ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৯ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১

অনূর্ধ্ব-১৭ নারী ফুটবলে বাংলাদেশ রানার্সআপ

রাশিয়া অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন

রুমেল খান

প্রকাশিত: ০১:৪৭, ২৯ মার্চ ২০২৩

রাশিয়া অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন

ট্রফি গ্রহণ করছেন রাশিয়ার অধিনায়ক এলেনা গোলিক

সাফ অনূর্ধ্ব-১৭ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে মূলত দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোই অংশ নিয়ে থাকে। কিন্তু এবারের আসরে ব্যতিক্রম ঘটে। আমন্ত্রণ জানানো হয় এই অঞ্চলের বাইরের দেশ রাশিয়াকে, যারা ফুটবল খেলে ইউরোপীয় জোনে। তখনই এটা পরিষ্কার হয়ে যায়, বাংলাদেশ-ভারতকে পেছনে ফেলে রাশিয়াই এই টুর্নামেন্টের শিরোপা জিততে যাচ্ছে। মঙ্গলবার কমলাপুর স্টেডিয়ামে রাতে অনুষ্ঠিত সেই দৃশ্যই মঞ্চস্থ হলো।

পাঁচ দলের অংশগ্রহণে সিঙ্গেল লিগভিত্তিক এই টুর্নামেন্টের শেষ খেলায় রাশিয়া ২-০ গোলে ভারতকে হারায়। জয়ী দলের ভাসিলিসা এভদেঙ্কো এবং দারিয়া কোতলোভা একটি করে গোল করেন। ম্যাচের প্রথমার্ধেই জোড়া গোল করে জয় নিশ্চিত করে ফেলে চ্যাম্পিয়ন দল। রেফারি খেলা শেষের বাঁশি বাজালে রুশকন্যাদের তেমন উচ্ছ্বসিত মনে হয়নি। খেলা শেষ হয়ে যাওয়ার আগেই শিরোপাজয় নিশ্চিত হয়ে গেলে এমনটাই তো হওয়ার কথা! তবে খেলা উপভোগ করতে আসা গ্যালারির কিছু রুশ দর্শকের কাছে গিয়ে অভিবাদন গ্রহণ করে রুশ ফুটবল দল। 
পুরো ম্যাচে রাশিয়াই প্রাধান্য বিস্তার করে খেলেছে। তবে জোড়া গোল করার পর ভারত দলও যেন বুঝে যায় লড়াই করে ফায়দা নেই। ফলে তারাও খুব বেশি আক্রমণ করার চেষ্টা করেনি। রাশিয়াও তাই। ফলে দ্বিতীয়ার্ধে গোল করার ব্যাপারে উৎসাহ দেখায়নি তারা।  
এই জয়ে চার খেলায় প্রতিটিতেই জিতে ১২ পয়েন্ট পেয়ে চ্যাম্পিয়ন হলো রাশিয়া। সমান ম্যাচে সাত পয়েন্ট নিয়ে স্বাগতিক বাংলাদেশ রানার্সআপ আর ছয় পয়েন্ট পেয়ে ভারত হয়েছে তৃতীয়। এ ছাড়া চার পয়েন্ট পেয়ে নেপাল চতুর্থ ও শূন্য পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম হয়েছে ভুটান। গত ২০ মার্চ থেকে শুরু হয়েছিল এ টুর্নামেন্ট। বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হতে না পারলেও সাফ অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে ঠিকই শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছে। এটাই যা সান্ত¡না।
পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশস্থ রাশিয়ান রাষ্ট্রদূত আলেক্সান্ডার ম্যানটেক্সি, সাফের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক হেলাল, বাফুফের নারী ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ, বাফুফের সদস্য জাকির হোসেন চৌধুরী, টিপু সুলতান এবং ঢাকা ব্যাংকের ম্যানেজিং ব্যবস্থাপনা ও সিইও এমরানুল হক।
ম্যাচের ৯ মিনিটে গোল করে এগিয়ে যায় রাশিয়া। মাঝমাঠে বল পান ভিক্টোরিয়া বেলিভা। তিনি বল পাস দেন সতীর্থ ভাসিলিসা এভদেঙ্কোকে। এই সময় গোলপোস্টে নিজের পজিশন ছেড়ে অনেক সামনে চলে এসেছিলেন ভারত গোলরক্ষক খুশি কুমারী। সেটা চোখে পড়ে ভাসিলিসার। বক্সের অনেক পেছন থেকে তিনি ডান পায়ের উঁচু শট নেন গোলপোস্ট লক্ষ্য করে। কিন্তু শটটা তার প্রত্যাশার চেয়ে আরেকটু ওপরে ছিল না। কিন্তু ভাসিলিসা খুশিতে ফেটে পড়েন। কেননা তিনি দেখলেন তার নেওয়া শটটি খুশির হাত ফস্কে ধীরে ধীরে জালে প্রবেশ করেছে (১-০)।   
১৩ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে রাশিয়া। ১২তম মিনিটে একটি পরিকল্পিত আক্রমণে বল নিয়ে ভারতের বক্সে ঢুকে পড়া রাশিয়ার অধিনায়ক এলেনা গোলিককে ফাউল করেন ভারতের অধিনায়ক হিনা খাতুন। রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজান। পেনাল্টি শটের সময় ভারত গোলরক্ষক খুশি নিয়ম বহির্ভূতভাবে নড়াচড়া করায় রেফারি তাকে হলুদ কার্ড দেখান। ১৩৩ম মিনিটে পেনাল্টি থেকে ঠা-া মাথায় গোল করেন রুশ ফরোয়ার্ড দারিয়া কোতলোভা (২-০)। 
পুরস্কার ॥ চ্যাম্পিয়ন : রাশিয়া (ট্রফি ও মেডেল), রানার্সআপ : বাংলাদেশ (মেডেল), সর্বোচ্চ গোলদাতা : শিলজি শাহজি (৮ গোল, ভারত), সেরা গোলরক্ষক : সুজাতা তামাং (নেপাল), সেরা খেলোয়াড় : এলেনা গোলিক (রাশিয়া), ফেয়ার প্লে ট্রফি : ভারত।

×