ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১

রিহ্যাব নির্বাচন শান্তিপূর্ণ করতে সর্তক অবস্থানে প্রশাসন

প্রকাশিত: ২০:০১, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

রিহ্যাব নির্বাচন শান্তিপূর্ণ করতে সর্তক অবস্থানে প্রশাসন

  • প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা হলে ব্যবস্থা---বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী
  • ভোট ২৭ ফেব্রুয়ারি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে

আবাসন খাতের শীর্ষ সংগঠন রিহ্যাব নির্বাচন শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠু করতে সর্তক অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। নির্বাচনের দিন ভেন্যুতে বিপুল সংখ্যক পুলিশ, র‌্যাব এবং আইন-শ্ঙ্খৃলা বাহিনীর অন্যান্য সদস্যদের মোতায়েন করতে ইতোমধ্যে নির্বাচন পরিচালনা বোর্ড সংশ্লিষ্টদের চিঠি দিয়েছে। অন্যদিকে, নির্বাচন নিরপেক্ষ এবং শান্তিপূর্ণ করতে নির্দেশনা দিয়েছেন বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু। এ প্রসঙ্গে তিনি জনকণ্ঠকে বলেন, কেউ প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রিহ্যাব নির্বাচনে তিনি এবং তাঁর মন্ত্রণালয় রেফারির ভূমিকায় রয়েছেন। এ কারণে নির্বাচন সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ এবং শান্তিপূর্ণ করতে তিনি বদ্ধপরিকর। এখানে পক্ষপাতিত্বের কোন সুযোগ নেই। মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্টদের তিনি সেভাবেই নির্দেশনা দিয়েছেন। 

উল্লেখ্য, রিহ্যাব নির্বাচন সামনে রেখে একটি প্যানেল বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে কোন এক সময় তোলা একটি গ্রুপ ছবি ফেচবুক এবং হোয়াটস অ্যাপে শেয়ার করছে। সাধারণ ভোটারদের কেউ কেউ বিষয়টিকে নেতিবাচক হিসেবে দেখছেন। তাঁদের মতে, ভোটারদের প্রভাবিত করতে এ ধরনের কাজ করা হচ্ছে। তবে এ প্রসঙ্গে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী জানান, যারা এটি করছে তাদের উদ্দেশ্য যে অসৎ এটি পরিস্কার। এতে ভোটারদের প্রভাবিত হওয়ার কোন সুযোগ নেই। কারণ বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এখানে রেফারির ভূমিকা পালন করছে। তিনি বলেন, সংগঠনটিতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা প্রশাসক হিসেবে কাজ করছেন, যারা নির্বাচন বোর্ডে রয়েছেন তারাও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা। ইতোমধ্যে একটি ভালো এবং নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য তাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এটি নিয়ে ভুলবুঝাবুঝির কোন সুযোগ নেই। 

জানা গেছে, আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি রাজধানী ঢাকার ফার্মগেট খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (কেআইবি) মিলনায়তনে রিহ্যাব নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। প্রায় ১০ বছর পর এই বাণিজ্য সংগঠনের নেতৃত্ব নির্বাচনে সরাসরি ভোট হচ্ছে। ফলে শেষ মুহূর্তের প্রচার-প্রচারণা জমে উঠেছে। প্রার্থীরা ভোট চাইতে এখন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন। আবাসন ব্যবসায়ীদের সংগঠন রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব) নির্বাচনে এবার চারটি প্যানেল প্রতিদ্বন্ধিতা করছে। সেগুলো হচ্ছে সংগঠনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জাপান গার্ডেন সিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. ওয়াহিদুজ্জামানের নেতৃত্বাধীন আবাসন ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদ, সেঞ্চুরি রিয়্যালটির চেয়ারম্যান এম জি আর নাসির মজুমদারের নেতৃত্বে ডেভেলপারস ফোরাম, রিহ্যাবের সাবেক সহসভাপতি নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে নবজাগরণ প্যানেল এবং সাবেক জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ও হামিদ রিয়েল এস্টেট কনস্ট্রাকশনের এমডি ইন্তেখাবুল হামিদের  নেতৃত্বে জয় ধারা নামে একটি প্যানেল হয়েছে। চার প্যানেলের বাইরে আরও চারজন স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সব ধরনের প্রস্তুনি নিয়েছে নির্বাচন বোর্ড।

এ প্রসঙ্গে নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান ও যুগ্ম সচিব সুব্রত কুমার জানান, নির্বাচনের দিন বিপুল সংখ্যক পুলিশ, র‌্যাব এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা নিয়োজিত থাকবে। ইতোমধ্যে বোর্ড থেকে এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, দপ্তর এবং অধিদপ্তরকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দিতে চিঠি দেওয়া হয়েছে। কোন অনিয়ম এবং ভোট প্রভাবিত করার চেষ্টা করা হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 
 

এম শাহজাহান

×