ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

আজ বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় লুসাইল স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে দুই দল

পর্তুগাল-সুইজারল্যান্ড হাইভোল্টেজ ম্যাচ

জিএম মোস্তফা

প্রকাশিত: ০০:০৯, ৬ ডিসেম্বর ২০২২

পর্তুগাল-সুইজারল্যান্ড হাইভোল্টেজ ম্যাচ

ম্যাচের বড় তারকা পর্তুগীজ সুপারস্টার ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো

বর্তমান বিশ্ব ফুটবলের মহাতারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো। বিশ্ব ক্লাব ফুটবলে সম্ভাব্য সব শিরোপাতেই চুমো এঁকেছেন তিনি। জাতীয় দলের জার্সিতে জিতেছেন উয়েফা নেশন্স লিগও। কিন্তু ক্যারিয়ারে স্বপ্নের বিশ্বকাপের ট্রফিটাই ছোঁয়া হয়নি তার। তাই বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারের গোধূলিবেলায় রোনাল্ডোর হাতে বিশ্বকাপের শিরোপাটা দেখতে চায় তার দেশ পর্তুগাল। সেইপথে টুর্নামেন্টের শেষ ষোলোতে পর্তুগালের প্রতিপক্ষ আজ সুইজারল্যান্ড। বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় লুসাইল স্টেডিয়ামে একে অপরের মুখোমুখি হবে ইউরোপের এই দুই শক্তিশালী দল।
নকআউট পর্বে ইতোমধ্যেই অল-ইউরোপিয়ান লড়াই দেখেছে কাতার বিশ্বকাপ। যেখানে পোল্যান্ডকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করেছে আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। কাতারে আজ দেখা যাবে দ্বিতীয় অল-ইউরোপিয়ান লড়াই। বিশ্বকাপের ২২তম সংস্করণে ফেভারিটের ট্যাগ গায়ে মেেেখই মিশন শুরু করেছিল পর্তুগাল। গ্রুপ পর্বের প্রথম দুই ম্যাচেই টানা দুই জয় তুলে নেয় ফার্নান্দো সান্তোসের দল।

প্রথম ম্যাচে তারা ৩-২ ব্যবধানে পরাজিত করে ঘানাকে। দ্বিতীয় ম্যাচে ২-০ গোলে উড়িয়ে দেয় দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নকে। সেইসঙ্গে এক ম্যাচ হাতে রেখে শেষ ষোলোর টিকিটও নিশ্চিত করে ফেলে রোনাল্ডো-ফার্নান্দেজরা। কিন্তু শেষ ম্যাচেই দক্ষিণ কোরিয়ার কাছে ২-১ গোলে হেরে যায় পর্তুগাল। এই হারের পরও গ্রুপের শীর্ষে থেকে নকআউট পর্বে জায়গা করে নেয় এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপের শিরোপা জিততে না পারা পর্তুগাল।    
এই নিয়ে ৮বার বিশ্বকাপে খেলছে পর্তুগাল। ১৯৬৬ সালে প্রথমবার বিশ্বমঞ্চে প্রতিনিধিত্ব করা দলটির সেরা সাফল্য সেমিফাইনাল। প্রথম আসরেই বাজিমাত করেছিল তারা। দাপুটে পারফর্মেন্সের সৌজন্যে সেবার শেষ পর্যন্ত তিন নম্বরে থেকে টুর্নামেন্ট শেষ করেছিল পর্তুগাল। এরপর চ্যাম্পিয়ন হওয়া তো দূরের কথা শেষ চারের বাধাই অতিক্রম করতে পারেনি তারা। এবার কী অপেক্ষা করছে তাদের সামনে? সেটাই জানা যাবে আজ। তবে দলের সেরা তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো এখন ফর্মহীনতায় ভুগছেন।

এখন পর্যন্ত তার নামের পাশে যোগ হয়েছে কেবলমাত্র একটি গোল। তাও আবার পেনাল্টির সৌজন্যে। এতটাই বাজে সময় যাচ্ছে যে কাতার বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে সবচেয়ে বাজে একাদশেও জায়গা করে নিয়েছেন তিনি! তবে সান্তোসের দল এবার রোনাল্ডো নির্ভর নয়। ব্যালেন্স দল নিয়েই গ্রুপ পর্বের বাধা অতিক্রম করেছে তারা। বিশেষ করে কাতারে দুর্দান্ত খেলছেন ব্রুনো ফার্নান্দেজ। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পর্তুগিজ তারকার ওপর আজও নিশ্চই ভরসা করবেন ফার্নান্দো সান্তোস।

আগেই নক আউট নিশ্চিত হওয়ায় শেষ ম্যাচে সান্তোস ছয়  পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নেমেছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে। তবে আজ আবারও মূল দলে সকলকে ফিরিয়ে আনা হবে বলে জানিয়েছেন পর্তুগিজ কোচ। শেষ ম্যাচে এন্টোনিও সিলভার বিশ^কাপে অভিষেক ঘটেছে। সবচেয়ে কম বয়সী পর্তুগিজ খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বকাপে খেলার রেকর্ড গড়লেন তিনি। চার জনের রক্ষণভাগে রোবেন ডায়াস ফিরছেন।

সঙ্গে ডিয়োগো ডালট তো থাকছেনই। এছাড়া অধিনায়ক রোনাল্ডোর সঙ্গে আন্দ্রে সিলভা ও গঞ্জালো রামোসের থাকাও নিশ্চিত। ইনজুরির কারণে পুরো বিশ^কাপ থেকে ছিটকে গেছেন নুনো মেনডেস। পাঁজরের হাড়ে চিড় ধরা ডানিলো সাইডলাইনে। ফিটনেস শঙ্কা ওটাভিওকে নিয়েও।  
এদিকে সুইজারল্যান্ড এবার নিয়ে ১২ বার খেলছে বিশ্বকাপে। কিন্তু তাদের সেরা সাফল্য কেবল কোয়ার্টার ফাইনাল। ১৯৩৪, ৩৮ এবং ৫৪ বিশ্বকাপের শেষ আটে জায়গা করে নিয়েছিলেন তারা। এখন পর্যন্ত এটাই তাদের বিশ্বকাপে সেরা সফলতা। এবার অতীত ইতিহাস বদলাতে মরিয়া সুইসরা। তাছাড়া সাম্প্রতিক বেশ কিছু সাফল্য তাদের নতুন করে স্বপ্ন দেখাচ্ছে।

পর্তুগালের বিপক্ষে নিজেদের সেরাটা ঢেলে দেওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন দলটির সেরা তারকা জার্দান শাকিরি। তিনি বলেন, ‘আমার মতে, পুরোপুরি ভিন্ন একটি ম্যাচ হতে যাচ্ছে এটি, কারণ এটি কোনো প্রীতি ম্যাচ নয়, নেশন্স লিগের ম্যাচ নয়। এখানে চাপ বেশি থাকে, তাই খেলোয়াড়রা কীভাবে এই চাপ সামলায়, সেটাই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের বিশেষ পারফরম্যান্স দরকার।

সত্যি বলতে, পর্তুগাল ভালো দল, আমার মতে এই ম্যাচে তারা ফেভারিট। তবে আমাদের সামর্থ্যও আমরা জানি। এই ম্যাচে আমরা ভালো, স্পেশাল পারফরম্যান্স দেখানোর চেষ্টা করব এবং তাদের সমস্যায় ফেলার চেষ্টা করব।’
ক্যামেরুনের বিপক্ষে ড্র করে মিশন শুরু করেছিল সুইজারল্যান্ড। দ্বিতীয় ম্যাচে ব্রাজিলের কাছেও হেরে যায় তারা। কিন্তু শেষ ম্যাচে সার্বিয়াকে হারিয়ে নাটকীয়ভাবেই উরুগুয়েকে বিদায় করে নকআউট পর্বে জায়গা করে নেয় সুইজারল্যান্ড। পর্তুগালের বিপক্ষে অভিজ্ঞ গোলরক্ষক ইয়ান সোমারের পুনরায় মূল দলে ফেরার আশা করছে সুইজারল্যান্ড। অসুস্থতার কারণে শেষ ম্যাচটি খেলতে পারেননি তিনি। এছাড়া অপরিবর্তিত দল নিয়েই সুইসদের মাঠে নামার সম্ভাবনা বেশি। এখন পর্যন্ত পর্তুগাল এবং সুইজারল্যান্ড একে অপরের মুখোমুখি হয়েছে মোট ২৫ বার। এই সময়ে পর্তুগালের জয় ৯ ম্যাচে। সুইজারল্যান্ডের জয়সংখ্যা ১১। বাকি পাঁচটি ম্যাচের ফলাফল ড্র। উয়েফা নেশন্স লিগে গত জুনে পর্তুগালের মাঠে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছিল সুইসরা। যদিও নিজেদের মাঠে ফিরতি লড়াইয়ে তারা জিতেছিল ১-০ গোলে।

সম্পর্কিত বিষয়:

monarchmart
monarchmart