ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ০২ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

চার গ্রামের মানুষের পারাপারে ভরসা বাঁশের সাঁকো

প্রকাশিত: ০৩:৫৩, ২৮ নভেম্বর ২০১৬

চার গ্রামের মানুষের পারাপারে ভরসা বাঁশের সাঁকো

নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ, ২৭ নবেম্বর ॥ সদরের বিন্নাটী-রামপুর বাজার সংযোগস্থল নরসুন্দা নদীর ওপর নির্মিত বাঁশের সাঁকোই সাধারণের একমাত্র যাতায়াতের ভরসা। এলাকাবাসীর উদ্যোগে দীর্ঘদিন ধরে স্বেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমে তৈরি এ সাঁকো দিয়েই বিন্নাটী ইউনিয়নের ধনাইল, কুট্টাঘর ও কামালিয়ারচর গ্রামের হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে। এছাড়া প্রতিদিন ব্যবসায়ী ছাড়াও স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সংযোগস্থলের রাস্তা সাঁকো দিয়ে পারাপার করতে বাধ্য হচ্ছে। এ কারণে প্রায়ই ঘটে থাকে ছোটখাটো দুর্ঘটনা। এ বিষয়ে গ্রামবাসীসহ স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে লিখিত আবেদন জানিয়েও কোন ফল হয়নি। জানা গেছে, জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের সংসদীয় আসন কিশোরগঞ্জের বিন্নাটী ইউনিয়নের ধনাইল, কুট্টাঘর, কামালিয়ারচর ও হোসেনপুর উপজেলার পুমদী ইউনিয়নের রামপুর বাজার আশপাশের যাতায়াতের সুবিধার্থে অনেক বছর আগে স্থানীয়দের উদ্যোগে বাঁশের সাঁকো তৈরি করা হয়। নরসুন্দা নদীর ওপর নির্মিত এ সাঁকো স্বেচ্ছাশ্রমে দীর্ঘদিন ধরে এলাকাবাসীই তৈরি করে আসছে। এ বিষয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের দৃষ্টিগোচর না হওয়ায় জনমনে ক্ষোভ বিরাজ করছে। সরেজমিন দেখা যায়, একটিমাত্র সেতুর অভাবে শিক্ষার্থীরা ঝুঁকি নিয়ে সাঁকো পার হয়ে পার্শ¦বর্তী হোসেনপুরের রামপুর বালিকা হোসাইনিয়া দাখিল মাদ্রাসা, এসআরটি স্কুল এ্যান্ড কলেজসহ অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যায়। বিন্নাটী ইউপি চেয়ারম্যান আজহারুল ইসলাম বাবুল জানান, নরসুন্দা নদীর ওপর জনগুরুত্বপূর্ণ এ সেতুটি নির্মাণের জন্য ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় অনেক নেতার সঙ্গে কথা হয়েছে। এ ব্যাপারে যথাযথ কর্তৃপক্ষকে ইতোমধ্যে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। খুব শীঘ্রই এটি নির্মাণে সংশ্লিষ্টরা এগিয়ে আসবেন।
×