ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯

বয়োসন্ধিকালীন সমস্যা

ডা. মোঃ দেলোয়ার হোসেন

প্রকাশিত: ০১:৪৭, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২

বয়োসন্ধিকালীন সমস্যা

বয়োসন্ধিকালীন সমস্যা

আমরা প্রত্যেক অভিভাবকই উদ্বিগ্ন থাকি কোন মতে যেন টিন এজ বয়সটা ভালভাবে পার করা যায়। আসলে উদ্বিগ্ন হওয়ার কি কোন কারণ আছে তা নিচের আলোচনা থেকে বুঝতে সক্ষম হব।
কি কি পরিবর্তন বা কি করণীয় এই সময়ে-
১. হঠাৎ করে শরীরের গঠনের পরিবর্তন।
২. হরমনের কারণে পরিবর্তন
৩. আবেগের পরিবর্তন
৪. চাওয়া-পাওয়ার পরিবর্তন।
অন্যতম আত্মহত্যা ৩য় কারণ এই বয়সে মৃত্যুর অন্যতম কারণ। ছেলেদের ৫ গুণ বেশি আত্মহত্যা করে কিন্তু মেয়েরা বেশি চেষ্টা করে। বিগত ২ দশকে আত্মহত্যা বেড়ে গেছে অনেকগুণ। সাইকোলজিস্টদের ব্যখ্যা মতে পড়াশোনার সামাজিক চাপ, মদ্যপান, নেশা করা ও পারিবারিক অশান্তি আগের তুলনায় অনেকগুণ বেড়ে গেছে। এগুলোই এর পেছনে মূল কারণ।
১. অফড়ষবংপবহপব বমড়পবহঃৎরংস তৈরি হয়। নিজের মতো করে পৃথিরীকে দেখতে চায় ব্যাখ্যা করতে চায়, নিজেকে মনে করে অথোরিটি ফিগার। অন্যের সমালোচনা গ্রহণ করতে চায় না, অন্যের ভুল ধরতে চায়, তাদের মধ্যে ভাবনা আসে সবাই যেন তাদের দিকে মনোযোগ দেবে তারা হলো সেন্টার অফ এ্যাটেনশন
২. ভেতরে এক ধরনের সামুদ্রিক ঝড়ের মতো হয় যা তাদের নিজেকে উপস্থাপন করা প্রতিযোগিতায় ছেড়ে দেয়  অজানাকে জানার আগ্রহ কৌতূহল এই কৌতূহলই এর আকর্ষণের মূল কারণ এই কৌতূহলের কারণে অনেকে নেশায় আসক্ত হতে পারে দেখি না একটু খেয়ে কেমন লাগে এই কৌতূহলের কারণে নেশায় আসক্ত হয়ে যায় এবং বিপথগামী হতে থাকে।
৩. জবনবষষরঁস ইধষবহপ করা
৪. মোটরকার চালানো, অস্বাভাবিকভাবে, যত্রতত্র উচ্চগতিতে গাড়ি চালানো।
৫. হিতাহিত জ্ঞান থাকে না কি করছে কি পরিণতি।
৬. অনেক ছেলে-মেয়েদের প্রেমে পড়ে যায়।
৭. বাবার সঙ্গে কনফ্লিক্ট এর কারণে হঠাাৎ আচার-ব্যবহারের পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। এতে করে অনেকে জেদ করে  স্কুলে যাওয়াই বন্ধ করে দেয়। তারপর লেখাপড়াই বন্ধ হয়ে যায়। আবার একগ্রুপ দেখা যায়। খুব অশোভনীয় আচরণ করতে দ্বিধা করে না।
৮. মানিয়ে নিতে পারে না।
কখন বাবা-মা বেশি চিন্তিত হবেন-
১. সন্তান যদি বেশ কিছুদিন স্কুলে অনুপস্থিত থাকে, আগে পরীক্ষায় বেজায় স্কুল থেকে পালায়। রেজাল্ট খারাপ হওয়া।
২. বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয়-স্বজন, বাবা-মা সবার কাছ থেকে নিজেকে গুটায়ে নেয়া।
৩. এসব ছেলে-মেয়েরা খাবার খাচ্ছে না। অথবা বেশি বেশি খাবার খাচ্ছে।
৪. বার বার দুর্ঘটনায় পড়ছে, খারাপ আচরণ করছে। যেমনÑ নিজের ভুলের কারণে বার বার দুর্ঘটনায় পতিত হয়।
৫. তখন বাবা-মাকে অবশ্যই ভাবতে হবে কি?
কোন কোন কিশোর-কিশোরীরা আত্মহত্যা করত পারে-
আত্মহত্যা জীবনের এমন একটি ঘটনা যা একটি চেষ্টা/একটি প্ল্যান/ একটি আবেগই যথেষ্ট।

 লেখক : সহযোগী অধ্যাপক
জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট
যোগাযোগ : ৯৫৬১৭৮৬