ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ওলামা লীগের সভায় কাদের

বিএনপি নয়, অপরাধী হিসেবে জেলে পাঠানো হচ্ছে

বিশেষ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৩:১৩, ২০ মে ২০২৪

বিএনপি নয়, অপরাধী হিসেবে জেলে পাঠানো হচ্ছে

ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপির কোনো নেতাকর্মীকে বিএনপি হিসেবে নয়, অপরাধী হিসেবে জেলে পাঠানো হয়েছে। অপরাধীদের কোনো দল নেই। তারা দুর্বৃত্ত, তারা সন্ত্রাসী। বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ হাসিনা- আমাদের পবিত্র ধর্ম ইসলামের জন্য এবং এর বিকাশে যে অবদান রেখেছেন, যেসব প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন বাংলাদেশে অন্য কোনো শাসক সে তুলনায় কিছুই করেননি।
সোমবার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভায় বিএনপি নেতাদের অভিযোগের জবাব দিতে তিনি এসব কথা বলেন। আওয়ামী ওলামা লীগের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

ওলামা লীগের সভাপতি কে এম আব্দুল মমিন সিরাজীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল মোস্তফা বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মো. আমিনুল হক। অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের জানান, দুর্মূল্যের বাজারে মেহেনতি মানুষের দুঃখ-দুর্দশা এবং বর্তমান বিশ্ব পরিস্থিতি বিবেচনা করে ঢাকা সিটি এলাকায় ব্যাটারিচালিত রিকশা চালু রাখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আমরা নতুন নীতিমালা নিয়ে আসছি। জীবিকা আগে না জীবন আগে। যদি ট্রাক ও বাসের সঙ্গে ইজিবাইকের সংঘর্ষ হয় তাহলে বাসের কারো কিছু হয় না। ইজিবাইকের ড্রাইভারসহ দশ থেকে বারো যাত্রীর সবাই নিহত হন। এই অবস্থায় ২২টি মহাসড়কে আমরা ইজিবাইক বন্ধ করেছি।
ওলামা লীগে ধর্মের নামে ‘ধর্ম ব্যবসা’ চলবে না মন্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, ওলামা লীগে চাঁদাবাজদের স্থান নেই।

ধর্মের নামে ব্যবসা চলবে না। আওয়ামী লীগের সঙ্গে কাজ করতে হলে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ মেনে চলতে হবে। শেখ হাসিনার সৎ রাজনীতিকে অনুসরণ করতে হবে। ফ্রি স্টাইলে যা খুশি বলবেন- এ রকম লোকের আমাদের দরকার নেই।
ওলামা লীগের ইতিহাস আওয়ামী লীগের জন্য খুব সুখকর নয় মন্তব্য করে দলটির সাধারণ সম্পাদক বলেন, অতীতে যা দেখেছি কারো সঙ্গে কারো মিল  নেই। নেতায় নেতায় বিভেদ। দলের আদর্শ পরিপন্থি সাম্প্রদায়িক বক্তব্য দিতে দেখেছি অনেককে। আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের কেউ এমন কিছু করবে, সেটা আশা করি না। নেতায় নেতায় বিভেদ আর চাই না। সত্যিকারের ওলামা দিয়ে সংগঠন করতে হবে। কোনো টাউট-বাটপার যেন অনুপ্রবেশ করতে না পারে সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।

তিনি বলেন, যেখানে সম্মেলন সেখানেই কমিটি করতে হবে। দেরি হলে কলহ বাড়ে, মতভেদ বাড়ে। শেষ পর্যন্ত সে কমিটি অনিশ্চয়তায় পড়ে যায়। আমাদের দলের শৃঙ্খলা মেনে ওলামা লীগ করতে হবে। দলবিরোধী কোনো কাজ করলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা থেকে কেউ রেহাই পাবে না।
বিএনপি-জামায়াত এখন ইহুদিদের দোসরে পরিণত হয়েছে মন্তব্য করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, জিয়া-এরশাদ-খালেদা জিয়া কেউই আলেমদের দাবি পূরণ করেনি।

বিএনপি এবং তাদের দোসররা আলেম-ওলামাদের ধর্মীয় অনুভূতি নিয়ে রাজনীতি করেছে এবং তাদের ব্যবহার করেছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলেম-ওলামাদের ব্যবহার করেন না, তাদের জন্য কাজ করেন। ১ লাখ ২০ হাজার মসজিদভিত্তিক মক্তব  তৈরি করেছেন। পৃথিবীর কোনো দেশে একসঙ্গে সরকারি অর্থে এত দৃষ্টিনন্দন মসজিদ  তৈরি হয়নি।

×