ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

স্বর্গ থেকে ম্যারাডোনা আমাদের দেখছেন, প্রেরণা জোগাচ্ছেন

প্রকাশিত: ১২:৫৯, ১০ ডিসেম্বর ২০২২

স্বর্গ থেকে ম্যারাডোনা আমাদের দেখছেন, প্রেরণা জোগাচ্ছেন

মেসি ও ম্যারাডোনা 

দিয়েগো ম্যারাডোনা যদি বেঁচে থাকতেন, নিশ্চিতভাবে খবরের শিরোণামেও থাকতেন। কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার ম্যাচ থেকে ম্যাচে তাকে দেখা যেত গ্যালারিতে পতাকা ওড়াতে, হুঙ্কার ছুড়তে। তবে এই মর্ত্যের মানুষের কাছে তিনি না থাকলেও আর্জেন্টিনা দলের কাছে কাছে তিনি ঠিকই আছেন। নিজেদের বিশ্বকাপ অভিযানের প্রতিটি পদক্ষেপে ম্যারাডোনার অস্তিত্ব টের পাচ্ছেন লিওনেল মেসি। 

আর্জেন্টিনাকে সবশেষ বিশ্বকাপ এনে দেওয়ার নায়ক ম্যারাডোনা। আর্জেন্টাইন ফুটবল তো বটেই, বিশ্ব ফুটবলেই রূপকথার নায়ক। পরে ২০১০ বিশ্বকাপে তার কোচিংয়ে বিশ্বকাপে খেলেন মেসিরা। অন্য সব আসরে আর্জেন্টিনার ম্যাচে গ্যালারিতে ছিল তার সরব  ও প্রাণবন্ত উপস্থিতি । বর্ণময় এই চরিত্র নিজেকে উজাড় করেই সমর্থন জুগিয়ে যান দলকে। কিন্তু দুই বছর আগে তিনি অন্য জগতে পাড়ি জমান ৬০ বছর বয়সে। 

২০১৮ সালে ম্যারাডোনার দেখা সবশেষ বিশ্বকাপে দ্বিতীয় রাউন্ড থেকেই বিদায় নেয় আর্জেন্টিনা। এবার মেসির অসাধারণ পারফরম্যান্সের ভেলায় চেপে দল পৌঁছে গেছে সেমি-ফাইনালে। দলের স্বপ্নযাত্রার উচ্ছ্বাসের সঙ্গে আবেগময় আর্জেন্টাইনদের হাহাকারও আছে, ‘দিয়েগো যদি দেখতে পেতেন!’ 

তবে মেসির স্থির বিশ্বাস, ম্যারাডোনা তাদের ঠিকই দেখছেন। কোয়ার্টার-ফাইনালে নেদারল্যান্ডসকে হারানোর পর আর্জেন্টিনা অধিনায়ক বললেন, এই কিংবদন্তির প্রেরণাই তাদের ছুটে চলার জ্বালানি। 

“দিয়েগো আমাদের স্বর্গ থেকে দেখছেন এবং অনুপ্রেরণা জোগাচ্ছেন। আশা করি, বিশ্বকাপের শেষ পর্যন্তও এটা একইরকম থাকবে।” 

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে এই ম্যাচে রোমাঞ্চ-উত্তেজনায় ভেসে শেষ পর্যন্ত জয়ের ঠিকানা পান মেসিরা। ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে তাদের জয় যখন মনে হচ্ছিল নিশ্চিত, ডাচরা লড়াইয়ে ফেরে দারুণভাবে। শেষ দিকে দুই গোল করে তারা ম্যাচ নিয়ে যান অতিরিক্তি সময়ে। 

পরে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। সেখানে গোলকিপার এমিলিয়ানো মার্তিনেজ প্রথম দুটি শট ঠেকিয়ে দলকে সেমিতে ওঠার পথ করে দেন। আর্জেন্টিনার শেষ শটে লাউতারো মার্তিনেজ গোল করতেই বাঁধনহারা উদযাপনে মতে ওঠেন মেসিরা। এই জয় ও দলের সাফল্য মেসি উৎসর্গ করেন আর্জেন্টিনার ফুটবল পাগল মানুষদের। 

“আমরা খুবই খুশি এবং মুহূর্তটা উপভোগ করেছি। এখানে আমরা সবার মধ্যে উচ্ছ্বাস দেখছি এবং আর্জেন্টিনাতেও দেখছি। দেশের মানুষ সবাই খুব খুশি, দারুণ রোমাঞ্চিত এবং প্রবল উৎসাহী।” 

নেদারল্যান্ডস বাধা পার হওয়ার পর এবার ফাইনালে উঠতে আর্জেন্টিনার সামনে অপেক্ষায় ক্রোয়েশিয়া।

তাসমিম

×