মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৬ আশ্বিন ১৪২৪, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

ক্যালিফোর্নিয়া হামলাকারীর বন্ধুর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের

প্রকাশিত : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৫

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় ১৪ জনকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে হামলাকারী দম্পতির এক বন্ধু এনরিক মারকুইজের (২৪) বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে। গুলি করে হত্যার ঘটনায় মারকুইজের অবৈধভাবে কেনা দুটি রাইফেল ব্যবহার করা হয়েছিল। খবর বিবিসির।

ক্যালিফোর্নিয়ার সান রারনারডিনোর একটি প্রতিবন্ধী সেবাকেন্দ্রে ২ ডিসেম্বর গুলি করেন বিবাহিত দম্পতি সৈয়দ রিজওয়ান ফারুক (২৮) ও তাফশিন মালিক (২৯)। মারকুইজের বিরুদ্ধে সৈয়দ রিজওয়ান ফারুকের সঙ্গে ২০১১ ও ২০১২ সালে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলার পরিকল্পনা করাসহ অবৈধভাবে অস্ত্র ক্রয়েরও অভিযোগ আনা হয়েছে। মার্কিন এ্যাটর্নি ইলেন ডেকার বলেন, যদিও ২ ডিসেম্বরের হামলায় মারকুইজের অংশগ্রহণের কিংবা তিনি এটি আগাম জানতেন এমন কোন প্রমাণ নেই, কিন্তু তার অস্ত্র ক্রয়ের ইতিহাস এবং ফারুকের নির্বিচার হত্যাকা- ঘটানোর প্রবণতা রয়েছে যা মারাত্মক পরিণতি ডেকে এনেছিল। এই বিষয়টি সম্পর্কে কর্তৃপক্ষকে সতর্ক না করার ব্যর্থতা তার রয়েছে। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের বিবরণে জানা গেছে, মারকুইজ সান বারনারডিনোতে হামলার কয়েক ঘণ্টা পর জরুরী সার্ভিসে ফোন করে জানান, হামলাকারীরা তার অস্ত্র ব্যবহার করেছেন। এফবিআই জানিয়েছে, মারকুইজকে ১১ দিন ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাতে অতীতে হত্যা পরিকল্পনায় নিজের ভূমিকার কথা তিনি স্বীকার করেছেন। তবে সেসব পরিকল্পনা কোনদিনই বাস্তবে ঘটেনি বলেও তিনি কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন। আদালতের রেকর্ড থেকে জানা গেছে, ফারুক ও মারকুইজ এক সময় পাশাপাশি বাসায় থাকতেন। সেই সময়েই ফারুকের মাধ্যমে মারকুইজ ইসলাম ধর্মের সঙ্গে পরিচিত হন। সেখানেই তারা উগ্রপন্থী ইসলামী ভিডিও দেখতেন। সেসব ভিডিওর মধ্যে সাবেক আল কায়েদা নেতা আনোয়ার আল-আওলাকির লেকচারও রয়েছে। মারকুইজ ও ফারুক স্থানীয় একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে বোমা হামলারও পরিকল্পনা করেছিলেন। বোমা হামলার পর আতঙ্কিত ছাত্ররা যখন দৌড়ে বাঁচতে চাইবে তখন তাদের গুলি করা হবে বলেও পরিকল্পনা করেছিলেন তারা।

প্রকাশিত : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৫

১৯/১২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

বিদেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: