ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০

ঠাসা সূুচি নিয়ে বললেন অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক প্যাট কামিন্স

‘ক্রিকেটাররা মানুষ, রোবট নয়

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৪২, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

‘ক্রিকেটাররা মানুষ, রোবট নয়

বিশ্বকাপ ট্রফি হাতে সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অধিনায়ক প্যাট কামিন্স

১৯ নভেম্বর বিশ্বকাপ ফাইনালের চারদিন পরই ভারতের মাটিতে ভারতের সঙ্গে পাঁচ ম্যাচের টি২০ সিরিজ খেলতে নামে অস্ট্রেলিয়া। 
বিশ্বকাপজয়ী দলের সাতজন আছেন এই সিরিজেও। স্টিভেন স্মিথ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, অ্যাডাম জাম্পারা দেশকে রেকর্ড ষষ্ঠ শিরোপা উপহার দিয়ে উদ্যাপনের সময়টুকু পর্যন্ত পাননি। দীর্ঘ দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পর দেড় মাসের বিশ্বকাপ, সঙ্গে সঙ্গেই আবার এই টি২০ সিরিজ। দ্বিতীয় সারির ভারতের বিপক্ষে প্রথম দুই ম্যাচে হেরে সিরিজে পিছিয়ে পড়লেও দুটি ম্যাচেই দারুণ ফাইট করেছে অজিরা। পরের তিন ম্যাচের স্কোয়াডে পরিবর্তন এনেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। 
অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েড ছাড়া ওই সাত জনের ছয়জনই দেশের পথে রয়েছেন। সামনে ব্যস্ত সূচি, ভারত সফরের পর ঘরের মাঠে পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে টেস্ট সিরিজ। মঙ্গলবার সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে শেফিল্ড শিল্ডের ম্যাচের বিরতিতে বিশ্বকাপ ট্রফি নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় ঠাসা সূচি প্রসঙ্গে বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক প্যাট কামিন্স বলেন, ‘ক্রিকেটাররা মানুষ, রোবট নয়।’
কামিন্স বলেন, ‘তারা মানুষ, রোবট নয়। বিশ্বকাপে সর্বস্ব উজাড় করে দেওয়া, ক’দিন পরই আবার খেলতে নেমে শতভাগ দিতে না পারলে তাদের ওপর রুষ্ট হবো না।’ তবে এই সব সিরিজ সাইডলাইনের ক্রিকেটারদের জন্য বড় কিছু বলেও মনে করেন তিনি, ‘এরপরও এগুলো অস্ট্রেলিয়ারই ম্যাচ। কয়েকজন তরুণ, যারা নাকি ঠিক প্রথম একাদশে আসে না, তাদের সুযোগ করে দেয় বলে এসব সফর ভালোই। আমার মনে হয় এগুলো গুরুত্বপূর্ণ সফর, এগুলো থেকে অনেক কিছু পেতে পারেন।’ কামিন্স কথা বলেন ওয়ার্নারকে নিয়েও।

ভারত সিরিজের আগে টি২০ দল থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন এ বাঁহাতি ওপেনার, যিনি পাকিস্তান সিরিজ দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় বলবেন। অবশ্য টেস্ট দলে ওয়ার্নারের জায়গা পড়ে গেছে অনিশ্চয়তার মুখে, লাল বলে ঠিক সুবিধাজনক ফর্মে নেই তিনি। তবে বিশ্বকাপে ৫৩৫ রান করা ওয়ার্নারই ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার সর্বোচ্চ রান স্কোরার। কামিন্স বলেন, ওয়ার্নার দারুণভাবে বল পেটাচ্ছে এ মুহূর্তে।’ অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক এরপর যোগ করেন, ‘সে শুধু নিজের জন্যই খেলছিল না সেখানে। সে ম্যাচে নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার চেষ্টা করেছে, সত্যিকারের সাহস দেখিয়েছে। প্রতিপক্ষকে আক্রমণ করেছে।’
আহমেদাবাদের ফাইনালে ভারতের অহংকার থামিয়ে দাপুটে জয় তুলে নেয় অস্ট্রেলিয়া। অধিনায়ক কামিন্সসহ ছয় ক্রিকেটার দেশে ফিরলেও টি২০ খেলতে ভারতে থেকে যান সাত জন। প্রথম দুই ম্যাচ খেলার পর দেশের পথে স্টিভেন স্মিথ ও অ্যাডাম জাম্পা, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মার্কাস স্টইনিস, জশ ইংলিস ও শন অ্যাবট। তাদের পরিবর্তে স্কোয়াডে যুক্ত করা হয়েছে জশ ফিলিপি, বেন ম্যাকডারমট, বেন ডোয়ারশুইস, ক্রিস গ্রিনকে। ভারতে সিরিজের পর অস্ট্রেলিয়ান গ্রীষ্মে ব্যস্ত সূচি আছে কামিন্সের দলের।

পাকিস্তানের পর তারা টেস্ট সিরিজ খেলবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। খেলোয়াড়দের ওপর যে বড় একটা বোঝা আছে, সেটি স্বীকার করে নিয়েছেন কামিন্স। কয়েকজন গত সেপ্টেম্বর থেকে ভারতে আছেন। আগামী ১৪ ডিসেম্বর পার্থে পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ। মেলবোর্নে ‘বক্সিং ডে’ টেস্টের পর সিরিজের শেষ টেস্ট শুরু ৩ জানুয়ারি, ওয়ার্নারের ঘরের মাঠ সিডনিতেই।

×