ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১

সংঘর্ষের মাঝেই সুদানে বাড়ল অস্ত্রবিরতি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ২০:৪৪, ৩০ মে ২০২৩

সংঘর্ষের মাঝেই সুদানে বাড়ল অস্ত্রবিরতি

সুদানের রাজধানী খার্তুমের দক্ষিণ অঞ্চলে দুই জেনারেলের অনুগত বাহিনীর মধ্যে অব্যাহত লড়াইয়ের ফলে ধোঁয়া উড়ছে

উত্তর আফ্রিকার দেশ সুদানে সামরিক বাহিনীর সঙ্গে দেশটির আধা-সামরিক বাহিনীর সংঘাত বন্ধে অস্ত্রবিরতির মেয়াদ বাড়তে রাজি হয়েছে উভয়পক্ষ। আগের যুদ্ধবিরতি শেষ হওয়ার ঠিক আগে নতুন করে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ার খবরের মধ্যেই অস্ত্রবিরতি চুক্তির মেয়াদ উভয়পক্ষ আরও পাঁচ দিনের মেয়াদ বাড়াতে সম্মত হয়। মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সুদানের যুদ্ধরত সামরিক দলগুলো সোমবার অস্ত্রবিরতি চুক্তির মেয়াদ আরও পাঁচ দিনের জন্য বাড়াতে সম্মত হয়েছে। অবশ্য রাজধানী খার্তুমে নতুন করে ভারি সংঘর্ষ ও বিমান হামলার পর মানবিক সংকট কমানোর জন্য পরিকল্পিত এই অস্ত্রবিরতি কার্যকারিতা নিয়ে আগেই সন্দেহ সৃষ্টি হয়েছিল।
এর আগে সৌদি আরব ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় এক সপ্তাহব্যাপী অস্ত্রবিরতি চুক্তি করেছিল সুদানের সেনাবাহিনী ও আধা-সামরিক বাহিনী। সোমবার সন্ধ্যায় সেই অস্ত্রবিরতির মেয়াদ শেষ হওয়ার কিছুক্ষণ আগে যুদ্ধরত পক্ষগুলো এটির মেয়াদ বাড়াতে সম্মত হয়েছে বলে ঘোষণা করা হয়।
রয়টার্স বলছে, যদিও আগের অস্ত্রবিরতি অসম্পূর্ণভাবে পালন করা হয়েছিল, তারপরও আনুমানিক ২০ লাখ মানুষকে ওই এক সপ্তাহে সহায়তা বিতরণের সুযোগ দেওয়া হয়েছিল বলে দুই দেশ এক যৌথ বিবৃতিতে বলেছে।
সৌদি আরব ও যুক্তরাষ্ট্রের ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘অস্ত্রবিরতির মেয়াদ আরও বৃদ্ধির ফলে দুর্গতদের আরও মানবিক সহায়তা, প্রয়োজনীয় পরিষেবা পুনরুদ্ধার এবং দীর্ঘমেয়াদে যুদ্ধ বন্ধের বিষয়ে আলোচনার জন্য আরও সময় পাওয়া যাবে।’
জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি) বলেছে, সংঘাতের শুরুর পর গত শনিবার থেকে তারা রাজধানী খার্তুমে প্রথম খাদ্য বিতরণ করতে পেরেছে। নতুন চুক্তির বিষয়ে অবগত এমন বেশ কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে, অস্ত্রবিরতিকে আরও কার্যকর করতে চুক্তিতে সংশোধনী নিয়ে আলোচনা অব্যাহত রয়েছে।

×