ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১

এস আলম গ্রুপের কারখানায় ভোক্তা অধিকারের পরিদর্শন

সরকার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে কম দামে বিক্রি হচ্ছে ভোজ্যতেল

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ১৯:৩৪, ৩ মার্চ ২০২৪

সরকার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে কম দামে বিক্রি হচ্ছে ভোজ্যতেল

এস আলম গ্রুপ।

আসন্ন রমজানে খাদ্যপণ্যের মূল্য স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে চট্টগ্রামে অভিযান পরিচালনা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। গত শনিবার (২ মার্চ) সংস্থাটির কর্মকর্তারা দেশের ভোজ্যতেলের অন্যতম প্রধান সরবরাহকারী এস. আলম গ্রুপের চট্টগ্রামের কারখানায় পরিদর্শন ও অভিযান পরিচালনা করেন। 

মইজ্জার টেক এলাকায় অবস্থিত এস. আলম গ্রুপের এই কারখানায় অভিযানে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। কারণ এখানে সরকার নির্ধারিত ১৬৩ টাকার চেয়ে ১ টাকা ছাড় দিয়ে অর্থ্যাৎ তুলনামূলক কম মূল্যে ১৬২ টাকায় লিটার প্রতি বা ১ লিটার সয়াবিন তেল উৎপাদন ও বাজারে সরবরাহ করতে দেখেন অভিযান পরিচালনাকারী কর্মকর্তারা।   

প্রসঙ্গত, রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগপণ্যের সরবরাহ নিরবচ্ছিন্ন রাখতে ও পণ্যের দাম সহনীয় রাখতে প্রতি বছরের মতো এবারও এস. আলম গ্রুপ পর্যাপ্ত চিনি, ভোজ্যতেল, গম, ডাল, ছোলা, মসলা ইত্যাদি আমদানি করছে। 

প্রায় ১২ লাখ মেট্রিক টনের বেশি আমদানিকৃত এসব পণ্যের মধ্যে চিনি ৬ লাখ ৪১ হাজার ৩ শ মেট্রিক টন, যা রমজানের চাহিদার দ্বিগুণের চেয়ে বেশি; ভোজ্যতেল ২ লাখ ৫৮ হাজার মেট্রিক টন, যা রমজানের চাহিদার ৮৬ শতাংশ; গম ১ লাখ ৭৮ হাজার মেট্রিক টন, যা রমজানের চাহিদার ৩৪ শতাংশ; ডাল ৫০ হাজার মেট্রিক টন; যা রমজানের চাহিদার ৫০ শতাংশ; ছোলা ৫০ হাজার মেট্রিক টন, যা রমজানের চাহিদার ৫৫ শতাংশ।

কয়েক শত মিলিয়ন ডলার বা কয়েক হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগে আমদানিকৃত এসব পণ্য দেশে রমজানের মোট ভোগ্যপণ্য চাহিদার প্রায় ৫০ শতাংশ।

আরএস

×