ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০

শেষ ম্যাচে হার এড়ালেই কিংসের বাজিমাত

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৪৩, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

শেষ ম্যাচে হার এড়ালেই কিংসের বাজিমাত

বসুন্ধরা কিংসের জয়ের নায়ক বরবুরবেক ইয়ালদাশোভ

এএফসি কাপে এ পর্যন্ত (২০০৪ সাল থেকে) বাংলাদেশের আটটি ক্লাব খেলেছে। দলগুলো হলো : মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, ব্রাদার্স ইউনিয়ন, মোহামেডান স্পোর্টিং, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র, শেখ জামাল ধানমন্ডি, ঢাকা আবাহনী, সাইফ স্পোর্টিং এবং বসুন্ধরা কিংস। এই ক্লাবগুলো এ পর্যন্ত ৩১ দেশের বিভিন্ন ক্লাবের বিরুদ্ধে ১৪৬ ম্যাচ খেলেছে। জিতেছে ৪৭ ম্যাচে, ড্র করেছে ৩২ ম্যাচে এবং হেরেছে ৬৭ ম্যাচে। করেছে ২০৭ গোল। হজম করেছে ২৪২ গোল। জয়ের হার ৩২.১৯%। ঢাকা আবাহনী সর্বোচ্চ ৫ বার এই আসরে খেলেছে। তারাই সর্বোচ্চ ইন্টার জোন প্লে-অফ সেমিফাইনাল পর্যন্ত যেতে পেরেছে (২০১৯ সালে)। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩ বার এএফসি কাপ খেলেছে বসুন্ধরা কিংস (২০২০, ২০২১ ও ২০২২)। এর মধ্যে প্রথম বছরে তাদের অগ্রযাত্রা থেমে গিয়েছিল করোনার কারণে।

পরের দু’বারই তাদের বিদায় নিতে হয় গ্রুপ পর্ব থেকেই। কিন্তু বিদায় নিলেও প্রতিবারই তারা বেশ ভালো খেলেই এবং আক্ষেপ নিয়ে বিদায় নেয়। তবে এবার তাদের হয়তো সেই আক্ষেপটা আর করতে হবে না। তার কারণ ডি-গ্রুপে কিংস পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে (৫ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট)। সোমবার তারা নিজেদের মাঠে পিছিয়ে পড়েও ২-১ গোলে হারায় মালদ্বীপের মাজিয়া স্পোর্টস ক্লাবকে। ওইদিনই একই গ্রুপের অন্য ম্যাচে ভারতের মোহন বাগানকে ৫-২ গোলে হারায় ওড়িশা এফসির। মোহন বাগানের এই হারে কার্যত লাভ হয়েছে কিংসের।

কেননা গ্রুপসেরা হওয়ার লড়াই থেকে ছিটকে গেছে দলটি, এই জয় কিংসের গ্রুপসেরার পথে আরও এক ধাপ এগিয়ে দিয়েছে। সেই সঙ্গে প্রথমবারের মতো ইন্টার জোনাল সেমিফাইনাল খেলতে শেষ গ্রপ ম্যাচে ওড়িশার বিপক্ষে কিংসের দরকার অন্তত ১ পয়েন্ট। ১১ ডিসেম্বর হতে যাওয়া ওড়িশার মাঠে সেই ম্যাচে হার এড়ালেই কিংবা ড্র করলেই কেল্লাফতে করবে ‘দ্য কিংস’ খ্যাত বসুন্ধরা। পাঁচ ম্যাচে ওড়িশার পয়েন্ট ৯, আর মোহনবাগানের ৭।  সোমবার ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে এসে কিংসের স্প্যানিশ কোচ অস্কার ব্রুজোন বলেন, ‘আমরা শীর্ষেই আছি, এটা স্বস্তির ব্যাপার। কিন্তু কাজ এখনো শেষ হয়নি। আমাদের ভারতে যেতে হবে এবং সেখানে ইতিবাচক কিছু করতে হবে।’

×