মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

রাজাকার পরিবারের কাউকে নৌকার মনোনয়ন না দেয়ার দাবিতে লালমনিরহাটে বিক্ষোভ

প্রকাশিত : ২১ মার্চ ২০১৬, ০৪:৪৬ পি. এম.

নিজস্ব সংবাদদাতা, লালমনিরহাট ॥ লালমনিরহাটের খুনিয়াগাছে সদ্য আওয়ামীলীগে যোগদানকৃত বিএনপির নেতা কুখ্যাত রাজাকার পরিবারের সন্তান খায়রুল ইসলাম বাদল চেয়ারম্যান নৌকা প্রতীক পেতে জোর লবিং করছে। এই ঘটনায় তৃণমূল পর্যায়ে আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের মাঝে বিক্ষুদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। খুনিয়াগাছ বাজারের তৃণমূল আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে রবিবার সন্ধ্যায় বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে।

তৃণমূল নেতা কর্মীদের দাবি জেলায় তৃতীয় পর্যায়ে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীক নিয়ে যাতে কোন রাজাকার আলবদল ও স্বাধীনতা বিরোধী পরিবারের সন্তান প্রার্থী হতে না পারে। সদ্য আওয়ামীলীগে যোগদানকৃত নেতা খারুল ইসলাম মন্ডল বাদল ( চেয়ারম্যান) লালমনিরহাট জেলা সদরের খুনিয়াগাছ ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি থাকার সময় খুনিয়াগাছ বাজার ১নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে হরতালের দিন ১৪ সালে বিএনপি জামায়াত বর্রব হামলা চালায়। এই হামলায় শিশু শিক্ষার্থী, শিক্ষিকা ও শিক্ষক গুরুতর আহত হয়। সারা দেশে এই প্রথম কোন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ক্লাস চলাকালে হামলার ঘটনা ঘটে ছিল। সেই সময় সারা দেশে ঘটনাটি নিয়ে তোলপাড় চলে। এমন কী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই ঘটনায় তীব্র নিন্ধা জানায়। দায়ীদের গ্রেফতার করার নির্দেশ দেয়।

বিগত বিএনপি জামায়াতের শাসন আমলে খুনিয়াগাছের মানুষ ও আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীরা নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়ে ছিল। তাদের অপরাধ এই ইউনিয়নটির বিপদে, র্দূভিক্ষে, মঙ্গায় বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা পাশে দাঁড়াতে ছুটে আসতেন। জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য এরশাদ হোসেন জাহাঙ্গীর জানান, জেলা পর্যায়ের কয়েক নেতা নানা অবৈধ সুবিধা নিয়ে রাজাকার পরিবারের সদস্যকে খুনিয়াগাছে নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রার্থী করতে চায়। তৃণমূল পর্যায়ে এই ঘটনায় নেতা কর্মীরা দ্বিধাদ্বন্দে পড়েছে। বিক্ষুব্ধ নেতা কর্মীরা রাজাকার পরিবারের বিরুদ্ধে জনমত তৈরী করতে খুনিয়াগাছে মিছিল মিটিং করছে। মহানমুক্তিযুদ্ধের সময় এখানে নির্মম হত্যার ঘটনা ঘটে । বাদল চেয়ারম্যানের রাজাকার চাচা নেতৃত্বে স্বাধীনতাকামী মানুষকে হত্যা করা হয়। খুনিয়াগাছ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোজাম্মেল হক সরকার মানিক জানান, রাজাকার পরিবারের সদস্যদের কাউকে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীক দেয়ার বিরুদ্ধে জনমত তৈরীতে তৃণমূল পর্যায়ের নেতা কর্মীরা সোচ্চার রয়েছে। তাই তারা নিজেদের চাঙ্গা রাখতে খুনিয়াগাছ বাজারে মিছিল করেছে।

জেলা আওয়ামীলীগের সাধানর সম্পাদক ও জেলা পরিষদের প্রশাসক এ্যাডঃ মতিয়ার রহমান জানান, আওয়ামীলীগ মহানমুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দিয়েছে। এই দলে রাজাকার ও রাজাকার পরিবারের কাউকে নৌকা প্রতীক দেয়া হবে না। মনোনয়নে তৃনমূল পর্যায়ের কর্মীদের মূল্যায়ন করা হবে।

খুনিয়াগাছ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সদ্য আওয়ামীলীগে যোগদানকৃত বিএনপি নেতা খায়রুলজামান মন্ডল বাদল জানান, তিনি আওয়ামীলীগের রাজনীতি দিয়ে রাজনীতি শুরু করেন। তার পরিবারের জন্য তাকে অপরাধী করা অনৈতিক। বিএনপির রাজনীতি করাটা ছিল তার জীবনে রাজনৈতিক ভূল। শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারা ও মানুষের কল্যানে কাজ করায় পুনরায় আওয়ামীলীগে যোগদান করি।

প্রকাশিত : ২১ মার্চ ২০১৬, ০৪:৪৬ পি. এম.

২১/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: