ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ফারদিনের মৃত্যু 

বান্ধবী বুশরার জামিন আদেশ রবিবার

প্রকাশিত: ১৯:২৫, ৫ জানুয়ারি ২০২৩

বান্ধবী বুশরার জামিন আদেশ রবিবার

ফারদিন ও বুশরা

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী ফারদিন নূর পরশের (২৪) মৃত্যুর ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় গ্রেপ্তার আমাতুল্লাহ বুশরার জামিন আবেদনের ওপর শুনানি শেষ হয়েছে। শুনানি শেষে আদেশের জন্য আগামী রবিবার দিন ধার্য করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার ৭ম অতিরিক্ত ঢাকা মহানগর দায়রা জজ তেহসিন ইফতেখারের আদালত নতুন এ দিন ধার্য করেন। বুশরার আইনজীবী এ কে এম হাবিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

এর আগে তিনি জানিয়েছিলেন, গত ৩০ নভেম্বর ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে বুশরার জামিনের জন্য আবেদন করেছি। আবেদন গ্রহণ করে শুনানির জন্য আজকের দিন ধার্য করেছিলেন আদালত। 

ফারদিনকে খুন করা হয়েছে দাবি করে রামপুরা থানায় দায়ের করা মামলায় ‘হত্যা করে লাশ গুম’ করার অভিযোগ আনেন ফারদিনের বাবা নূর উদ্দিন। সেই মামলায় এক নম্বর আসামি করা হয় বান্ধবী আমাতুল্লাহ বুশরাকে। ১০ নভেম্বর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পাঁচ দিন রিমান্ডের পর এখন তিনি কারাগারে আছেন।

মামলার অভিযোগে ফারদিনের বাবা নূর উদ্দিন রানা বলেন, ফারদিনকে রামপুরা এলাকায় বা অন্য কোথাও হত্যাকারীরা পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। এ হত্যার পেছনের তার বান্ধবী আমাতুল্লাহ বুশরার ইন্ধন রয়েছে। 

গত ৭ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদী থেকে ফারদিনের মরদেহ উদ্ধার করে নৌ-পুলিশ। এরপর এক মাসের বেশি সময় তদন্তের পর তদন্তকারী ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ও ছায়া তদন্তকারী সংস্থা র‌্যাব জানিয়েছে, ফারদিন ব্রিজ থেকে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। ফারদিন যে আত্মহত্যা করেছে এবং এ ঘটনায় বুশরার যে সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়নি, তা চার্জশিটে উল্লেখ করে আদালতকে অবহিত করা হবে বলে ডিবি জানিয়েছে। তবে র‌্যাব ও ডিবির তদন্তে ফারদিনের আত্মহত্যার বিষয়টি উঠে আসার পরও দীর্ঘদিন ধরে জেলেই রয়েছে বুশরা। তার পরিবারের দাবি, ফারদিনের মৃত্যুর ঘটনায় বুশরা জড়িত নয়। তাই তার জামিন দাবি করছেন তারা। 
 

ফজলু

সম্পর্কিত বিষয়:

×