ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

‘আমরা সবাই ভিনিসিয়াস জুনিয়র’

জাহিদুল আলম জয়

প্রকাশিত: ২২:৪২, ২৫ মে ২০২৩

‘আমরা সবাই ভিনিসিয়াস জুনিয়র’

.

বর্ণবাদের শিকার হওয়ার পর গোটা দুনিয়া ভিনিসিয়াস জুনিয়রের পাশে দাঁড়িয়েছে। প্রতিদিনই রিয়াল মাদ্রিদের ব্রাজিলিয়ান তারকার হয়ে কথা বলছেন সবাই। বুধবার রাতে স্প্যানিশ লা লিগার ম্যাচের পুরোটা সময়ই ছিল ভিনিকে ঘিরে। ঘরের মাঠ সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ভিনি না খেললেও সবকিছুর মধ্যেই ছিলেন তিনি। আলোচিত ম্যাচে সফরকারী রায়ো ভায়োকানোকে - গোলে হারিয়ে জয়ে ফিরেছে রিয়াল মাদ্রিদ। গ্যালাক্টিকোদের হয়ে ম্যাচে গোল দুটি করেন ফরাসী ফরোয়ার্ড করিম বেঞ্জামা ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার রডরিগো। রায়োর হয়ে একমাত্র গোলটি করেন ডি টমাস।

ভিনিসিয়াস আগেও বর্ণবাদের শিকার হয়েছেন। তবে এবার ভ্যালেন্সিয়াতে বর্ণবাদের শিকার হওয়ার পর থেকে পুরো পৃথিবী তার পাঁশে দাঁড়িয়েছে। ঘটনায় এখন পর্যন্ত ছয়জন রেফারি বহিষ্কার হয়েছেন, আটক হয়েছেন অনেকে, ভ্যালেন্সিয়া ক্লাবে দর্শক প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে, উঠিয়ে নেয়া হয়েছে ভিনির লালকার্ড, সবশেষ টুইটারে ভিনিসিয়াসকে নিয়ে করা মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন স্প্যানিশ লা লিগার সভাপতি জ্যাভিয়ের টেবাস। শুধু তাই নয়, পরশু রাতে ম্যাচে ভিনিসিয়াসকে সমর্থন করতে রিয়াল মাদ্রিদ সভাপতি ফ্লোরেন্টিনো পেরেজ তাকে পাশে বসিয়ে খেলা দেখেছেন। সেই সঙ্গে রিয়ালের ফুটবল বাস্কেটবল দলের সব খেলোয়াড়েরাভিনিসিয়াস জুনিয়র ২০লেখা জার্সি পরে মাঠে নামেন। সবমিলিয়ে ভিনি পুরো বিশ্বের ক্রীড়াঙ্গনকে নাড়িয়ে দিয়েছেন।আমরা সবাই ভিনিসিয়াস, এনাফ ইজ এনাফ বিশাল একে ব্যানারে শোভা পাচ্ছিল কথাগুলো। সান্টিয়াগো বার্নাব্যুর গোলপোস্টের পেছনে গ্যালারিতে টানানো ছিল এই ব্যানারটি। একই সময়ে দেখা যায় ম্যাচ শুরুর আগে দুই দলের (রিয়াল মাদ্রিদ রায়ো ভায়োকানো) অধিনায়ক বর্ণবাদবিরোধী আর্মব্যান্ড পরেছেন।

গ্যালারিতেও বিশাল বিশাল ব্যানার শোভা পাচ্ছিল। বর্ণবাদের শিকার ভিনির প্রতি সমর্থন জানিয়ে রিয়াল মাদ্রিদের হোম ভেন্যু বার্নাব্যু হয়ে উঠেছিল পুরোটাই ভিনিময়। ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে বর্ণবাদী কান্ডের পর মাদ্রিদের হোম ভেন্যুতে এটি ছিল রিয়ালের প্রথম ম্যাচ। তবে ম্যাচের চেয়ে ভিনি ইস্যুতে উত্তাল ছিল পুরো বার্নাব্যু। স্টেডিয়ামে প্রবেশ পথেও দেখা যায় সমর্থকরা ভিনির প্রতি সমর্থন জানিয়ে ফেস্টুন-প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করছিলেন। ম্যাচ শুরুর আগে মাঠে প্রবেশ করেন ভিনিসিয়াস। একটি কালো পোশাক পরে তিনি মাঠে আসেন। এরপর তার প্রতি সমর্থন জানানোর কারণে সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। পরে রিয়ালের সব খেলোয়াড় লা লিগার অফিসিয়াল ব্যানারকে সামনে রেখে ছবি তোলেন। যে ব্যানারে লেখা ছিলোবর্ণবাদী, ফুটবল থেকে আউট হয়ে যাও।ভ্যালেন্সিয়া ম্যাচে লালকার্ড পেলেও একদিন আগে রয়্যাল স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন ভিনির ওপর থেকে শাস্তি প্রত্যাহার করে নেয়। যার ফলে রায়োর বিরুদ্ধে খেলতে পারতেন তিনি। রিয়াল স্কোয়াডে তার নাম ছিলও। কিন্তু হাঁটুর হালকা ইনজুরির কারণে তাকে একাদশে রাখেননি কোচ কার্লো আনচেলোত্তি। যে কারণে রিয়াল সভাপতির পাশে বসে খেলা উপভোগ করেন ভিনি।

এদিকে ঘটনায় নিজের ভুল স্বীকার করে নিয়েছেন লা লিগা সভাপতি জ্যাভিয়ের টেবাস। প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মনে হচ্ছে আমার কথার প্রতিক্রিয়া খুব একটা ভালো নয়। আমি আসলে তাদের প্রতি বলতে চাচ্ছি, যারা মনে করছেন পরিস্থিতি অনুযায়ী আমার কথাগুলো ভুল ছিল। আমাকে এজন্য ক্ষমা চাইতেই হবে। ভিনিসিয়াসকে ব্যক্তিগত আক্রমণের ইচ্ছা আমার ছিল না। টেবাস আরও বলেন, আমি ভিনিসিয়াসের কাছে ক্ষমা চাচ্ছি। শুধু ভিনিই নন, যারা মনে করেন আমার টুইটটি ভিনিকে আক্রমণ করে করা হয়েছিল, তাদের সবার কাছে আমি ক্ষমা চাচ্ছি।

 

×