউনিয়নে (ইইউ) থাকার জন্য প্রচার অভিযানে রক্ষণশীল প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের সঙ্গে যোগ দেন। করবিন শুক্রবার প্রথমদিকে ছায়া পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি বেনকে পদচ্যুত করেন।

লেবার নেতা যদি পদত্যাগে অস্বীকৃতি জানান তাহলে পদত্যাগের জন্য দলীয় সদস্যদের অনুপ্রাণিত করে আসছিলেন। একজন লেবার মুখপাত্র বলেছেন, বেনের ওপর করবিনের আস্থা নেই। লেবার পার্টির দুই পার্লামেন্ট সদস্য শনিবার বিরোধীদলীয় নেতার বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব উপস্থাপন করেছেন। ইইউ ত্যাগে ব্রিটেনের ভোটের ফলে অসন্তুষ্টি শুরু হলে অনেক এমপির মধ্যে যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে তারই প্রতিফলন দেখা যায় অনাস্থা প্রস্তাবে। করবিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে যে, তিনি তার দলের ভিত্তি শ্রমিক শ্রেণীর ভোটারদের ঐক্যবদ্ধ করতে ব্যর্থ হওয়ায় গণভোটে হেরেছেন। দলের শ্রমিক শ্রেণীর ভোট মোট ভোটার সংখ্যার তিন ভাগের এক ভাগের কিছু বেশি বা ৩৭ শতাংশ। তারা বৃহস্পতিবারের ঐতিহাসিক গণভোটে ব্রেক্সিট সমর্থনের জন্য তাদের দলীয় নেতৃত্বের প্রতি চ্যালেঞ্জ প্রকাশ করেন। বেনের পদচ্যুতির পর লেবার এমপি রবার্টা ব্ল্যাকম্যান-উডস টুইটে বলেছেন, এটা সত্যিই দুঃখজনক সংবাদ এবং আমি বুঝতেই পারছি না যে, জেরিমি কিভাবে ভাবতে পারলেন যে বেনকে বরখাস্ত করলে পিএলপির সঙ্গে তার অবনতিশীল অবস্থা কাটিয়ে ওঠতে তিনি সক্ষম হবেন। দলের আরও এক এমপি বেন ব্রেডশ টুইটে বলেছেন, লেবার ছায়া মন্ত্রিপরিষদকে এখন অবশ্য পার্টি রক্ষা করেই কাজ করতে হবে। করবিন অনাস্থা ভোটকে বাতিল করে দিয়েছেন। কিন্তু বিষয়টি সোমবার লেবার পার্টির পার্লামেন্টারি বৈঠকে আলোচনায় প্রাধান্য পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।