ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১

ঠাট্টা করে স্ত্রীকে যে ৫ কথা বলা যাবে না

প্রকাশিত: ১১:৪০, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩

ঠাট্টা করে স্ত্রীকে যে ৫ কথা বলা যাবে না

ঠাট্টা করে স্ত্রীকে যে কথাগুলো কখনোই বলবেন না।

ঠাট্টা বা রসিকতা নারীরা পছন্দ করে ঠিকই কিন্তু কিছু কিছু কথা যেন তীরের ফলার মতো। যা আহত করে। দগ্ধ করে। জেনে নিন, ঠাট্টা করে স্ত্রীকে যে কথাগুলো কখনোই বলবেন না।
   
​১. তোমার বাবার মতো খারাপ লোক নেই​
নারীদের কাছে তাদের বাবারা হলেন সুপার হিরো। তাই তাদের নিয়ে কথা বলার আগে সচেতন হন। এমন কী মজা করেও তাদের নামে খারাপ কথা বলতে যাবেন না। তখন ঠেলা সামলাতে পারবেন না। তাই আজ থেকে নিজের মুখে লাগাম টানার চেষ্টা করুন।

​২. তুমি মোটা হয়ে যাচ্ছ​
মজা করেও স্ত্রীকে মোটা বলবেন না। এটা এক ধরনের বডি শেমিং। বডি শেমিং সব সময়ই নিন্দনীয়। সে যতই আপনি নিজের স্ত্রীকে বলুন না কেন। মনে রাখবেন, স্বামীর মুখে এহেন নিন্দাবাক্য শোনার পর স্ত্রীর মন থেকে ভালোবাসার প্রতিও বিশ্বাস উঠে যায়।

​৩. তুমি বেশি বোঝো​
তুমি বেশি বোঝো- এই কথাটা বলার পরই দেখবেন স্ত্রীর মুখ ভার হয়ে গেছে। তিনি আপনার সঙ্গে একটা কথাও বলবেন না। এমন কী আপনার সঙ্গে এক ছাদের তলায় থাকতেও তিনি নারাজ হতে পারেন। তাই তো স্ত্রী সব বিষয়ে কথা বললেও, তাকে কটাক্ষ করতে যাবেন না। বরং চুপচাপ তার কথা শুনতে থাকুন। এতেই দাম্পত্যে স্থিতাবস্থা বজায় থাকবে।

৪. দুই পয়সা কামিয়ে দেখাও তো দেখি​
অনেক সময় স্বামীরা ঝোঁকের বশেই স্ত্রীকে এই কথাটা বলে দেন। হয়তো তারা কথাটা এভাবে বলতে চান না, তবে মুখ ফসকে বলে ফেলেন। আর তাতেই স্ত্রীর মনে তৈরি হয় ঘূর্ণিঝড়। আর এই ঝড়ের কবলে পড়ে ছিন্নভিন্ন হয়ে যায় সংসারের চেনা পরিসর। তাই আর যাই করুন না কেন, স্ত্রীর উপার্জন নিয়ে হাসি-ঠাট্টা করা চলবে না। নইলে যে ফেঁসে যাবেন।

​৫. তোমার মতো অলস দেখিনি​
নারীরা অলস অপবাদ ঘুনাক্ষরেও শুনতে চান না। বিশেষত, স্বামীর মুখ থেকে এই শব্দটা শুনলে তারা বিশেষভাবে চটে যান। এমনকি তাদের গ্রাস করে হিনমন্যতা। তাই সংসারকে সুস্থভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ইচ্ছে থাকলে স্ত্রীকে রসিকতার ছলেও এই কথা বলবেন না। নইলে যে বড় ফাঁসা ফেঁসে যেতে হবে। এমনকি শান্ত দাম্পত্যে হানা দিতে পারে জটিল সমস্যা। তাই সাবধান হন।

এসআর

×