মঙ্গলবার ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে তদন্ত রিপোর্ট

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার ॥ পেকুয়ার উজানটিয়া ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি বলে রিপোর্ট দিয়েছে তদন্ত কমিটি। জেলা প্রশাসক বিভিন্ন অভিযোগের বিষয়ে পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করেন। পৈত্রিক স্বত্বের বিরোধের জেরে চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলামের বড় ভাই মিজবাহ উদ্দিন এই অভিযোগ দায়ের করেন মর্মে ইউএনও মোতাছেম বিল্যাহ স্বাক্ষরিত তদন্ত প্রতিবেদন সূত্রে জানা গেছে। ইউএনও উল্লেখ করেছেন, মিজবাহের দায়ের করা ৪টি অভিযোগের কোনটির সত্যতা পাওয়া যায়নি। বুতিজা বেগমের ঘর জবর দখল হয়নি, ঘরটিতে জনৈক সেলিম উদ্দিন ভাড়ায় থাকেন। প্রতিমাসে ঘরের ভাড়া বাবদ টাকা বুতিজা বেগমের ওয়ারিশদের কাছে পৌঁছে দেন তিনি। অভিযোগকারীর জমি জবর দখলের বিষয়টি নিয়েও সুস্পষ্ট কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি। মৎস্যজীবী সমিতি গঠন করার বিষয়ে চেয়ারম্যান যথাযথ কাগজপত্র প্রদর্শন করেছেন এবং সমিতির সদস্যরা তাদের কাছ থেকে জোর করে স্বাক্ষর নেয়ার বিষয়টি মিথ্যা বলে জবানবন্দী দিয়েছেন।

অভিযোগকারীর বড় ভাই এটিএম বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, মিজবাহ উদ্দিন পারিবারিকভাবে বিচ্ছিন্ন ও স্বত্ব লোভী আমাদের সহোদর। সম্পত্তির লোভে দীর্ঘদিন ভাই ও আত্মীয় স্বজনের সঙ্গে বিরোধ করে আসছে। উজানটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আকতার আহমদ বলেন, জোট সরকার আমলে শহিদুল ইসলাম চেয়ারম্যানকে বিএনপি নেতারা বিশটিরও অধিক মামলায় ফাঁসিয়েছে। সহোদরের সঙ্গে এসব বিরোধকে কাজে লাগিয়ে বিরোধী পক্ষ এখন স্বার্থ উদ্ধার করতে চাইছে। জলমহাল ও দুর্নীতির অভিযোগ করার কারণে চেয়ারম্যানের সঙ্গে মতবিরোধ সৃষ্টি হয় দাবি করে মিছবাহ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আমার অভিযোগটি যথাযথ তদন্ত করা হয়নি। আমাকে উল্টো নাজেহাল করেছে জেলা প্রশাসনের উপসচিব শ্রাবন্তি রায় ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। তারা আমাকে মিথ্যুক বলেছে। চেয়ারম্যানের এবং তার সঙ্গে করে নিয়ে আসা ভাড়াটে লোকজনের বক্তব্য নিয়ে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে। আমি পুনর্তদন্ত দাবি করি। চেয়ারম্যান এম শহিদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, দীর্ঘদিন ধরে উজানটিয়াবাসীর সেবায় নিয়োজিত আছি। আমার ইউনিয়নের মানুষের প্রতি আমার আস্থা রয়েছে।

ইতালি প্রবাসী সেই শাহ আলমের

নৌকার মনোনয়ন বাতিল

নিজস্ব সংবাদদাতা, শরীয়তপুর ॥ আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে শরীয়তপুর সদর উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে ইতালি বসে মনোনয়ন পাওয়া সেই শাহ আলমের নৌকার মনোনয়ন বাতিল করেছে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ড। উক্ত ইউনিয়নে নতুন করে নৌকার মনোনয়ন দেয়া হয়েছে লিয়াকত হোসেন হান্নান তালুকদারকে। ১০ অক্টোবর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ড ইতালি প্রবাসী শাহ আলমকে নৌকার মনোনয়ন প্রদান করেন। এ বিষয়ে ১২ অক্টোবর দৈনিক জনকণ্ঠ পত্রিকায় ‘ইতালি বসেই নৌকার মনোনয়ন পেলেন শাহ আলম এলাকায় বিক্ষোভ’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পাশাপাশি অন্যান্য কয়েকটি মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপর আওয়ামী লীগের দলীয় ফোরামে তোলপার শুরু হয়। ইতালি প্রবাসী শাহ আলমের মনোনয়ন বাতিল করে দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার স্বাক্ষরে নতুন প্রার্থী হিসেবে লিয়াকত হোসেন হান্নানকে নৌকার মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, শাহ আলম দীর্ঘ প্রায় ২ যুগ ধরে ইতালিতে বসবাস করছেন।

শীর্ষ সংবাদ:
শীর্ষে যাবে রফতানিতে ॥ গার্মেন্টস শিল্পে ঈর্ষণীয় সাফল্য         ঢাকা-দিল্লী সম্পর্ক আস্থা ও শ্রদ্ধায় বিস্তৃত         ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার ১১ মাসের মাথায় সুচির কারাদণ্ড         বিশ্বজুড়ে শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দিচ্ছেন শেখ হাসিনা         অভিযুক্ত কর্মকর্তাদের সচিব পদোন্নতি দেয়ার প্রক্রিয়া!         বিজয়ের মাস         জাওয়াদ দুর্বল হয়ে লঘুচাপে রূপ নিয়েছে         ৪৩ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে রিপোর্ট দিতে হাইকোর্টের নির্দেশ         অরাজকতা সৃষ্টির নীলনক্সা জামায়াতের         আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জনের সূচনা ৬ ডিসেম্বর         বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী ছিন্ন করা যাবে না         বন্ড সুবিধার অপব্যবহার, ২৭৫ কোটি ৩২ লাখ টাকার ভ্যাট ফাঁকি         বিএনপি রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা সৃষ্টির চেষ্টা করছে         সমিতি সংগঠন খুলে ফায়দা লুটে নিচ্ছে বিশেষ শ্রেণী         তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মুরাদকে পদত্যাগের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর         দেশে টিকা উৎপাদনে দুই-চার দিনের মধ্যেই চুক্তি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী         সমাপনী পরীক্ষা না থাকলেও বৃত্তি ও সনদের ব্যবস্থা থাকবে : শিক্ষামন্ত্রী         চরফ্যাশনে ট্রলার ডুবি ॥ ২১ মাঝি-মাল্লা নিখোঁজ         পেট্রোবাংলার নতুন চেয়ারম্যান নাজমুল আহসান         আড়াইহাজারে আগুনে দুই শিশুসহ একই পরিবারের চারজন দগ্ধ