মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২২.৮ °C
 
২৫ এপ্রিল ২০১৭, ১২ বৈশাখ ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

বাঙালীয়ানা খাবার

প্রকাশিত : ১৪ ডিসেম্বর ২০১৫
  • মেরীনা চৌধুরী

পোস্ত চিংড়ি

যা লাগবে : খোসা ছাড়ানো চিংড়ি ২৫০ গ্রাম, পোস্ত বাটা ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ ৩টি (মিহি কুচানো), আলু ২টি ছোট মাপের টুকরো, কাঁচামরিচ বাটা আধা চা চামচ, সরষের তেল ৩ টেবিল চামচ, চিনি আধা চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, হলুদ সিকি চা চামচ, তেজপাতা ২টি, শুকনো মরিচ ২টি ও জিরা ১ চিমটি।

যেভাবে করবেন : কড়াইতে তেল গরম করে চিংড়ি মাছ ভেজে তুলে রাখুন। ওই তেলে তেজপাতা, শুকনো মরিচ ও জিরে ফোঁড়ন দিয়ে আলু, পোস্ত বাটা ও মরিচ বাটা দিয়ে কিছুক্ষণ নেড়েচেড়ে লবণ-হলুদ দিয়ে অল্প পানি দিন। এবার চিংড়ি, চিনি দিয়ে ১০ মিনিট দমে রাখুন। পানি শুকিয়ে এলে নামিয়ে নিন।

চিড়েতে মুড়ো

যা লাগবে : রুই বা কাতলা মাছের মুড়ো ২টি, চিড়া ২০০ গ্রাম, জিরা বাটা ১চা চামচ, ধনেবাটা ১চা চামচ, আদা বাটা ১চা চামচ রসুন বাটা ১চা চামচ, চিনি ১চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, তেল অথবা ঘি আধা কাপ।

যেভাবে করবেন : শুকনো চিড়া আধা তেলে ভেজে তুলে নিন। মাছের মুড়ো বড় চার টুকরো করে একটু হলুদ ও লবণ মাখিয়ে সাতলে তুলে নিন। এবার কড়াইতে বাকি তেল বা ঘিয়ে তেজপাতা ফোড়ন দিয়ে বাটা পেঁয়াজ কুচি বাদামি করে মসলা ছাড়ুন। খানিকক্ষণ নেড়েচেড়ে চিনি ও তিন কাপ পানি দিন। ফুটে উঠলে মাছের মাথা দিয়ে ঢেকে দিন। মাছের মাথা সিদ্ধ হলে ঝোল একটু পাতলা থাকতেই নামিয়ে ভাজা চিড়া হাত দিয়ে একটু ভেঙ্গে ছড়িয়ে নেড়েচেড়ে ঢেকে রাখুন। তেজপাতার সঙ্গে এক চিমটি মেথি ও ফোড়ন দিতে পারেন।

রুই মাছের সরষে ঝাল

যা লাগবে : রুই মাছ ৫০০ গ্রাম, সরষের তেল ১৫০ গ্রাম, হলুদ আধা চা চামচ, মরিচগুঁড়ো আধা চা চামচ, সরষে বাটা ২ টেবিল চামচ, কালোজিরা ১ চিমটি, কাঁচামরিচ ৬টি, লবণ স্বাদ অনুযায়ী।

যেভাবে করবেন : সরষে দুটি কাঁচমরিচ দিয়ে বেটে দু’কাপ পানিতে গুলে রাখুন। কাঁচা মরিচ দুটি চিরে নিন। কড়াইতে তেল গরম করে মাছ লবণ-হলুদ মাখিয়ে ভেজে তুলে নিন। এবার কড়াইয়ে বাকি তেল দিয়ে গরম করে কালোজিরা ও দুটি চেরা মরিচ ফোঁড়ন দিন। মরিচ ও হলুদ অল্প সরষে গোলা পানি দিন। পরিমাণমতো লবণ ও চিনি দিন। ঝোল ফুটে উঠলে ভাজা মাছ দিয়ে ওপরে কাঁচা সরষের ছড়িয়ে দিন। ঝোল ঘন হলে ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে নামিয়ে নিন।

কেশরি গাজর

যা লাগবে : গাজর ৫০০ গ্রাম, নারকেল কোরা ১ কাপ, খোয়া ক্ষীর পৌনে এক কাপ, চিনি দেড় কাপ, ঘি আধা কাপ, দুধ দেড় কাপ, এলাচ গুঁড়ো, জাফরান সামান্য, কিশমিশ, পেস্তা বাদাম কুচি প্রয়োজনমতো।

যেভাবে করবেন : গাজর মিহি করে কুরিয়ে (আগে ধুয়ে নেবেন) কড়াইতে গাজর ও দুধ একসঙ্গে জ্বাল দিন (অল্প আঁচে জ্বাল দেবেন) কিছুক্ষণ জ্বাল দেওয়ার পর এতে নারকেল কোরা গরম করে দুধ ও গাজরের মিশ্রণের চারপাশে একটু করে দিন ও নাড়তে থাকুন। এতে কিশমিশ, পেস্তা বাদাম ও জাফরান দিন। বেশ ঘন ও ঝরঝরে হলে নামিয়ে একটা ঘি মাখানো থালায় এক ইঞ্চি পুরু করে ঢেলে দিন। হাত দিয়ে চেপে চেপে বসান। অল্প ঠা-া হয়ে এলে চৌকো বা ইচ্ছামতো আকারে কেটে তবক লাগিয়ে দিন।

শীতের সবজি নিরামিষ

যা লাগবে : বাঁধাকপি মোটা কুচি ৩ কাপ, গাজর টুকরো সিদ্ধ আধাকাপ, মটরশুটি খোসা ছাড়ানো আধাকাপ, টমেটো টুকরো ৩টি, তেল আধাকাপ, জিরা আধা চা চামচ, মরিচগুঁড়ো ২চা চামচ, ধনেবাটা ১ টেবিল চামচ, চিনি ২ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, নতুন আলু ৪টি ৪ টুকরো করা।

যেভাবে করবেন : তেলে জিরা ফোড়ন দিয়ে বাঁধাকপি, আলু, গাজর, মটরশুটি ও বাটা মসলা দিয়ে মৃদুু আঁচে রান্না করুন। সিদ্ধ হলে চিনি ও লবণ দিয়ে নেড়ে মাখা মাখা হলে নামিয়ে নিন।

প্রকাশিত : ১৪ ডিসেম্বর ২০১৫

১৪/১২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: