ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯

হাইকোর্ট

দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষের তথ্যের সঙ্গে সুইস দূতের বক্তব্য সাংঘর্ষিক

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২১:৫২, ১৪ আগস্ট ২০২২

দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষের তথ্যের সঙ্গে সুইস দূতের বক্তব্য সাংঘর্ষিক

.

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এবং রাষ্ট্রপক্ষ আদালতে যে বক্তব্য উপস্থাপন করেছে তার সঙ্গে সুইস রাষ্ট্রদূতের বক্তব্য সাংঘর্ষিকসুইস ব্যাংকে বাংলাদেশী ব্যক্তিদের অর্থ রাখার বিষয়ে রাষ্ট্রদূতের বক্তব্যের বিষয়ে বিচারপতি মোঃ নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াত সমন্বয়ে গঠিত একটি হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ রবিবার এ মন্তব্য  করেনএদিকে সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশী ব্যক্তিদের অর্থ রাখার বিষয়ে তথ্য জানাতে সর্বমোট তিন বার চিঠি দেয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের ফিন্যান্সিয়াল ইন্টিলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)রবিবার বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টিলিজেন্স ইউনিটের এক সূত্র থেকে এ তথ্য জানা গেছেসুইজারল্যান্ডে সুইস ব্যাংকে অর্থ জমাকারী বাংলাদেশীদের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য চাওয়া হয়নি বলে দেশটির রাষ্ট্রদূতের দেয়া বক্তব্য সঠিক নয় বলে উল্লেখ করেছে দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষরাষ্ট্রপক্ষ ও দুদকের আইনজীবী তথ্যসহ এসব কথা বলেনএকই সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকে অবৈধভাবে অর্থ জমাকারী বাংলাদেশীদের বিষয়ে বিএফআইইউর মাধ্যমে তথ্য চাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষ

আদালতে দুদকের পক্ষে বক্তব্য উপস্থাপন করেন সিনিয়র এ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খানরাষ্ট্রপক্ষে বাংলাদেশ ফিনান্সিয়াল ইন্টিলিজেন্স ইউনিটের বক্তব্য তুলে ধরেন ডেপুটি এ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিকগত ১০ আগস্ট (বুধবার) জাতীয় প্রেসক্লাবে ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্টস এ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (ডিকাব) আয়োজিত ডিকাব টকঅনুষ্ঠানে ঢাকায় নিযুক্ত সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত নাথালি শুয়ার্ড বলেছেন, সুইস ব্যাংকে জমা রাখা অর্থের বিষয়ে বাংলাদেশ সরকার সুনির্দিষ্ট কোন ব্যক্তির জন্য তথ্য চায়নিরাষ্ট্রদূতের বক্তব্যে গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন গত বৃহস্পতিবার ১১ আগস্ট নজরে নিয়ে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদককে বিষয়টি নিয়ে তথ্য জানাতে বলেছে হাইকোর্টএরপর আদালত এ বিষয়ে লিখিত আকারে দাখিলের জন্য নির্দেশ দিয়ে পরবর্তী আদেশের জন্য ২১ আগস্ট দিন ধার্য করে

সুইস ব্যাংকের কাছে তথ্য চেয়ে ৩ বার চিঠি দিয়েছিলবাংলাদেশ ব্যাংক সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশী ব্যক্তিদের অর্থ রাখার বিষয়ে তথ্য জানাতে সর্বমোট তিনবার চিঠি দেয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের ফিন্যান্সিয়াল ইন্টিলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)রবিবার বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টিলিজেন্স ইউনিটের এক সূত্র থেকে এ তথ্য জানা গেছে