ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

সংস্কৃতি সংবাদ

গ্যালারি কায়ায় চলছে ‘রিয়েলিটি, ফ্যান্টাসি অ্যান্ড ডিলেমা’

সংস্কৃতি প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০০:২৯, ১৬ মে ২০২৪

গ্যালারি কায়ায় চলছে ‘রিয়েলিটি, ফ্যান্টাসি অ্যান্ড ডিলেমা’

উত্তরার গ্যালারি কায়ায় চলমান রিয়েলিটি, ফ্যান্টাসি অ্যান্ড ডিলেমা শীর্ষক প্রদর্শনীর একটি ছবি

নিভৃতচারী এক চিত্রকর চন্দ্র শেখর দে। সেই সুবাদে গত শতকের সত্তরে দশকের আলোচিত্র এই শিল্পীর নাম খুব একটা শোনা যায় না। তাই বলে তিনি ক্যানভাস থেকে দূরে থাকেন না। প্রতিদিনই নিয়ম করে হাজির হন চিত্রপটের সামনে। প্রচারের আলোয় না থাকলেও রং ও রেখায় ভর করে কেটে যায় সুন্দরতম সময়।  নিমগ্ন থাকেন সৃজনের ভুবনে।

সেই সৃজনের পথরেখায় দীর্ঘ তেইশ বছর পর  নিজের আঁকা ছবি নিয়ে  হাজির হয়েছেন দর্শক সম্মুখে।  উত্তরার গ্যালারি কায়ায় চলছে তার তৃতীয় এক প্রদর্শনী। গত কয়েক বছরে চিত্রিত ছবিতে সজ্জিত শিল্পায়োজনটির শিরোনাম ‘রিয়েলিটি,  ফ্যান্টাসি এ্যান্ড ডিলেমা’।

অঙ্কন রীতিতে স্বকীয় বৈশিষ্ট্যে উজ্জ্বল চন্দ্র শেখর দের প্রতিটি ক্যানভাস। সেসব চিত্রপটে বাস্তবতার সমান্তরালে কল্পনাকে সঙ্গী করে মেলে ধরেছেন বিষয়কে। বাস্তব ও কল্পিত জীবনের পাশাপাশি জীবনের দ্বান্দ্বিকতাকেও  ছুঁয়ে গেছেন রং-তুলির আঁচড়ে। প্রদর্শনালয়ের দেয়ালে ঝুলে থাকা  সেসব ছবির পানে তাকালে মুগ্ধ হতে হয় শিল্পরসিককে।

সুচারু রংয়ের প্রয়োগ থেকে গতিময় রেখার টানে আঁকা চিত্রকর্মসমূহ প্রশান্তির অনুভব ছড়িয়ে দেয় নয়নে। কারণ, কাজের মধ্যে রয়েছে সূক্ষ্মতা। মূর্ত ও  বিমূর্ত ধারার ছবি রয়েছে প্রদর্শনীতে। ভিন্ন ভিন্ন ফর্মে চিত্রিত মানব-মানবীর অবয়বে  বহুমাত্রিক অভিব্যক্তির সন্ধান মেলে। ফিগারেটিভ কাজগুলোও উপস্থাপিত হয়েছে দৃষ্টিনন্দনভাবে। কিছু ছবিতে রয়েছে কম্পোজিশনের বৈচিত্র্যময়তা।  এর বাইরে জায়গা করে নিয়েছে  নিসর্গের নান্দনিকতা 
সব মিলিয়ে বলা যায়, বাস্তব ও কল্পনার দোলাচলে ক্যানভাস সাজিয়েছেন চন্দ্র শেখর দে। তেমনই এক ছবিতে রাত্রিকালে প্রাসাদের জানালার সামনে দাঁড়িয়ে থাকা রাজকীয় এক নারীর চোখের সামনে উড়ে বেড়ায় ডানা মেলা পরী। বার্ডস আই ভিউ বা পাখির দৃষ্টিতে দেখা আরেক ছবি বলে যায় নদীমাতৃক জীবনের গল্প।

তিন স্তরে সাজানো সে চিত্রকর্মে নদীতটে ভিড়ে থাকা নৌকার উল্টোদিকে দৃশ্যমান হয়েছে জেলে জীবনের সঙ্গে সম্পৃক্ত নানা অনুষঙ্গ। আর তৃতীয়  স্তরে নীল জলে ভেসে বেড়ানো ছোট মাছকে বড় মাছের গিলে খাওয়ার দৃশ্যকল্প রূপায়িত হয়েছে। স্টাইলিস্ট শীর্ষক চিত্রকর্মে বাহারি অলঙ্কারের অঙ্গসজ্জায় বিশেষ ভঙ্গিমায় উপস্থাপন করা হয়েছে নারীকে। কাপল শিরোনামের ছবিতে হলুদ রঙের প্রলেপের চারপাশ ঘিরে পুরু রেখার টানে আলিঙ্গনে আবদ্ধ প্রেমিক-প্রেমিকার দেখা মেলে।

ড্রইংয়ের আশ্রয়ে আঁকা মাদার অ্যান্ড চাইল্ড শিরোনামের ছবিতে চমৎকার করে ঘোমটা টানা নারীর  মমতামাখা হাতটি ঠেকেছে কন্যার কেশে। এ ছাড়া  লস্ট অ্যান্ড ফাউন্ড, এক্সটেসি অব ইস্ট অ্যান্ড ওয়েস্ট, এনচ্যানটেড  মোমেন্টস, লুক অ্যাট মি, ওয়েটিং ফর বোট, রিদম অব ডার্কনেস, ডিমলাইট,  নেইবার, আর্লি মর্নিং রিলাক্সেশন, ড্রেসিং আপ, রিফ্লেকশন অব মুনলাইট, ড্যান্সার,  শিরোনামের চিত্রকর্মগুলো বিশেষভাবে কাছে টানে দর্শনার্থীকে। 
জল রং, অ্যাক্রেলিক, কালি-কলমসহ নানা মাধ্যমে আঁকা ৬৫টি চিত্রকর্মের সম্মিলনে সেজেছে এই শিল্পায়োজন। চলবে আগামীকাল শুক্রবার পর্যন্ত। বেলা সাড়ে ১১টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

×