ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

কুসুম একের মধ্যে তিন

এনআই বুলবুল

প্রকাশিত: ০০:৫২, ৩০ নভেম্বর ২০২৩

কুসুম একের মধ্যে তিন

কুসুম শিকদার

জনপ্রিয় অভিনেত্রী কুসুম শিকদার। নতুন সিনেমার কাজ নিয়ে বেশ ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। দীর্ঘদিন পর আবারও বড়পর্দায় আসছেন অভিনেত্রী। চলতি বছরেই সিনেমার সব কাজ শেষ করে তিনি নতুন বছরে ‘শরতের জবা’ মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা করছেন। পর্দায় এ গ্ল্যামারকন্যাকে দেখার জন্য তাই দর্শকদের আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। সিনেমাটি একইসঙ্গে অভিনয়-পরিচালনা ও প্রযোজনা করছেন ‘শঙ্খচিল’খ্যাত নায়িকা। এটির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন তিনি। এ ছাড়া এতে আরও আছেন ইয়াশ রোহান, শহীদুল আলম সাচ্চু, নিদ্রা দে নেহা ও জিতু আহসানসহ অনেকে।

সিনেমাটি নিয়ে কুসুম বলেন, গেল বছর থেকে সিনেমাটির কাজ করছি। এখন পোস্টের কাজ করা হচ্ছে। সব কিছু আমাকেই দেখতে হচ্ছে। পাঁচ বছর পর দর্শক এ সিনেমার মাধ্যমে আমাকে পর্দায় দেখবে। অনেকটা নিজের সঙ্গে চ্যালেঞ্জ নিয়েই কাজটি করেছি। এটির গল্পতে ভৌতিক, রহস্য ও রোমাঞ্চকর সবই থাকে। এ অভিনেত্রীকে সর্বশেষ পর্দায় দেখা গেছে ২০১৮ সালে।  সে সময় তিনি হানিফ সংকেতের ‘শেষ অশেষের গল্প’ নাটকে অভিনয় করেন। এর আগে ২০১৬ সালে তাকে গৌতম ঘোষের ‘শঙ্খচিল’ সিনেমায় দেখা যায়। এতে তিনি ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা প্রসেনজিতের সঙ্গে পর্দা ভাগ করেন।

এই ছবিতে অভিনয়ের জন্য কুসুম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও অর্জন করেন। অভিনীত ‘গহীনে শব্দ’, ও ‘লাল টিপ’ সিনেমাটিও বেশ প্রশংসা কুড়ায়। অভিনেত্রী দেশীয় সিনেমার বাজার নিয়েও কথা বলেন। তিনি বলেন, আগে আমাদের ওটিটি ছিল না। এছাড়া আমদানি রপ্তানির বিষয়টিও এত সহজ ছিল না। এখন ওটিটির পাশাপাশি বিভিন্ন দেশে আমাদের সিনেমা সহজে প্রদর্শন করার সুযোগ হচ্ছে। দেশীয় সিনেমার বাজারও বড় হচ্ছে।’ অভিনয় থেকে পরিচালনায় কেন? তার ভাষ্য, আমি পাঁচ বছর আগে যে কাজটি করেছি সেটি এখন আর করতে চাই না। এছাড়া কারও সঙ্গে কাজ করে যদি আনন্দ না পাই সেটি না করাই ভালো মনে করি।

এরমধ্যে অনেক কাজের প্রস্তাব পেয়েছি। কিন্তু এসব কারণে আমার সেই কাজগুলো করা হয়নি।’ কুসুম কাজের ক্ষেত্রে কোন বিষয়কে প্রথমে গুরুত্ব দিয়ে থাকেন? এ প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমি প্রথমে  প্রোডাকশন হাউজ দেখি। কোথায় থেকে কাজটি নির্মাণ হচ্ছে। এরপর নির্মাতার ও লোকেশনের বিষয়টিকে গুরুত্ব দিই। কারণ অনেক সময় ভালো কাজও নির্মাতা ও লোকশনের কারণে মানহীন হয়ে পড়ে।’ তাহলে কি কুসুমের কাছে গল্প মুখ্য নয়? তিনি বলেন, গল্প অবশ্যই মুখ্য। আমি যে বিষয়গুলোর কথা বলেছি তার কারণ হলো, আমার কাছে কখনোই সহজ গল্প আসে না। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে ব্যতিক্রমী গল্পই আমার কাছে আসত। এখনো আসে। ভালো গল্প আসে বলেই আমি ঐ বিষয়গুলোকে গুরুত্ব দিয়ে থাকি।’ 
অভিনেত্রী পরিচয়ের বাইরে কুসুম লেখিকা ও সংগীতশিল্পী হিসেবেও পরিচিত। এরমধ্যে তার দুটো বই প্রকাশ হয়েছে। ‘নীল ক্যাফের কবি’ শিরোনামের প্রথম বই প্রকাশ হয় ২০১৪ সালে। এরপর  ২০২১ সালে প্রকাশ হয় ‘অজাগতিক ছায়া’ বইটি। তবে এ সময়ে সিনেমার দিকেই তার পুরো মনোযোগ বলে জানান।

×