ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

ক্রোয়েশিয়া-জাপান ম্যাচে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই

রুমেল খান

প্রকাশিত: ০০:৪৭, ৬ ডিসেম্বর ২০২২

ক্রোয়েশিয়া-জাপান ম্যাচে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই

সতীর্থদের সঙ্গে জাপানের গোলদাতা দাইজেন মায়েদা (ডানে)

একদিকে ২৪ নম্বর ফিফা র‌্যাংকিংধারী ও ‘সামুরাই ব্লু’খ্যাত জাপান, অন্যদিকে ১২ নম্বর ফিফা র‌্যাংকিংধারী ও ‘চেকার্ড ওনেস’খ্যাত ক্রোয়েশিয়া। চলমান কাতার বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে যাওয়ার লড়াইয়ে সূর্যোদয়ের দেশ বনাম ইউরোপের দেশের লড়াইয়ে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত দু’দলের খেলাটি নির্ধারিত ৯০ মিনিট শেষে ১-১ গোলে ড্র ছিল। তারপর শুরু হয় অতিরিক্ত সময়ের খেলা। সোমবার রাতে আল ওয়াকরাহ্র আল জানৌব স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ম্যাচের প্রথমার্ধে জাপান এগিয়েছিল ১-০ গোলে।
দু’দল এই ম্যাচের আগ পর্যন্ত পরস্পরের মুখোমুখি হয়েছিল তিনবার। জয়ের পাল্লা দুদলেরই সমান (১-১)। অপর ম্যাচটি ড্র হয়। এর আগে বিশ্বকাপে উভয় দল পরস্পরকে মোকাবিলা করেছিল একবারই। ১৯৯৮ আসরে গ্রুপ পর্বের ওই ম্যাচে জাপানকে ১-০ গোলে হারের স্বাদ দিয়েছিল ক্রোয়েটরা।   
সোমবার দ্বিতীয় রাউন্ডের এই ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই গোল করার সুযোগ নষ্ট করে জাপান। ওয়াতারু এনদো ক্রস করেন। বক্সের মধ্যে ডিফেন্ডার শোগো তানিগুচির হেড অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। ৯ মিনিটে গোলের সুযোগ হারায় ক্রোয়েশিয়াও। তোমিয়াসুর ভুলে বল চলে যায় পেরিসিচের কাছে। কিন্তু ভালো পজিশনে থেকেও গোলরক্ষককে পরাস্ত করতে পারেননি তিনি।

১৩ মিনিটে ডি-বক্সে জাপানের  জুনিয়া ইতোর বাড়ানো বলে পা ছোঁয়াতে ব্যর্থ হন ফরোয়ার্ড দাইজেন মায়েদা। ৪০ মিনিটে দাইচি কামাদার শট গোলপোস্টের  সামান্য ওপর দিয়ে গেলে আাবারও হতাশায় পোড়ে জাপান।
৪৩ মিনিটে অবশেষে গোলের সন্ধান পায় জাপান। কনার পায় তারা। সরাসরি কর্নার কিক না করে ছোট পাস পেয়ে প্রতিপক্ষের বক্সে ক্রস বাড়ান দোয়ান। ইয়োশিদার হেড থেকে বল চলে যায় মায়েদার কাছে। এই ক্রস বিপদমুক্ত করতে পারেননি  করতে পারেননি ক্রোয়েশিয়ার রক্ষণভাগের খেলোয়াড়রা। চমৎকার মাপা শটে জাপানকে এগিয়ে দিয়ে সতীর্থদের সঙ্গে উল্লাসে মেতে ওঠেন দাইজেন মায়েদা (১-০)।
প্রধমার্ধে গোল হজম করলেও সমানতালেই খেলে গত বিশ্বকাপের রানার্সআপ ক্রোয়েশিয়া। তবে বল নিয়ন্ত্রণে ক্রোয়েশিয়াই ছিল এগিয়ে ৫৮ শতাংশ।
৫৫ মিনিটে সমতায় ফেরে ক্রোয়েশিয়া। চমৎকার হেডে ইভান পেরিসিচ গোল করেন (১-১)।
‘ই’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হিসেবে জাপান উঠে আসে এবারের দ্বাবিংশতম আসরের নকআউট স্টেজে। চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানিকে ২-১ এবং ২০১০ আসরের চ্যাম্পিয়ন স্পেনকে ২-১ গোলে হারায়। তবে কোস্টারিকার কাছে ০-১ গোলে হেরে যায়। তারপরও ৩ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে নাম লেখায় শেষ ষোলোতে।
পক্ষান্তরে ‘এফ’ গ্রুপের রানার্সআপ হিসেবে রাউন্ড অব সিক্সটিনের টিকিট পায় ক্রোয়েশিয়া। নিজেদের প্রথম ম্যাচে তারা মরক্কোর সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে হোঁচট খায়। কানাডাকে ৪-১ গোলে হারায়। বেলজিয়ামের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে। ৫ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ রানার্সআপ হয় তারা। চলে যায় দ্বিতীয় রাউন্ডে।
ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ক্রোয়েশিয়ার চেয়ে জাপান পিছিয়ে থাকলেও তারাই এই আসরে একমাত্র দল, যারা গ্রুপ পর্বেই সাবেক দুই বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের হারিয়েছে।

সম্পর্কিত বিষয়:

monarchmart
monarchmart