মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

মিসরে নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে ভারতের সাহায্য চেয়েছিলেন হিলারি

প্রকাশিত : ১ নভেম্বর ২০১৫

মিসরে ২০১১ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনকে অবাধ ও নিরপেক্ষ করতে ভারতের সহায়তা চেয়েছিলেন তৎকালীর পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন। এক জনপ্রিয় অভ্যুত্থানের পর মিসরের প্রেসিডেন্ট হোসনী মোবারকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। যুক্তরাষ্ট্রের বেসামরিক নিরাপত্তা, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি মারিয়া ওতেরোকে এক ইমেইলে হিলারি লিখেছিলেন, ভারত কি মিসরকে সহায়তা করবে? খবর এএফপির।

যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত তৎকালীন ভারতীয় রাষ্ট্রদূত নিরুপমা রাওয়ের সঙ্গে বৈঠকের আগে হিলারি এই ইমেইল করেন। এদিকে ওরেতো এর জবাবে হিলারিকে লিখেছিলেন, আমি ভারত থেকে ফিরছি এবং সেখানে এফএস রাও ও ভারতীয় নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বিশ্বব্যাপী নির্বাচনে ভারতের ভূমিকা বৃদ্ধির সম্ভাবনা সম্পর্কে এবং তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলোকে আরও ঘনিষ্ঠভাবে সহযোগিতার বিষয়ে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। তিনি ২০১১ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি হিলারিকে এই ইমেইলটি পাঠিয়েছিলেন। তিনি আরও লিখেছিলেন, এফএস রাও এই প্রস্তাব নিয়ে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে আলোচনা করবেন। মার্কিন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বৃহত্তর সহযোগিতায় খুবই আগ্রহী ভারতীয় নির্বাচন কমিশন। আগামী সপ্তাহে দেশটির প্রধান নির্বাচন কমিশনার ওয়াশিংটন ডিসি সফর করবেন। তখন আমি এবং বব ব্ল্যাক এ বিষয়ে তার সঙ্গে আবার আলোচনা করবো। ব্ল্যাক তখন দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের সম্প্রতি প্রকাশিত ইমেইলগুলোতে ভারতকে পাঠানো বেশ কিছু ইমেইলও দেখা গেছে। তবে ভারত-পাকিস্তান সম্পর্কিত ইমেইলগুলোর বেশিরভাগই সম্পাদনা করে প্রকাশ করা হয়েছে। ইমেইলগুলোতে আরও দেখা গেছে, মার্কিন-ভারত সম্পর্কে হিলারির ব্যক্তিগত আগ্রহ আছে। এক ইমেইলে ২০১১ সালের অক্টোবরে শ্রাম শরণের ‘ম্যানেজিং দ্য ইন্দো-প্যাসিফিক’ শীর্ষক একটি উপ-সম্পাদকীয় হিলারির কাছে ফরোয়ার্ড করা হয়েছে।

প্রকাশিত : ১ নভেম্বর ২০১৫

০১/১১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: