ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯

ঘূর্ণিঝড় ডেবি ॥ নিরাপদ স্থানে সরে যাচ্ছে অস্ট্রেলীয়রা

প্রকাশিত: ০৪:১৫, ২৮ মার্চ ২০১৭

ঘূর্ণিঝড় ডেবি ॥ নিরাপদ স্থানে সরে যাচ্ছে অস্ট্রেলীয়রা

শক্তিশালী একটি ঘূর্ণিঝড় এগিয়ে আসার মুখে অস্ট্রেলিয়ার উত্তরাঞ্চল থেকে স্থানীয় বাসিন্দারা সরে যেতে শুরু করেছে। ডেবি নামের এ ঘূর্ণিঝড়টি ২৩০ কিলোমিটার/ঘণ্টা বাতাসের বেগ নিয়ে দেশটির কুইন্সল্যান্ড উপকূলের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকালের দিকে উপকূলে আঘাত হানার সময় ডেবি চতুর্থ ক্যাটাগরির ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। খবর বিবিসির। চতুর্থ ক্যাটাগরির ঘূর্ণিঝড় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ তীব্রতাসম্পন্ন হয়ে থাকে। ডেবির ধ্বংসাত্মক কেন্দ্রস্থলটি ১০০ কিলোমিটারেরও বেশি বিস্তৃত হতে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে। আবহাওয়াজনিত কারণে এরই মধ্যে একটি গাড়ি দুর্ঘটনায় এক ব্যক্তি মারা গেছেন। তারপরও ঘূর্ণিঝড়টি যে পথে যাওয়ার কথা সেখানকার কিছু লোক ঘরবাড়ি ছেড়ে যেতে অস্বীকার করেছে। কুইন্সল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী আন্তাসিয়া পালাসে সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ‘আমি সবার প্রতি সনির্বন্ধ অনুরোধ জানাচ্ছি, অনুগ্রহ করে আপনারা কর্তৃপক্ষের কথা শুনুন। আপনাদের যা ভাল হবে আমি তাই করব। এটি আপনার নিরাপত্তার বিষয়, আপনার পরিবার এবং আপনার সন্তানদের নিরাপত্তার বিষয়।’ ২০১১ সালে কুইন্সল্যান্ড আঘান হানা প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় ইয়াসিকে ডেবি ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে সতর্ক করেছেন তিনি। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল ৭টার পর ঘূর্ণিঝড়টি উপকূল রেখা অতিক্রম করে কূইন্সল্যান্ডের টাউনসভিল থেকে প্রোসারপাইন এলাকার ২৬৫ কিলোমিটার এলাকার মধ্যে কোন এক জায়গায় স্থলে আঘাত হানবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। অস্ট্রেলিয়ার আবহাওয়া ব্যুরোর স্থানীয় পরিচালক ব্রুস গুন ওই এলাকার বাসিন্দাদের সতর্ক করে জানিয়েছেন, ভরা জোয়ারের সময় ডেবি উপকূলে আঘাত হানতে পারে, এতে আট মিটারের চেয়েও উঁচুঁ জলোচ্ছ্বাসে উপকূলের নিচু এলাকাগুলো ভেসে যেতে পারে। অনেক দেরি হয়ে যাওয়ার আগেই লোকজনকে ঘরবাড়ি ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন পুলিশ কমিশনার আয়ান স্টুয়ার্ট। লোকজন ঘূর্ণিঝড়ের জন্য প্রস্তুতি নেয়ায় সুপার মার্কেটগুলো প্রায় পণ্যহীন হয়ে পড়েছে। কুইন্সল্যান্ডের কর্তৃপক্ষ ১০২টি স্কুল, ৮১টি শিশু নিকেতন এবং দুটি বন্দরের কার্যক্রম বন্ধ রেখেছে।