ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ০২ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

গোলমেশিন এমবাপের ৫ গোল

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:২৩, ২৫ জানুয়ারি ২০২৩

গোলমেশিন এমবাপের ৫ গোল

এমবাপে

গত ১৮ ডিসেম্বর বিশ্বকাপের ফাইনালে আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে ইতিহাস গড়া হ্যাটট্রিক করেছিলেন ফরাসি তারকা কিলিয়ান এমবাপে। ওই হ্যাটট্রিকের পরও অবশ্য বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি ফরাসিরা। কিন্তু ২৪ বছর বয়সী এই সুপারস্টার ঠিকই সর্বোচ্চ গোলের গোল্ডেন বুট জয় করেন। বিশ্বকাপের চোখ ধাঁধানো পারফর্ম্যান্স ক্লাব পর্যায়েও ধরে রেখেছেন এমবাপে।

এবার প্যারিস সেইন্ট-জার্মেইনের (পিএসজি) ইতিহাসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে একাই হ্যাটট্রিকসহ পাঁচ গোল করার অনন্য কীর্তি গড়েছেন তিনি। সোমবার রাতে ফরাসি কাপের ম্যাচে ষষ্ঠ বিভাগের অপেশাদার ক্লাব পেস ডি কাসেলের বিরুদ্ধে পিএসজির ৭-০ গোলের বিশাল জয়ের ম্যাচে একাই পাঁচ গোল করেন এমবাপে। রাউন্ড অব ৩২ এর ম্যাচে দলের সেরা তারকা লিওনেল মেসিকে ছাড়া খেলতে নামা প্যারিসের পরাশক্তিদের হয়ে বাকি গোল দুটি করেন নেইমার ও কার্লোস সোলের। এই জয়ে আসরের শেষ ষোলোতে খেলা নিশ্চিত হয়েছে পিএসজির।
কাসেলকে গোলবন্যায় ভাসালেও প্রথম গোলের জন্য পিএসজিকে প্রায় আধাঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়। তবে ২৯ মিনিটে এমবাপের প্রথম গোলের পর প্রথমার্ধেই ৪-০ গোলে এগিয়ে যায় কোচ ক্রিস্টোফার গাল্টিয়েরের দল। কাসেলের নিজস্ব বড় মাঠ নেই। যে কারণে ম্যাচ আয়োজন করা হয় লিগ ওয়ানের ক্লাব লেন্সের স্টাডে বোলার্ট-ডেলিলিস স্টেডিয়ামে। ৩২ হাজার আসনের স্টেডিয়াম ছিল শতভাগ পরিপূর্ণ।

নেইমারের প্রথম গোলের পর ৩৩ মিনিটে পিএসজির দ্বিতীয় গোলটি করেন ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার। এরপর ৩৪ ও ৪০ মিনিটে আরও দুটি গোল করে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন এমবাপে। বিরতি থেকে ফিরে ৫৬ মিনিটে এমবাপে আরেক গোল করলে ৫-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় পিএসজি। এরপর সোলার ৬৪ মিনিটে দলের ষষ্ঠ গোল করেন। ৭৯ মিনিটে নিজের পঞ্চম ও পিএসজির সপ্তম গোল করেন এমবাপে। ১৪ বারের ফরাসি কাপের চ্যাম্পিয়ন পিএসজি শেষ ষোলোতে খেলবে অলিম্পিক মার্শেইয়ের বিরুদ্ধে। 
এক ম্যাচে পাঁচ গোল করে পিএসজির ইতিহাসে আরেকটি জায়গায়ও এগিয়ে গেছেন এমবাপে। প্যারিসের ক্লাবটির হয়ে সবচেয়ে বেশি ২০০ গোল করেছেন এডিনসন কাভানি। উরুগুইয়ান ফরোয়ার্ডকে স্পর্শ করতে আর মাত্র চার গোল দরকার ফরাসি তারকার। ম্যাচ শেষে পিএসজি কোচ ক্রিস্টোফার গাল্টিয়ের এমবাপের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন। তারকা এই ফরোয়ার্ডের গোলের ক্ষুধা ও সামর্থ্যে মুগ্ধ তিনি।

পিএসজি কোচ মনে করেন, গোলের জন্য মোহাবিষ্ট হয়ে থাকেন ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ী তারকা। চলতি মৌসুমে এখন পর্যন্ত সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ২৪ ম্যাচে ২৫ গোল করেছেন এমবাপে। সবশেষ বিশ্বকাপে তিনি ছিলেন সর্বোচ্চ গোলস্কোরার। এমবাপের এই ধারাবাহিকভাবে গোল করার বিষয়টি দারুণ লাগছে কোচের। গাল্টিয়ের বলেন, এমবাপে একজন গোল স্কোরার। সে যেন গোল ও আক্রমণ করা নিয়ে আচ্ছন্ন। আমি বলব না যে পাঁচ গোল করা থেকে সে বাড়তি আত্মবিশ্বাস পাবে। সে তার মান অনুযায়ীই খেলেছে।
গাল্টিয়ের আরও বলেন, এমবাপে ও নেইমারের জন্য পুরো ম্যাচ খেলাটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল। তারা অনেক কিছু একসঙ্গে করেছে। মাঠে বারবার একে অপরকে খুঁজে নিয়েছে। বিষয়টি তাদের জন্য ভালো। আমরা প্রথম গোল করার পর প্রতিপক্ষের জন্য ম্যাচটি কঠিন হয়ে পড়ে। কয়েক সপ্তাহ পর আমরা যে দলটিকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেতে যাচ্ছি তাদের মান সম্পূর্ণ ভিন্ন। অর্থাৎ আগামী মাসে মার্শেইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচ নিয়ে এখন থেকেই বেশ সতর্ক পিএসজি কোচ।

×