ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ভারতে ‘পদ্মশ্রী’ সম্মাননা পেলেন বন্যা

প্রকাশিত: ১৩:২৭, ২৩ এপ্রিল ২০২৪

ভারতে ‘পদ্মশ্রী’ সম্মাননা পেলেন বন্যা

রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর হাত থেকে পদ্মশ্রী গ্রহণ করছেন রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা

ভারতের চতুর্থ সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা ‘পদ্মশ্রী’ গ্রহণ করলেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত রবীন্দ্র সংগীতশিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা। সোমবার (২২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় দিল্লিতে ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর হাত থেকে এ পুরস্কার গ্রহণ করেন তিনি।

এদিকে ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশন তাঁদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে এক পোস্টে জানায়, রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু অধ্যাপক (ড.) রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যাকে শিল্পকলায় পদ্মশ্রী পদক প্রদান করেছেন। তিনি বাংলাদেশের একজন দক্ষ পেশাদার সংগীতশিল্পী, রবীন্দ্রসংগীতের একজন নিবেদিতপ্রাণ অনুশীলনকারী। তিনি মহাত্মা গান্ধীর ১৫০তম জন্মবার্ষিকী স্মরণে ‌‘বৈষ্ণব জন তো’ গেয়েছিলেন। 

ঘরোয়া আনুষ্ঠানিকতাতেই সীমাবদ্ধ এবারের বর্ষবরণঘরোয়া আনুষ্ঠানিকতাতেই সীমাবদ্ধ এবারের বর্ষবরণ
ভারতের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা হচ্ছে ‘ভারতরত্ন’। তারপরই রয়েছে ‘পদ্মবিভূষণ’, ‘পদ্মভূষণ’ ও ‘পদ্মশ্রী’। নানা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ এই পুরস্কারগুলো প্রদান করা হয়ে থাকে।

এ বছর দেশটির সরকার বিভিন্ন ক্ষেত্রে ১৩২ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে পদ্মশ্রী সম্মাননার জন্য মনোনীত করেছে। তাঁদের মধ্যে পাঁচজন পদ্মবিভূষণ, ১৭ জন পদ্মভূষণ আর ১১০ জন পদ্মশ্রী সম্মাননা পেয়েছেন।

এর আগে চলতি বছরের জানুয়ারির শেষদিকে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে এবারের পদ্মশ্রী পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের তালিকা প্রকাশ করে।

প্রসঙ্গত, রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা রবীন্দ্রসংগীত ছাড়াও ধ্রুপদী, টপ্পা ও কীর্তন গানের ওপর শিক্ষা লাভ করেছেন। প্রাথমিক অবস্থায় তিনি ‘ছায়ানট’ এবং পরে ভারতের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন। বুলবুল ললিতকলা একাডেমিতেও পড়াশোনা করেছেন। তিনি ‘সুরের ধারা’ নামের একটি সংগীত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু করেন।

এবি 

সম্পর্কিত বিষয়:

×