বৃহস্পতিবার ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

নিয়োগে অনিয়ম, দুর্নীতির অভিযোগ

  • আড়ানি পৌরসভা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানি পৌরসভার বিভিন্ন পদে নিয়োগ অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। পৌরসভার বর্তমান মেয়র মোঃ মোক্তার আলী ও সহকারী প্রকৌশলী এ কে এম সাইফুল ইসলাম উভয়ের যোগসাজশে এমন অনিয়ম হয়েছে। এসব অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোঃ আল আমিনের নেতৃত্বে অভিযান চালায়। অভিযানে অভিযোগের প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়া গেছে। অভিযানে দেখা গেছে, নিয়ম না থাকা সত্ত্বেও সহকারী প্রকৌশলী সাইফুর ইসলামকে সচিব পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। মাস্টার রোলে কর্মচারী নিয়োগের বিধান অমান্য করে দুজন অস্তিত্বহীন ব্যক্তির নামে প্রায় ৯ লাখ টাকা মেয়র উত্তোলন করেছেন। অন্যদিকে পৌরসভার নিজস্ব কোন জিপ গাড়ি নেই এবং এর জন্য কোন তেলও বরাদ্দ নেই। তবে অন্য যানবাহন আছে। সে ক্ষেত্রে যাচাইয়ের জন্য এ্যানফোর্সমেন্ট টিম সংশ্লিষ্ট রেজিস্ট্রার সংগ্রহ করেছে।

এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা আরিফ সাদিক জানান, রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানি পৌরসভা মেয়র ও সহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে বিধিমালা লঙ্ঘন করে বিভিন্ন পদে নিয়োগ ও জিপ গাড়ি না থাকা সত্ত্বেও তেল উত্তোলন বাবদ অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে বুধবার অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এ সময় দুদক টিম বিধিমালা লঙ্ঘন করে বিভিন্ন পদে নিয়োগ প্রদান সংক্রান্ত নথিপত্র সংগ্রহ করে। টিম সব প্রকল্পের তালিকা, বরাদ্দের নথি ও ব্যয় রেজিস্ট্রারের কপি দ্রুত সরবরাহের জন্য বলা হয়েছে। এছাড়াও প্রাথমিক অনুসন্ধানে সহকারী প্রকৌশলীর বেশকিছু সম্পদের তথ্য পাওয়া গেছে, যা তার আয়ের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় বলে দুদক টিমের কাছেও প্রতীয়মান হয়েছে। দুদক সূত্রে আরও জানা যায়, রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানি পৌরসভার বর্তমান মেয়র মোঃ মোক্তার আলী স্থানীয় সরকার বিভাগের পৌর শাখার ছাড়পত্র প্রাপ্ত নিয়ে একজন স্টোর কিপার, সহকারী কর আদায়কারী তিনজন, লাইসেন্স পরিদর্শক একজন, সুপারভাইজার পদে দুজন, বিদ্যুত মিস্ত্রি ও হেলপার পদে দুজন, রোড রোলার ও ট্রাক চালক পদে দুজন এবং অফিস সহায়ক পদে দুজনসহ মোট ১৩ জন কর্মচারী নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি দেয়। এসব পদে নিয়োগ দিতে বিধি লঙ্ঘন করে পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী এ কে এম সাইফুল ইসলামকে নিয়োগ কমিটির সদস্য সচিব করেন এবং প্রতিটি পদে ১০ থেকে ১৫ লাখ টাকা উৎকোচ নিয়ে বিধিবহির্ভূতভাবে উক্ত ১৩টি পদে নিয়োগ দেয়া হয়। এছাড়া বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ মেয়র ও প্রকৌশলী সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে।

শীর্ষ সংবাদ:
গণমুখী প্রশাসন ॥ স্বাধীনতার ৫০ বছরে বড় অর্জন         ছাত্রদের কাজ লেখাপড়া, রাস্তায় নেমে যান ভাংচুর নয়         উন্নয়নে পাকিস্তানকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ         ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নেতৃত্বের ভূমিকায় থাকবে         ১১ খাতে বিপুল বিনিয়োগ আসার সম্ভাবনা         ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তি চুক্তিতে বদলে গেছে পাহাড়         রামপুরায় ছাত্র বিক্ষোভ, মতিঝিলে গাড়ি ভাংচুর         দেশের প্রথম বর্জ্য বিদ্যুত কেন্দ্র অবশেষে বাস্তবায়ন হচ্ছে         বাল্যবিয়ে রোধে কাজীদের সচেতন করতে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে         হত্যা মিশনে ব্যবহৃত গুলি-অস্ত্র উদ্ধার         শ্রদ্ধা ভালবাসায় জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের চিরবিদায়         সুপ্রীমকোর্টে শারীরিক উপস্থিতিতে বিচার কাজ শুরু         খালেদা জিয়াকে স্তব্ধ করে দিতে চায় সরকার ॥ ফখরুল         মুক্তিপণের টাকা আদায় হচ্ছিল মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে         সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে লাল সবুজের মহোৎসবে মুখরিত হাতিরঝিল         ৯০ কার্যদিবসে সম্প্রীতি বিনষ্টের মামলা নিষ্পত্তি করতে হবে         এইচএসসি ও আলিম পরীক্ষা উপলক্ষে যে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ডিএমপি         আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমলে ব্যবস্থা নেবো : অর্থমন্ত্রী         হৃদরোগ ঝুঁকি হ্রাসে সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় আরও ২ জনের মৃত্যু